BREAKING NEWS

০৫ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  শনিবার ২১ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

এদিকে নিয়মরক্ষার মিনি ডার্বি, ওদিকে ‘অলউইন রেকর্ড’-এর হাতছানি

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: September 18, 2016 10:22 am|    Updated: September 18, 2016 10:24 am

Mohunbagan vs Mohammedan and East Bengal vs Aryan match preview

দীপক পাত্র: শনিবার অনুশীলনের শেষে বেশ কিছু সমর্থক ঘিরে ধরলেন শঙ্করলাল চক্রবর্তীকে৷ একটাই আকুতি৷ ডার্বিতে দল খেলেনি৷ মিনি ডার্বিতে দল যেন জেতে৷ তাহলে মান-কুল দু’টোই বজায় থাকবে৷ মোহনবাগান কোচ আশ্বস্ত করলেন৷

সত্যি অদ্ভুত পরিস্থিতি৷ আজ মিনি ডার্বি৷ অথচ তার কোনও গুরুত্ব নেই৷ লিগ চ্যাম্পিয়ন হয়ে গিয়েছে ইস্টবেঙ্গল৷ ফ্ল্যাগও তুলে দিয়েছে৷ মহামেডানের বিরুদ্ধে নিয়মরক্ষার ম্যাচে জেতা সহজ কথা নয়৷ মোটিভেশন থাকবে কী করে বাগান ফুটবলারদের? যদিও শঙ্কর হাল ছাড়ছেন না৷ ডার্বি হয়নি৷ তাই অন্তত মিনি ডার্বিতে জিতলে একটা কিছু বলার থাকবে৷ তাছাড়া শুরুর মতো শেষটাও ভাল করা চাই৷ বলছেন বটে, কিন্তু কেউ শুনছেন কি? এমন কঠিন পরিস্থিতি তো শুধু সবুজ-মেরুন শিবিরের নয়, সাদা-কালো জার্সিধারীদেরও৷

কল্যাণীতে প্র্যাকটিসের পর মোহনবাগান কোচ তো পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন, তাঁরা জেতা ছাড়া অন্যকিছু ভাবতে নারাজ৷ দলে একমাত্র ডাফির খেলা নিয়ে সংশয় রয়েছে৷ ডাফি না খেললে আজহারকে ফরোয়ার্ডে বিদেমির সঙ্গে জুড়ে দেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে৷ সেক্ষেত্রে লেফট হাফে আসবেন আর একজন৷ মহামেডান সম্পর্কে একটা শ্রদ্ধা রয়েছে মোহনবাগান কোচের৷ বলছিলেন, “ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে ভাল খেলেছে৷ তাছাড়া দলটা বেশ আক্রমণাত্মক৷ ডোডোজ, মনপ্রীতরা গোলের মধ্যে রয়েছে৷ মহামেডানকে হারানো সহজ ব্যাপার নয়৷”

মহামেডানের কোচ মৃদুল বন্দ্যোপাধ্যায়কে মোহনবাগান সম্পর্কে জিগ্যেস করতেই একটা কথা বললেন, “মোহনবাগান নামটাই তো যথেষ্ট৷ জার্সির ওজন অস্বীকার করার উপায় নেই৷ ওদের নিয়ে তো ভাবতেই হবে৷” মরশুমের শুরুতে মহামেডান সম্পর্কে খুব একটা উচ্চাশা কারও ছিল না৷ কিন্তু সেই দল মরশুমের শেষে সকলের প্রশংসা কুড়িয়ে নিয়েছে৷ তবু মৃদুল চিন্তিত৷ কেন? এমনিতেই নিয়রক্ষার ম্যাচে প্লেয়ারদের মোটিভেট করা মুশকিল৷ তার উপর দলের নির্ভরযোগ্য ডিফেন্ডার রানা ঘরামি কার্ড সমস্যায় খেলতে পারবেন না৷ তাঁর জায়গায় অনুপম বা সৌরভ চক্রবর্তী খেলবেন৷ স্টপার লাইনে পরিবর্তন ঘটতে পারে৷

এদিকে এদিন বারাসতে এরিয়ানের বিরুদ্ধে নামবে ইস্টবেঙ্গল৷ যারা বরাবর পরিচিত লাল-হলুদের শক্ত গাঁট হিসাবে৷ যদিও এবার ইস্টবেঙ্গল ফুটবলাররা চিন্তুমুক্ত৷ সাতে সাত হয়ে গিয়েছে৷ আবার কী! জিম, আড্ডা করেই কাটিয়ে দিলেন রবার্ট, অবিনাশরা৷ যদিও দলের মাথায় ঘুরছে ‘অলউইন রেকর্ড’-এর কথা৷ তাহলেই যে লেখা হবে আরও একটি ইতিহাস৷ এই ইতিহাস সব ম্যাচ জিতে লিগ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার৷ ৭৭ সালে শেষবার সব ম্যাচ জিতে লিগ চ্যাম্পিয়ন হয় ইস্টবেঙ্গল৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে