BREAKING NEWS

২৮ আষাঢ়  ১৪২৭  মঙ্গলবার ১৪ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

ফের খেলার মাঠে করোনার প্রভাব! এবার স্থগিত সুলতান আজলান শাহ ট্রফি

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: March 2, 2020 5:14 pm|    Updated: March 12, 2020 1:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের খেলার মাঠে করোনা (COVID-19) আতঙ্কের প্রভাব। মারক ভাইরাসের প্রকোপের আশঙ্কায় স্থগিত হয়ে গেল হকির জনপ্রিয় টুর্নামেন্ট সুলতান আজলান শাহ কাপ (Sultan Azlan Shah Cup)। ২৯তম আজলান শাহ কাপ আয়োজিত হওয়ার কথা ছিল এপ্রিলেরে ১১ থেকে ১৮ তারিখের মধ্যে। মালয়েশিয়ার ইফো শহরে এই টুর্নামেন্টের জন্য যাবতীয় প্রস্তুতিও সেরে ফেলা হয়েছিল। কিন্তু, শেষপর্যন্ত তা পিছিয়ে দিতে বাধ্য হলেন আয়োজকরা।

Azlan-Shah
সুলতান আজলান শাহ ট্রফির আয়োজকদের তরফে একটি বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, “খেলোয়াড়, সাপোর্ট স্টাফ, আয়োজক, এবং ম্যাচ অফিসিয়াল, সবার ভালর কথা ভেবে এবছরের সুলতান আজলান শাহ ট্রফি আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।” টুর্নামেন্ট কমিটির চেয়ারম্যান হাজি এবিডি রহিম বিন মহম্মদ একটি বিবৃতিতে একথা বলেছেন। তিনি আরও জানিয়েছেন, “করোনা ভাইরাস ইতিমধ্যেই জাপান এবং কোরিয়ায় ছড়িয়ে পড়েছে। তাই খেলোয়াড়দের কথা ভেবে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিশেষভাবে ভাবা হয়েছে অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জাপানের মতো দেশের খেলোয়াড়দের কথা।” আজলান শাহর আয়োজকরা জানিয়েছেন, এপ্রিলের পরিবর্তে টুর্নামেন্টটি আয়োজিত হবে সেপ্টেম্বরে। ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে ৩ অক্টোবর পর্যন্ত সময়সীমা টুর্নামেন্টর জন্য প্রাথমিকভাবে ঠিক করা হয়েছে। ইতিমধ্যেই এই সিদ্ধান্ত আন্তর্জাতিক হকি ফেডারেশন, এশিয়ান হকি ফেডারেশন এবং মালয়েশিয়ান হকি ফেডারেশন এবং অংশগ্রহণকারী দলগুলিকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। উল্লেখ্য, আজলান শাহ ট্রফিতে প্রায় প্রতিবছরই অংশগ্রহণ করে ভারত। তবে, এবারে ভারতীয় দলের এই টুর্নামেন্ট খেলার কথা ছিল না।

[আরও পড়ুন: ভারতেও এবার করোনার ছোবল, দিল্লি ও তেলেঙ্গানায় প্রাণঘাতী ভাইরাসে আক্রান্ত ২]

করোনা আতঙ্কে ইতিমধ্যেই টোকিও অলিম্পিক অনিশ্চিত হয়ে গিয়েছে। পরিস্থিতি এতটাই জটিল যে, শীঘ্রই করোনা আতঙ্ক না কমলে পুরোপুরি বাতিল করে দেওয়া হতে পারে ক্রীড়াজগতের সবচেয়ে বড় ইভেন্ট। এই আশঙ্কার কথা শুনিয়েছেন করেছেন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির (International Olympic Committee) সদস্য ডিক পাউন্ড। তিনি জানিয়েছেন, করোনা নিয়ন্ত্রণ না করা গেলে অলিম্পিক একেবারে বাতিল করে দিতে হবে। পিছিয়ে যাওয়া বা স্থানান্তর করার কোনও সম্ভাবনা নেই। বছরের শুরু থেকে চিনে বড় সংকট হয়ে দেখা দিয়েছে নতুন ধরনের জীবাণু, নোভেল করোনা ভাইরাস। খুব কম সময়ের মধ্যেই তা মহামারির আকার ধারণ করেছে। শেষ খবর অনুযায়ী, করোনা প্রাণ কেড়েছে অন্তত ৩ হাজার জনের। শুধু চিন নয়, বিশ্ব জুড়ে তাবড় গবেষকরা নেমে পড়েছেন নোভেল করোনা রুখে দেওয়ার ওষুধ তৈরিতে। কিন্তু, সমাধানসূত্র অধরা এখনও। চিনের গণ্ডি পেরিয়ে এই ভাইরাসের সংক্রমণ বিশ্বের অন্তত ২৫টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement