৩১ ভাদ্র  ১৪২৬  বুধবার ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: একসময় ফরমুলা ওয়ানে রাস্তা কাঁপিয়েছেন। ৯১টি গ্রাঁপি ও সাতটি বিশ্বখেতাব জয়ের রেকর্ড রয়েছে শ্যুমাখারের। ফরমুলা ওয়ানের ইতিহাসে হেন কোনও রেস নেই, যা অধরা ছিল তাঁর। কিন্তু, একটি দুর্ঘটনা পুরোপুরি বদলে দেয় শুমির জীবন। টানা ৬ বছর তিনি ছিলেন কোমায়। চিকিৎসকদের হাজারো চেষ্টাতেও মেলেনি কোনও ফল। অবশেষে, ৬ বছরের পরিশ্রমের ফল মিলল। জ্ঞান ফিরেছে মাইকেল শ্যুমাখারের। শ্যুমি চিকিৎসায় সাড়া দিচ্ছেন। একথা জানিয়েছেন তাঁরই চিকিৎসার দায়িত্বে থাকা নার্স।

[আরও পড়ুন: হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের পর চতুর্থবার ইউএস ওপেন জয়ী রাফায়েল নাদাল]

২০১৩ সালের ২৯ ডিসেম্বর আল্পস পর্বতে স্কি দুর্ঘটনার শিকার হন শ্যুমাখার। সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে অ্যাম্বুল্যান্সে করে সুইজারল্যান্ড থেকে আনা হয় ফ্রান্সে। শুরু হয় চিকিৎসা। তার পর ছয় বছর কোমায় ছিলেন। স্কি দুর্ঘটনায় মাথায় গুরুতর চোট পেয়েছিলেন ট্র্যাকের রাজা। আঘাত এতটাই গুরুতর যে, তাঁর মস্তিষ্ক আর সাড়া দিচ্ছিল না। চিকিৎসকদের চেষ্টায় মাঝে মাঝে পরিস্থিতির উন্নতি হলেও গত ছ’বছরে তিনি সম্বিত ফিরে পাননি। অবশেষে তাঁর জ্ঞান ফিরেছে বলে জানিয়েছে ফ্রান্সের এক প্রথম সারির সংবাদপত্র।

[আরও পড়ুন: ইউএস ওপেনের ফাইনালে হার, গ্র্যান্ড স্ল্যামের রেকর্ড অধরা সেরেনার]

২০১৩-র সেই দুর্ঘটনার পর ফ্রান্সের হাসপাতাল একপ্রকার জবাবই দিয়ে দিয়েছিল। চিকিৎসায় সাড়া না দেওয়ায় কিছুদিন পর থেকে তাঁকে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা শুরু করেন ডাক্তাররা। শ্যুমাখারের দেখাশোনা করতেন স্ত্রী। প্রাক্তন বিশ্বচ্যাম্পিয়নের এই দুর্ঘটনা মেনে নিতে পারছিলেন না ক্রীড়াপ্রেমীরাও। কয়েক দিন আগে প্যারিসের জর্জেস পম্পিদো হাসপাতালে ভরতি করা হয় শুমিকে। সেখানেই কার্ডিও ভাসকুলার সার্জেন ফিলিপ মেনাসের চিকিৎসায় সাড়া দেন তিনি। শ্যুমাখারের দেখাশোনায় নিযুক্ত এক নার্স জানিয়েছেন, ”ওঁর জ্ঞান ফিরেছে। আগের থেকে ও অনেক ভাল আছে এখন।”

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং