১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পরীক্ষায় বসতে না পেরে আত্মঘাতী অ্যামিটি কলেজের ছাত্র

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 17, 2016 3:36 pm|    Updated: August 17, 2016 3:41 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কলেজে উপস্থিতির হার গড়ে ৭৫ শতাংশ না থাকলে বসা যাবে না পরীক্ষায়৷ আর তাই নয়ডার অ্যামিটি ল কলেজের ছাত্র সুশান্ত রোহিলাকে পরীক্ষায় বসতে দেওয়া হল না৷ ২১ বছরের সুশান্তের পা ভেঙে যাওয়ায় বেশ কিছুদিন তিনি ক্লাসে উপস্থিত থাকতে পারেননি৷ আর সেই কথা তিনি কলেজ কর্তৃপক্ষকেও জানিয়েছিলেন৷ কিন্তু তাতেও বিশেষ লাভ হয়নি৷ সুশান্তের কথায় বিশেষ পাত্তা দেয়নি কর্তৃপক্ষ৷ তাঁকে পরীক্ষায় বসারও অনুমতি দেওয়া হয়নি৷ আর এই সমস্যার কাছেই হেরে গেলেন সুশান্ত৷ চলতি মাসের ১০ তারিখে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেন তিনি৷

গত মে মাসের ১১ তারিখ তিনি কলেজের অধ্যক্ষকে ইমেল মারফত নিজের মনের অবস্থা জানিয়েছিলেন৷ ইমেলে তিনি জানিয়েছিলেন, পরীক্ষায় বসতে না পারার ব্যাপারটি তিনি মেনে নিতে পারছেন না৷ এমন পরিস্থিতিতে মানসিকভাবে তিনি টিকে থাকার ক্ষমতা হারাচ্ছেন৷

কিন্তু এই ইমেলের পরেও কলেজ কর্তৃপক্ষ কোনওরকমের সতর্কতা অবলম্বন করেননি৷ সুশান্তের পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নিজের অসুস্থতার কথা কলেজকে জানানোর পরেও তাঁর ছুটি মঞ্জুর করা হয়নি৷ আর তাই মানসিক ভাবে ভেঙে পরেছিলেন তিনি৷

কিন্তু সুশান্তর মৃত্যুর পরেই বিক্ষোভের ঝড় বয়ে গিয়েছে অ্যামিটি কলেজে৷ ২০০-র বেশি ছাত্র সুশান্তর মৃত্যুর বিরুদ্ধে কলেজের বাইরে প্রতিবাদ জানিয়েছেন৷ সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে কলেজ কর্তৃপক্ষের এহেন আচরণের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়েছেন ছাত্র-ছাত্রীরা৷

সুশান্তর বন্ধুরা জানিয়েছিলেন, লেখাপড়ায় ভাল ছিলেন আইনের চতুর্থ বর্ষের এই ছাত্র৷ লেখাপড়ার পাশাপাশি কলেজের সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেও অংশগ্রহণ করতেন তিনি৷

কলেজ কর্তৃপক্ষ গোটা বিষয়ে মুখ না খুললেও জানা গিয়েছে, কলেজের উপস্থিতির হার যেখানে ৭৫ শতাংশ, সেখানে সুশান্তর উপস্থিতির হার ছিল মাত্র ৪৩ শতাংশ৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement