BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  সোমবার ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

স্বাধীনতা দিবসে সীমান্তে হামলার শঙ্কা

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: August 13, 2016 9:05 am|    Updated: August 13, 2016 9:05 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত ও পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানের সময় ভারত-পাক সীমান্তে ভয়াবহ আত্মঘাতী হামলা চালানোর ছক কষছে তালিবান৷ এই মর্মে সতর্কবার্তা জারি করল পাকিস্তানের সন্ত্রাস দমনকারী জাতীয় কর্তৃপক্ষ (ন্যাকটা)৷ এক জরুরি বিজ্ঞপ্তি জারি করে পাকিস্তানের ন্যাশনাল কাউন্টার টেররিজম অথরিটি জানিয়েছে, গোয়েন্দা সূত্রে নিশ্চিত খবর মিলেছে, ভারতের স্বাধীনতা দিবস ১৫ আগস্ট, পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবস ১৪ আগস্ট ও তার আগের দিন ১৩ আগস্ট যে কোনও সময় ওয়াঘা সীমান্তের যে কোনও জায়গায় হামলা চালাবে আত্মঘাতী তালিবান জঙ্গি৷ হামলা হতে পারে কাসুর এলাকায় গান্দা সিং বর্ডারেও৷ হামলা চালানোর জন্য দুই তালিবান ফিদায়েঁ (আত্মঘাতী জঙ্গি) পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে ঢোকার চেষ্টা করছে৷ উত্তর-পশ্চিম পাকিস্তানের ডের গাজি খান ও ওয়াজিরিস্তান থেকে অ্যাসাইনমেন্ট নিয়ে এরা রওনা হয়েছে৷ এদের সঙ্গে রয়েছে বিস্ফোরক ও বন্দুক৷ পাকিস্তানের শরিয়তি শাসন ও তালিবান-রাজ কায়েম করার জন্যই এরা পাক সেনা ও জনতার উপর হামলা চালাবে৷ এজন্য পাকিস্তানের স্বাধীনতা দিবসের সপ্তাহটিকেই বেছে নেওয়া হয়েছে৷ তাই পাক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশে সীমান্তে প্রহরারত পাকিস্তান রেঞ্জার্সের প্রতিটি জওয়ান ও পাঞ্জাব পুলিশের কর্মীদের নিশিছদ্র নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে বলা হয়েছে৷ একইসঙ্গে পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে জঙ্গি হামলার শঙ্কায় ক্ষয়ক্ষতি ও প্রাণহানি এড়াতে খোলা আকাশের নিচে বা কোনও ভবনের বাইরে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠান উদযাপন বা পালন করা যাবে না বলে স্পষ্ট সরকারি নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷
পাকিস্তানের সরকারি সতর্কবার্তায় হুঁশিয়ারি, স্বাধীনতা দিবসের দিন ও তারপরে যে কোনও সময় হামলা করতে পারে তালিবানের ফজলুল্লা গোষ্ঠী জঙ্গিরা৷ অন্যদিকে, পাঞ্জাব প্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক জানিয়েছে, ১৬ জন আত্মঘাতী জঙ্গি পাঞ্জাব প্রদেশে ঢুকে পড়েছে৷ স্বাধীনতা দিবসের সময় কোনও অনুষ্ঠানে ভিড় বা যে কোনও জমায়েত লক্ষ্য করেই এরা বিস্ফোরণ ঘটাবে৷ তাই রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে৷ সেনা, পুলিশ, আধা সেনা ও গোয়েন্দাদের চূড়ান্ত সতর্ক করা হয়েছে৷ লাহোর পুলিশের মুখপাত্র নিয়াব হায়দর বলছেন, সতর্কবার্তা পাওয়ার পরই গোয়েন্দা সূত্রে পাওয়া নির্দিষ্ট খবরের ভিত্তিতে বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে ৫০ জন সন্দেহভাজন কট্টরপন্থীকে আটক করেছে পুলিশ৷ শহরের নিরাপত্তা ও নজরদারি আরও মজবুত ও আঁটসাঁট করা হয়েছে৷ একইসঙ্গে ভারত, ইরান ও আফগানিস্তান সীমান্তে অনেক বেশি সংখ্যায় পাকিস্তান রেঞ্জার্স ও পাক পাঞ্জাবের শহরগুলিতে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে৷ রাতে ও দিনে টহলদারি বাড়ানো হয়েছে৷ কয়েকদিন আগে কোয়েটায় শক্তিশালী বিস্ফোরণে ৭৫ জন নিহত হওয়ার পর দুশ্চিন্তা আরও বেড়েছে পাক সরকারের৷ লাহোরের পুলিশ প্রধান আমিন ওয়েনস জানিয়েছেন, লাহোর, কাসুর ও ওয়াঘায় তালিবানি হামলার হুমকি রয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement