BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

সিন্ধুর জৌলুসে ম্লান প্যারা-চ্যাম্পিয়নশিপে জোড়া সোনাজয়ী এই ভারতীয়, চেনেন?

Published by: Sulaya Singha |    Posted: August 27, 2019 3:39 pm|    Updated: August 27, 2019 3:39 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্ব ব্যাডমিন্টন চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জিতে ইতিহাস গড়েছেন পি ভি সিন্ধু। ভারতীয় তারকার জন্য দেশজুড়ে জয়জয়কার। দেশে ফিরে মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও দেখা করেন তিনি। হায়দরাবাদি শাটলারই এখন শিরোনামে। এই উচ্ছ্বাসের মধ্যে হয়তো কোথাও যেন ধামাচাপা পড়ে গিয়েছে আরেক ভারতীয় শাটলারের জোড়া সোনা জয়ের কাহিনি। তিনি প্রমোদ ভগৎ। ইংল্যান্ডের ড্যানিয়েল বেথেলকে হারিয়ে যিনি প্যারা ব্যাডমিন্টন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে সোনা জিতেছেন।

[আরও পড়ুন: কেন রোহিতকে বসিয়ে নেওয়া হল হনুমা বিহারীকে? ব্যাখ্যা দিলেন কোহলি]

রবিবার সিঙ্গলসে এসএল থ্রি বিভাগে সোনা জয়ের পাশাপাশি ডাবলসেও (এসএল ৩-৪ বিভাগে) প্রথম স্থান দখল করেন প্রমোদ। ফলে এই চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে জোড়া সোনা ঘরে তুলেছেন তিনি। এসএল ৩ বিভাগের অর্থ যাঁদের দাঁড়ানোর যৎসামান্য ক্ষমতা আছে। এসএল ৪ বিভাগে পড়েন তাঁরা যাঁরা আরও দাঁড়াতে পারেন না। সিঙ্গলসে ৬-২১, ২১-৪, ২১-৫ গেমে ইংলিশ তারকাকে হারান বিশ্বের এক নম্বর শাটলার। আর ডাবলসের ফাইনালে মনোজ সরকারের সঙ্গে জুটি বেঁধে নীতেশ কুমার এবং তরুণ ধীলনের বিরুদ্ধে ১৪-২১, ২১-১৫, ২১-১৬ গেমে ম্যাচ জেতেন প্রমোদ। প্রথম গেম হাতছাড়া করেও দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়ান তাঁরা।

বিশেষ ক্ষমতাসম্পন্ন বলে অবসাদে ভোগেননি। বরং ব্যাডমিন্টন কোর্টের প্রতিটি স্ম্যাশের মধ্যে দিয়ে জীবনের সমস্ত প্রতিকূলতাকে জয় করেছেন প্রমোদ। নজির গড়ে বলছেন, “কোর্টে সেট হতে একটু সময় নিচ্ছিলাম। তাই প্রথম গেমটা একটু ধীরেই শুরু করেছিলাম। কিন্তু দ্বিতীয় গেমে পেসটা সামলে ম্যাচে ফিরি। বেথেলের সঙ্গে এর আগেও খেলেছি। তাই জানতাম, লড়াইটা কঠিন হবে। বছরের ষষ্ঠ সিঙ্গলস সোনা জিতে দারুণ লাগছে। এখানে জয়টা টোকিও অলিম্পিকে যোগ্যতা অর্জনের পয়েন্ট পেতেও সাহায্য করল। সঙ্গে আমার আত্মবিশ্বাসও বাড়িয়ে তুলল।” গোটা টুর্নামেন্টে ভারতের ঝুলিতে এসেছে মোট ১২টি পদক। যার মধ্যে তিনটি সোনার। ২০১৫ সালেও অবশ্য এই টুর্নামেন্টে একই পরিমাণ পদক জিতেছিল ভারত। সেবার সোনার পদকের সংখ্যা ছিল চার।

[আরও পড়ুন: এবার লক্ষ্য অলিম্পিক, সোনাজয়ী সিন্ধুর প্রশংসায় শচীন-সানিয়ারা]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement