৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মধুচক্রের প্রতিবাদ করায় বৃদ্ধকে কাটারির কোপ

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 17, 2016 9:18 am|    Updated: July 17, 2016 9:18 am

An Images

নিজস্ব সংবাদদাতা: বাড়িতে মধুচক্র চালানোর প্রতিবাদ করায় আত্মীয়ের হাতে প্রহৃত হলেন এক বৃদ্ধ৷ ঘটনাটি বর্ধমানের গুসকরা শহরে ৮ নম্বর ওয়ার্ড এলাকায়৷ অজিত মেটে (৬২) নামে ওই গৃহকর্তাকে রক্তাক্ত অবস্থায় শনিবার সকালে উদ্ধার করে গুসকরা ফাঁড়ির পুলিশ৷ গুসকরা প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্রে তাঁর চিকিৎসা করানো হয়৷

অজিতবাবুর অভিযোগ, বাড়িতে মধুচক্র চালানোর প্রতিবাদ করায় প্রথমে তাঁর মেয়ের সঙ্গে বচসা হয়৷ তখন মেয়ের দেওর গণেশ মণ্ডল কাটারি দিয়ে তাঁকে কোপাতে আসে৷ অল্পের জন্য বেঁচে গেলেও আঘাত লাগে নাকে ও চোখের নিচে৷ পুলিশ জানায়, ঘটনার পর অজিতবাবুর বাড়ি থেকে এক যুবক ও দুই যুবতীকে আটক করেছে৷ তাদের মধ্যে যুবকটির বাড়ি মঙ্গলকোট এলাকায়৷ যুবতী দু’জনের মধ্যে একজনের বাড়ি গুসকরা শহরেই৷ অপরজন গলসি থানা এলাকার বাসিন্দা৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গুসকরা পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড এলাকার বাসিন্দা অজিত মেটের বাড়িতে তিনি ছাড়া থাকেন তার মেয়ে, জামাই সুনীল মণ্ডল ও মেয়ের দেওর গণেশ মণ্ডল৷ প্রতিবেশীদের অভিযোগ, ওই বাড়িতে প্রায় প্রতিদিন বহিরাগত পুরুষ, মহিলাদের আনাগোনা ছিল৷ অজিতবাবুর মেয়ে জামাইদের প্রশ্রয়ে দেহব্যবসা চলত বলে অভিযোগ স্থানীয়দের৷ এদিন সকালে স্থানীয়দের কয়েকজন অজিতবাবুকে রক্তাক্ত অবস্থায় একটি ঘরে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেন৷ পুলিশ এসে অজিতবাবুকে উদ্ধার করে৷ তখন ঘরের ভিতর এক যুবককে পেয়ে তাকে আটক করে পুলিশ৷ তবে পুলিশ আসার আগেই অজিতবাবুর মেয়ে, জামাই ও গণেশ পালিয়ে যায়৷ স্থানীয়রা আরও দুই যুবতীকে ঘরে লুকিয়ে থাকতে দেখেন৷ ওই দুই মহিলাকে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন তাঁরা৷

গুসকরা পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মল্লিকা চোংদার বলেন, “আমি সকালে শুনি অজিত মেটে নামে ওই ব্যক্তিকে দা দিয়ে কোপানো হয়েছে৷ আমি পুলিশের কাছে ফোন করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ করেছি৷” পুলিশ জানায় ঘটনার তদন্ত চলছে৷ তবে এখনও লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়নি৷ তিনজনকে আটক করা হয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement