BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

নাম বদলে নারাজ ‘ক্যালকাটা’ হাই কোর্ট!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 20, 2016 10:16 am|    Updated: July 20, 2016 10:18 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: নাম অটুট রেখে ‘ক্যালকাটা’ হাই কোর্টের ঐতিহ্য-ইতিহাস বজায় রাখার পক্ষে রায় দিয়েছিলেন বিচারপতিরা৷ তাঁদের সেই মনোভাব জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল কেন্দ্রীয় আইন মন্ত্রককেও৷ তার পরেও মঙ্গলবার লোকসভায় নাম বদল চেয়ে বিল পেশ করা হল৷ তা গৃহীত হলে ক্যালকাটা-সহ বম্বে ও মাদ্রাজ হাই কোর্টের নামও বদলে যাবে৷

যে শহরে হাই কোর্ট অবস্থিত, নামটিও সেই অনুযায়ী হবে৷ সেই যুক্তিতেই হাই কোর্টের নাম বদলের জন্য চলতি মাসের গোড়ায় প্রস্তাব গ্রহণ করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা৷ তার পরেই শুরু হয় বিতর্ক৷ বিশেষত, দেশের প্রথম হাই কোর্টের ঐতিহ্য রক্ষায় তাঁরা নাম বদলে রাজি নন বলে ক্যালকাটা হাই কোর্টের বিচারপতিরা সিদ্ধান্ত নেন৷ কয়েকদিন আগে ফুল বেঞ্চের বৈঠক বসে৷ সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত হয়৷ এমনকী, বার কাউন্সিল থেকে শুরু করে আইনজীবীদের সংগঠন, সবাই এ ব্যাপারে একমত৷ তাছাড়া, চলতি মাসের গোড়ায় মন্ত্রিসভার বৈঠকে শুধু বম্বে ও মাদ্রাজ হাই কোর্টের কথা প্রস্তাবে রাখা হয়েছিল৷ ১৮৬২ সালের ১ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে ক্যালকাটা হাই কোর্টের পত্তন হয়েছিল৷

দেশের কোনও রাজ্য বা শহরের নাম বদলের অধিকার রয়েছে কেন্দ্রের৷ সেই মর্মে ২০০১ সালে ক্যালকাটা নাম বদলে কলকাতা করা হয়েছিল৷ অনেক প্রতিষ্ঠান তারপর নাম বদলে কলকাতা ব্যবহার করা শুরু করেছে৷ যেমন পুরসভা, যেমন সিএমডিএ৷ আবার অনেক প্রতিষ্ঠান যেমন বিশ্ববিদ্যালয়, সরকারি পরিবহণ সংস্থাগুলি নাম বদলে কোনও পদক্ষেপই করেনি৷

কিন্তু তার পরেও মঙ্গলবার নাম পরিবর্তন চেয়ে লোকসভায় বিল পেশ করেন কেন্দ্রীয় আইনমন্ত্রী রবিশংকর প্রসাদ৷ ‘হাই কোর্ট (অল্টারনেশন অফ নেমস) বিল’ পাস হয়ে গেলে ক্যালকাটা, বম্বে ও মাদ্রাজ হাই কোর্টের নাম পাল্টে যথাক্রমে কলকাতা, মুম্বই ও চেন্নাই হয়ে যাবে৷ বিলে বলা হয়েছে, “যে শহরে হাই কোর্টগুলি অবস্থিত, তার নামেই নামকরণ করা হয়েছিল৷ সেই শহরগুলির নাম বদলে গিয়েছে৷ তাই হাই কোর্টের নামও পরিবর্তন করার দাবি উঠেছে৷ রাজ্য সরকারগুলির অনুরোধ মেনে তাই হাই কোর্টের নাম পরিবর্তনও যুক্তিসংগত৷ সংশ্লিষ্ট রাজ্যের মানুষের আবেগও এর ফলে গুরুত্ব পাবে৷” বাস্তবে নাম পরিবর্তনের এই প্রস্তাব শুধু তামিলনাড়ু ও মহারাষ্ট্র সরকার মেনে নিয়েছে৷

এর আগে নরেন্দ্র মোদি সরকার পরিকল্পনা করেছিল যে, হাই কোর্টের নাম বদলের ক্ষমতা রাষ্ট্রপতির হাতে ন্যস্ত থাকবে৷ তিনি সংশ্লিষ্ট রাজ্যের রাজ্যপাল, মুখ্যমন্ত্রী ও প্রধান বিচাপতির সঙ্গে পরামর্শ করে সিদ্ধান্ত নেবেন৷ কিন্তু পরে সেই পরিকল্পনা বাতিল করা হয়৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement