BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

বারাক-৮ ক্ষেপণাস্ত্রর সফল উৎক্ষেপণের ‘হ্যাট্রিক’

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2016 4:02 pm|    Updated: July 1, 2016 5:17 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গত ৪৮ ঘন্টায় তিনবার বারাক-৮ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ করল ভারত৷ ভারত-ইজরায়েল যৌথ উদ্যোগে তৈরি এই এমআর-এসএএম ক্ষেপণাস্ত্র৷ ভূমি থেকে আকাশে লক্ষ্যবস্তুকে আঘাত করার ক্ষমতাসম্পন্ন মাঝারি পাল্লার নতুন ক্ষেপণাস্ত্র এটি৷ শুক্রবার ভারতের প্রতিরক্ষা দফতর সূত্রে বলা হয়েছে, এই ক্ষেপণাস্ত্রটি শুক্রবার সকাল ১০.২৬ মিনিট নাগাদ ওড়িশা উপকূলের চাঁদিপুরের সেনাঘাঁটির লঞ্চপ্যাড ৩ থেকে পরীক্ষা করা হল৷ গতকাল, বৃহস্পতিবার সকাল ৮.১৬ ও দুপুর ২.৩০ মিনিট নাগাদ দু’বার বারাক-৮ ক্ষেপণাস্ত্রের সফল উৎক্ষেপণ করে ভারত৷ এই প্রথমবার ভারতে এটি পরীক্ষা করা হল৷

(ভারতীয় বায়ুসেনায় যুক্ত হল সুপারসনিক ফাইটার জেট তেজস)

উৎক্ষেপণস্থল থেকে ৪০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুকে আঘাত করতে পারে নয়া মিসাইলটি৷ এরপর আরও বেশ কিছু পরীক্ষার পর এই মিসাইল সিস্টেম ভারতীয় বায়ুসেনাবাহিনীতে অন্তর্ভুক্ত করা হবে৷ ভারতীয় প্রতিরক্ষা গবেষণা সংস্থা ডিআরডিও-র তরফে জানানো হয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রটির বিশেষত্ব হল এতে বিপদ সংকেতের রেডার (মাল্টিফাংশনাল সার্ভিল্যান্স অ্যান্ড থ্রেট অ্যালার্ট রেডার) রয়েছে৷ ক্ষেপণাস্ত্রকে সাহায্য করে শত্রুপক্ষের বিমান বা ড্রোন চিহ্নিত করে দেবে এই বিমান৷ আকাশের যে কোনও বিপদসংকেতই এটি চিহ্নিত করে নিষ্ক্রিয় করতে সক্ষম৷ ৫০ থেকে ৭০ কিলোমিটারের লক্ষ্যবস্তুকেও আক্রমণ করতে সক্ষম এই মাঝারি পাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র৷ প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিক্কর জানিয়েছেন, এই প্রথম দেশব্যাপী প্রতিরক্ষা সংযোগ ব্যবস্থা চালু হচ্ছে, যাতে একটিমাত্র নেটওয়ার্কের মাধ্যমে সামরিক বাহিনী, বায়ুসেনা, নৌ-বাহিনী-সহ বিশেষ বিশেষ বাহিনীগুলি একযোগে কাজ করবে৷ অন্যদিকে, আজ ভারতীয় বায়ুসেনায় অন্তর্ভুক্ত হল সুপারসনিক ফাইটার জেট ‘তেজস’৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement