BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রিও-র গেমস ভিলেজ নিয়ে ক্ষোভ ভারতের হকি কোচের

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 1, 2016 7:02 pm|    Updated: August 1, 2016 7:15 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: রিও-র গেমস ভিলেজ নিয়ে এবার ব্যাপক ক্ষোভ প্রকাশ করলেন ভারতীয় হকি দলের কোচ রোল্যান্ট ওল্টমান্স৷ গেমস ভিলেজে খেলোয়াড়দের থাকার ব্যবস্থা দেখে চটে লাল ওলন্দাজ কোচ৷ ওলিম্পিক শুরুর আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকদিন বাকি৷ তার আগেই গেমস ভিলেজে চূড়ান্ত অব্যবস্থা নিয়ে সরব ভারতীয় কোচ৷ ভারতীয় দলের শ্যেফ-দে-মিশন রাকেশ গুপ্তাকে একটি চিঠি মারফত তিনি তাঁর ক্ষোভের কথা জানিয়েছেন৷ পুরুষ এবং মহিলা, দুই হকি দলের জন্য বরাদ্দ ঘরগুলি আদৌ থাকার উপযুক্ত নয় বলে অভিযোগ তাঁর৷ তাঁর বক্তব্য, গেমস ভিলেজের ঘরগুলি তৈরি সম্পূর্ণ হয়নি৷ পর্যাপ্ত চেয়ার নেই, ঘরে টিভি নেই৷ সঠিক প্রস্তুতির জন্য সমস্ত অ্যাথলিটদের প্রয়োজন পর্যাপ্ত চেয়ার, টেবিল৷ এক একটি আবাসনে ছ’জন করে থাকতে পারে৷ কিন্তু প্রত্যেক আবাসনে মাত্র দু’টি করে চেয়ার দেওয়া হয়েছে৷ পুরুষ ও মহিলা দলের জন্য বরাদ্দ ন’টি আবাসনে ২৮টি চেয়ার ও অন্তত একটি টেবিল থাকার কথা৷ নিজেদের উদ্যোগে কর্তাদের আবাসনে কিছু টেবিলের ব্যবস্থা করেছেন ভারতীয়রা৷

India-hockey-team_wb
গেমস ভিলেজে ভারতীয় হকি দলের সঙ্গে শুটাররা

একইসঙ্গে ওল্টমান্স আরও জানিয়েছেন, “ওলিম্পিক চলাকালীন টিভিতে প্রতিপক্ষের খেলা দেখার জন্য টিভির বন্দোবস্ত রাখা উচিত৷ কিন্তু এখানে সেই ব্যবস্থাটুকুও নেই৷”তাই তিনি নিজেই রাকেশ গুপ্তাকে চিঠিতে টিভি কেনার জন্য অনুমতি চেয়েছেন৷ মোট তিনটি টিভি কেনার জন্য তিনি অনুমতি চেয়েছেন৷ কোচিং স্টাফ, পুরুষ ও মহিলা দলের আবাসনের জন্য মোট তিনটি টিভি কেনার অনুমতি চেয়েছেন তিনি৷ ভারতীয় হকি দলের ভাল পারফরম্যান্সের জন্য আবশ্যকটুকু দেওয়ার কথাই বলেছেন ওল্টমান্স তাঁর চিঠিতে৷ অন্যদিকে, রিও ওলিম্পিকে নামার আগেই বিশ্বের পাঁচ নম্বর দল ভারত এগারো নম্বর দল স্পেনের কাছে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে হারল ২-৩ গোলে৷ প্রথম ম্যাচে তারা হেরেছিল ১-৪ গোলে৷ ভারতীয় হকি দল মাদ্রিদের প্রস্তুতি সিরিজের দুটি ম্যাচই হারলেন ওল্টমান্সের ছেলেরা৷

পাশাপাশি, ভারতীয় অ্যাথলিটদের ওলিম্পিক সফরের ম্যানেজার রাকেশ গুপ্তা হাজারো সমস্যার কথা বলছিলেন৷ রিওতে পৌঁছনোর পর থেকে এখনও পর্যন্ত একের পর এক সমস্যায় জর্জরিত হতে হচ্ছে ভারতীয় অ্যাথলিটদের৷ শেফ দ্য মিশন প্রোগ্রামের ম্যানেজার রাকেশ বলছিলেন, “এখানে আসার পর থেকে সব থেকে বেশি সমস্যায় পড়তে হয়েছে মালপত্র ঠিক জায়গায় পৌঁছনো নিয়ে৷ ওলিম্পিকের জন্য এখানে স্কুল ও কলেজ থেকে প্রচুর স্বেচ্ছাসেবককে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে৷ নিয়ম অনুযায়ী ওরা ১ আগস্ট থেকে কাজে লাগবে৷ কিন্তু আমরা আগেই চলে এসেছি৷ ফলে স্বেচ্ছাসেবকদের সংখ্যাটা খুবই কম৷ তা ছাড়া প্রতিবারই ভাষা নিয়ে একটা সমস্যা হয়৷ এবার সেটা বড় আকারে দেখা দিয়েছে৷ আসলে ড্রাইভার থেকে শুরু করে ভিলেজের ভিতরের মালি, কাউকেই নিজেদের কথা বোঝাতে পারছি না৷ আমাদের দলে পর্তুগিজ জানা কেউ তেমন নেই৷ তবে আমরা ওলিম্পিক আয়োজকদের কাছে মেল পাঠিয়েছি, যাতে ইংরেজি বলতে ও বুঝতে পারা স্বেচ্ছাসেবকের ব্যবস্থা করা হয়৷”

রিও-র সমুদ্র সৈকতের অবস্থা দেখে মাথায় হাত সংগঠকদের
রিও-র সমুদ্র সৈকতের অবস্থা দেখে মাথায় হাত সংগঠকদের

এমনিতে গেমস ভিলেজে সারা বিশ্বের অ্যাথলিটদের জন্য তাদের নির্দিষ্ট খাবারের ব্যবস্থা করা হয়৷ কিন্তু দক্ষিণ আমেরিকায় ভারতীয় খাবার পাওয়া যাবে কি না তা নিয়ে ভারতীয় দলের প্রত্যেকে আশঙ্কা করেছিলেন৷ সেই সমস্যা আপাতত মিটেছে৷ রাকেশই ভারতীয় অ্যাথলিটদের জন্য আয়োজকদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন৷ তিনি বলছেন, “এখনও পর্যন্ত আমরা ভারতীয় খাবার পাইনি৷ তবে আয়োজকদের থেকে আশ্বস্ত করা হয়েছে, নিরামিষ খাবার আমাদের জন্য আয়োজন করা হবে৷ খাবারের তালিকায় ডাল, আলুর সবজি ইত্যাদি থাকবে৷ আশা করছি, এই সমস্যা দ্রূত মিটে যাবে৷” গেমস ভিলেজ থেকে প্র্যাকটিস সেণ্টারে যেতে গাড়ি নিয়েও সমস্যা হচ্ছে৷ এই নিয়েও কথা বলছিলেন রাকেশ৷

এভাবেই দুষিত হচ্ছে রিও-র জল
এভাবেই দুষিত হচ্ছে রিও-র জল

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement