BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শহরের তিন উড়ালপুলে রাতে নিষিদ্ধ বাইক: মমতা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 9, 2016 9:13 am|    Updated: July 9, 2016 1:59 pm

An Images

স্টাফ রিপোর্টার: বাইক রেস রুখতে রাত দশটার পর শহরের উড়ালপুলে বাইক চালানো নিষিদ্ধ হল৷ বেপরোয়া গাড়ি চালালেই চালকের বিরু‌দ্ধে নেওয়া হবে আরও কড়া ব্যবস্থা৷ রাজ্যে দুর্ঘটনা বন্ধ করতে একগুচ্ছ দাওয়াই দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷
শুক্রবার পরিবহণ দফতরের উদ্যোগে ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ প্রকল্পের উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ নজরুল মঞ্চে এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পরিবহণ মন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারী৷ ছিলেন কলকাতা ও রাজ্য পুলিশের শীর্ষকর্তারা৷ প্রকল্পের উদ্বোধন করে রাতের শহরে উড়ালপুলের উপর বাইক রেস নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তিনি জানান, রাত দশটার পর হেলমেট না পরে উড়ালপুলের উপর চলে বাইক চালানোর প্রতিযোগিতা৷ এদের জন্য উড়ালপুলে বারবার দুর্ঘটনা ঘটেছে৷ মা ফ্লাইওভার ও এজেসি বোস রোডের ফ্লাইওভারের উদাহরণ টেনে মুখ্যমন্ত্রী জানান, এই উড়ালপুলগুলিতে বাইকের রেস হচ্ছে৷ এসব কোনওভাবেই বরদাস্ত করা হবে না বলে স্পষ্ট জানিয়ে দেন মুখ্যমন্ত্রী৷ তাঁর নির্দেশে রাত দশটার পর শহরের উড়ালপুলে বাইক চালানো যাবে না৷ প্রয়োজনে বাইক আরোহীরা উড়ালপুলের তলা দিয়েই যাতায়াত করবেন৷ ডিসি (ট্রাফিক) ভি সলোমন নিসাকুমার জানান, মা, এজেসি বোস রোড ও পার্ক স্ট্রিট ফ্লাইওভারের ক্ষেত্রে রাত দশটা থেকে সকাল ৬ টা পর্যন্ত বাইক চালানো নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷ তবে পরিবার নিয়ে বাইক আরোহীরা গেলে অথবা বাইক রেসের সম্ভাবনা না থাকলে সেই ক্ষেত্রে পুলিশ ছাড় দিতেও পারে৷ মুখ্যমন্ত্রী বলেন, যে ট্রাফিক পুলিশ সারা বছর রোদে-জলে দাঁড়িয়ে কাজ করে, তাদের ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ তাঁদের পরোয়া না করে কেউ মেরে দিয়ে বেরিয়ে যাবে, তা বরদাস্ত করা হবে না৷ তাকে কঠোর থেকে কঠোরতম শাস্তি পেতে হবে৷ মুখ্যমন্ত্রী স্পষ্টই বলেন, “পুলিশকে ভয় পাবে না, এ হতে পারে না৷ রাজ্যে আইন থাকবে না তা হতে পারে না৷ সে দুর্ঘটনার ক্ষেত্রেই হোক বা বোমাবাজি অথবা উগ্রপন্থার ক্ষেত্রে৷ তাড়াহুড়ো সবারই থাকে৷ কিন্তু তা বলে পুলিশকে মেরে কেউ বেরিয়ে যাবে, তা হবে না৷”
অনুষ্ঠানে শুভেন্দু অধিকারী জানান, অনেক রাজ্যে হেলমেট না থাকলে পেট্রোল পাম্প থেকে বাইক আরোহীদের তেল দেওয়া হয় না৷ পরিবহণমন্ত্রীর পরামর্শ অনুযায়ী, সঙ্গে হেলমেট না থাকলে পাম্প থেকে বাইক আরোহীদের তেল দেওয়া নিষিদ্ধ করল কলকাতা পুলিশ৷ দুর্ঘটনাপ্রবণ এলাকায় ব্রেথ অ্যানালাইজার ও স্পিড ব্রেকার নিয়েও পুলিশ তৈরি রয়েছে৷ এদিকে, এজেসি রোড ফ্লাইওভারে কাজের জন্য রাতে একটি অংশে যান চলাচল বন্ধ করেছে পুলিশ৷
রাজ্যের স্কুল ও কলেজে ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’ পাঠ্যক্রমে অন্তর্ভুক্ত করতে বলেন মুখ্যমন্ত্রী৷ এই প্রকল্পকে কেন্দ্র করে একটি ফান্ডও তৈরির নির্দেশ দেন তিনি৷ তাঁর নির্দেশেই এই প্রকল্পের থিম সং তৈরি হয়েছে৷ আড়াই লক্ষ ছাত্র, দেড় লক্ষ গাড়ির চালক, দু’শো জন পুলিশকর্মীকে নিয়ে শুরু হচ্ছে ‘জাগো কলকাতা’-র প্রশিক্ষণ শিবির৷ প্রত্যেকটি ট্রাফিক সিগন্যালে বাজানো হবে ওই প্রকল্পের থিম সং৷ বিশ্ববাংলার মতো ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইফ’-এর পোস্টারও থাকবে রাজ্যজুড়ে৷ যেহেতু কলকাতা পুলিশ ও রাজ্য পুলিশ একই ‘পরিবারে’র অন্তর্ভুক্ত, তাই একই পোস্টার তৈরি হবে৷ অন্য রাজ্যের গাড়ি এই রাজ্যে চালালে তার জন্য রেজিস্ট্রেশন ফি নেওয়া হবে৷ এই নথি তৈরি থাকলে ভিনরাজ্য থেকে গাড়ি নিয়ে এসে অপরাধের প্রবণতাও কমবে৷ ‘সেফ ড্রাইভ সেভ লাইভ’ আসলে একটি আন্দোলন৷ তাই আগস্ট মাসে দুর্ঘটনা কমানোর জন্য শহরে হাঁটবেন বিশিষ্ট ব্যক্তিরা৷ গান গাইবেন লোকসংস্কৃতি শিল্পীরা৷ পুজো মণ্ডপেও যাতে থিম সং বাজে, তার জন্য অনুরোধ জানানো হবে পুজো উদ্যোক্তাদেরও৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement