BREAKING NEWS

১৭  আষাঢ়  ১৪২৯  সোমবার ৪ জুলাই ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

সিঙ্গুরের ৮০ শতাংশ জমি এখন চাষযোগ্য

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 17, 2016 8:50 am|    Updated: June 23, 2022 6:46 pm

CM Mamata Banerjee will take ultimate decision on Singur today

নিজস্ব সংবাদদাতা, হুগলি: প্রস্তুত সিঙ্গুর!  ৮০ শতাংশ জমি চাষযোগ্য করার  কাজ শেষ৷ ৯০ শতাংশ মানুষকে জমির চেক ও পরচা দেওয়া হয়েছে৷ মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নির্দেশ দিলেই জমি হস্তান্তরের প্রক্রিয়া শুরু হবে৷ রবিবার সিঙ্গুর গিয়ে এমনটাই জানালেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ পুজোর ছুটির পর আজ নবান্ন খুলছে৷ আজই মুখ্যমন্ত্রী সিঙ্গুরের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করবেন৷ তার পরই প্রয়োজনীয় নির্দেশ দেবেন তিনি৷

প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে, কংক্রিটের ঢালাই ও পিলার সরিয়ে জমিকে আগের অবস্থায় ফিরিয়ে আনার কাজ প্রায় সম্পূর্ণ৷ কম ক্ষমতাসম্পন্ন ডিনামাইট ফাটিয়ে কংক্রিটের চাঙড় ভাঙা হয়েছে৷ কংক্রিটের চাঙড় ও লোহার বিম তুলে মাটি ফেলে সিঙ্গুরের জমিকে চাষযোগ্য করে তোলা হচ্ছে৷ ২১ অক্টোবরের আগেই যাতে সিঙ্গুরের জমি কৃষকদের ফেরত দেওয়া যায়, তা খতিয়ে দেখতে এদিন সিঙ্গুর যান পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন করে জেলা প্রশাসনের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি৷ পার্থবাবু বলেন, “মুখ্যমন্ত্রী ২১ অক্টোবরের মধ্যে জমি ফেরত দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন৷ কিন্তু তার আগেই যাতে  জমি ফেরত দেওয়া যায় তা-ও দেখতে বলেছিলেন৷ সেইমতো দেখা গিয়েছে, ৮০ শতাংশ জমি চাষযোগ্য করার কাজ শেষ৷ সোমবার মুখ্যমন্ত্রীকে এ বিষয়ে একটি রিপোর্ট দেব৷”

প্রশাসন সূত্রে খবর, নবান্নে আজকের বৈঠক অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ সিঙ্গুরের জমি চাষযোগ্য করার কাজ কী অবস্থায় রয়েছে, তার বিস্তারিত রিপোর্ট নেবেন তিনি৷ প্রশাসনের আধিকারিকদের কাছ থেকে জানা গিয়েছে, মুখ্যমন্ত্রী চাইছেন দ্রুততার সঙ্গে কাজ করে জমি চাষযোগ্য অবস্থায় কৃষকদের হাতে তুলে দিতে৷ পুজোর ছুটির মধ্যে দিনরাত কাজ হয়েছে সিঙ্গুরে৷ গত ১৪ সেপ্টেম্বর সিঙ্গুর দিবসে মুখ্যমন্ত্রীর হাত দিয়ে জমির চেক ও পরচা পেয়েছেন সিঙ্গুরের মানুষ৷ তার পর থেকে ধারাবাহিকভাবে ক্যাম্প করে চেক ও পরচা দেওয়ার কাজ হয়েছে৷ ৯০ শতাংশ মানুষের হাতে তা ইতিমধ্যে পৌঁছেও গিয়েছে৷ ভুল তথ্য দিয়ে আগে যাঁরা চেক নিয়েছিলেন, তার তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন পার্থবাবু৷

জমি ফেরত পাওয়ার আনন্দে মাতোয়ারা বাজেমেলিয়া, গোপালনগর, খাসেরভেড়ি, বেড়াবেড়ির মানুষজন৷ ১০ বছর পর এবার বড় আকারে দুর্গাপুজো হয়েছে৷ লক্ষ্মীপুজো হয়েছে বেশ ঘটা করে৷ রবিবার গ্রামের মানুষজন একসঙ্গে খিচুড়িভোগ রান্না করে খাওয়াদাওয়া করেছেন৷ তাঁরা বলছেন, এখন উৎসবের দিন, আনন্দের দিন৷ মুখ্যমন্ত্রীর হাত ধরেই আমরা আমাদের অধিকার ফিরে পেয়েছি৷ পার্থবাবুও রবিবার সিঙ্গুরবাসীর সঙ্গে উৎসবে শামিল হন৷ সঙ্গে ছিলেন মন্ত্রী তপন দাশগুপ্ত, অসীমা পাত্র  ও  উত্তরপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান দিলীপ যাদব৷

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে