BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দীপার মদতেই কংগ্রেস কাউন্সিলররা তৃণমূলে!

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 30, 2016 12:04 pm|    Updated: July 30, 2016 12:04 pm

An Images

নিজস্ব সংবাদদাতা: ‘আপনার মদতেই কংগ্রেস কাউন্সিলররা তৃণমূলে গিয়েছেন৷’ নিজের খাসতালুক কালিয়াগঞ্জে দলীয় সভায় এসে এভাবেই কংগ্রেস কর্মীদের রোষের মুখে পড়তে হল প্রাক্তন সাংসদ দীপা দাশমুন্সিকে৷ ওই সভায় কালিয়াগঞ্জ পুরসভার চেয়ারম্যান অরুণ দে সরকার জানিয়ে দেন, তৃণমূলে যেতে চেয়ে তিনি ভুল করেছিলেন৷ কংগ্রেসেই থাকবেন তিনি৷

কংগ্রেসের হাত থেকে কালিয়াগঞ্জ পুরসভা তৃণমূলের দখলে আসা এখন স্রেফ সময়ের অপেক্ষা৷ ভাইস চেয়ারম্যান-সহ সাত কংগ্রেস কাউন্সিলর তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন৷ ইতিমধ্যেই চেয়ারম্যান অরুণ দে সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থার নোটিস জমা পড়েছে৷ ৩ আগস্ট ওই অনাস্থা প্রস্তাবের উপর ভোটাভুটি হবে৷ তারপরই আনুষ্ঠানিকভাবে পুরসভাটি তৃণমূলের হাতে আসবে৷ এই পরিস্থিতিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় কর্মিসভায় কালিয়াগঞ্জে আসেন দীপা দাশমুন্সি৷ প্রায় দু’ঘণ্টা ধরে চলা এই সভায় তুমুল বিতণ্ডা হয়৷ কর্মীদের তোপের মুখে পড়তে হয় দীপাদেবীকে৷ দলীয় কর্মীদের একাংশ রায়গঞ্জের প্রাক্তন সাংসদের দিকে রীতিমতো আঙুল তুলে অভিযোগ করেন, সাত কংগ্রেস কাউন্সিলরের দল ছেড়ে তৃণমূলে যোগদানের পিছনে আপনার মদত রয়েছে৷ সঙ্গে সঙ্গে অবশ্য অভিযোগ অস্বীকার করে দীপাদেবী বলেন, “আমি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে ভোটে লড়েছি৷ এটা খেয়াল রাখবেন৷” পরে অবশ্য পরিস্থিতি শান্ত হয়৷

এদিন কালিয়াগঞ্জ পুরসভার ২২ বছরের চেয়ারম্যান অরুণ দে সরকারকে নিয়েও তুমুল বিতর্ক হয়৷ পুরসভা হাতছাড়া হচ্ছেই বুঝতে পেরে তৃণমূলে যোগ দিতে তৎপর হয়ে ওঠেন অরুণবাবু৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে মেল করেন তিনি৷ কিন্তু প্রত্যাশিত সাড়া না পেয়ে ফের ভোলবদল করেন৷ বৃহস্পতিবার দলীয় কর্মীদের কাছে ক্ষমা চেয়ে অরুণবাবু কবুল করেন যে, “তৃণমূলে যেতে চেয়ে ভুল করেছিলাম৷ আমি কংগ্রেসের সৈনিক হয়েই কাজ করব৷” তবে রাজনৈতিক মহলের ধারণা, তৃণমূল থেকে চেয়ারম্যান পদের কোনও আশ্বাস না পেয়েই কংগ্রেসে থেকে গেলেন অরুণবাবু৷ আবার কংগ্রেস কর্মীদের অভিযোগ, অরুণবাবু তাঁর জামাই কার্তিক পালকে ভাইস চেয়ারম্যান পদে না বসালে পুরসভা ভাঙত না৷
বৃহস্পতিবারের সভায় কালিয়াগঞ্জ পুরসভার সব ওয়ার্ড কমিটি ভেঙে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন দীপাদেবী৷ তৃণমূলের বিরুদ্ধে আন্দোলনে ঝাঁপিয়ে পড়ার নির্দেশ দেন তিনি৷ কংগ্রেস কাউন্সিলর ভাঙিয়ে তৃণমূলের পুরসভা দখলের বিরুদ্ধে ধিক্কার মিছিল বের করা হবে বলে জানান দীপা দাশমুন্সি৷ সভায় কংগ্রেসের বাকি চার কাউন্সিলরই হাজির ছিলেন৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement