BREAKING NEWS

১৫ ফাল্গুন  ১৪২৭  সোমবার ১ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অবিশ্বাস্য সাফল্য! শীতকালে কেটু শৃঙ্গ জয় করে ইতিহাস গড়লেন ১০ নেপালি পর্বতারোহী

Published by: Biswadip Dey |    Posted: January 17, 2021 10:20 am|    Updated: January 17, 2021 10:20 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এ যেন অসম্ভবকে সম্ভব করা। চরম শীতে বিশ্বের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ শৃঙ্গ কেটু (K2) জয় করলেন ১০ সদস্যের এক নেপালি পর্বতারোহীর (Nepali climbers) দল! তাঁদের এই সাফল্যকে ঐতিহাসিক বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। এমনিতেই সারা বিশ্বে আরোহণের জন্য সবচেয়ে কঠিন শৃঙ্গ হিসেবে ধরা হয় ৮,৬১১ মিটার উঁচু এই শৃঙ্গকে। তার উপর শীতের ভয়াল কামড় সহ্য করে তাকে জয় করা কার্যতই ‘মিশন ইম্পসিবল’। দলের অন্যতম সদস্য নিমসদাই পুর্জা জানিয়েছেন, গতকাল স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটায় এই নজির গড়েছেন তাঁরা। হার মানিয়েছেন কেটু-র অহংকে।

পাকিস্তান-চিন সীমান্তে অবস্থিত কারাকোরাম পর্বতশ্রেণির (Karakoram Range) কেটু শৃঙ্গ এভারেস্টের থেকে মাত্র ২০০ মিটার নিচু। অবিশ্বাস্য জেদকে সঙ্গী করে মোট ৬০ জন পর্বতারোহী এগিয়ে গেলেও শেষ পর্যন্ত সাফল্যের দাবি করল ১০ সদস্যের এই দলটি। দলের সবচেয়ে নামী পর্বতারোহী নির্মল পুর্জা ২০১৯ সালে মাত্র সাত মাসে ১৪টি শৃঙ্গ জয় করেছিলেন, যাদের উচ্চতা ৮ হাজার মিটারের বেশি। প্রসঙ্গত, ৮ হাজার মিটার বার তার বেশি উচ্চতার মোট ১৪টি শৃঙ্গ রয়েছে পৃথিবীতে।

[আরও পড়ুন: বিদায়বেলায় চিনকে ধাক্কা ট্রাম্প প্রশাসনের, হংকং ইস্যুতে চাপ বাড়াল ওয়াশিংটন]

এই আট হাজারি শৃঙ্গদের মধ্যে একমাত্র এই শৃঙ্গেই আজ পর্যন্ত কেউ উঠতে পারেননি শীতকালে। এমনিতেই এই শৃঙ্গকে বলা হয় ‘হিংস্র পর্বত’। ১৯৫৩ সালে মার্কিন পর্বতারোহী জর্জ বেল একে এই নাম দেন। তিনি বলেছিলেন, ”এটা একটা এমন হিংস্র পর্বত যা সবসময় আপনাকে মেরে ফেলতে চাইবে।” সেই শৃঙ্গকে এমন কঠিন সময়ে জয় করে উচ্ছ্বসিত নির্মল পুর্জা। তাঁর কথায়, ”মানবসভ্যতার ইতিহাসের অংশ হতে পেরে আমরা গর্বিত। আমরা দেখাতে পেরেছি দলীয় সমন্বয়, টিমওয়ার্ক ও পজিটিভ মানসিকতা থাকলে যা সম্ভব নয়, তাকেও স্পর্শ করা যায়।”

[আরও পড়ুন: দেশে ফিরলেই গ্রেপ্তার করা হবে নাভালনিকে, ষড়যন্ত্রের অভিযোগ রুশ বিরোধী নেতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement