BREAKING NEWS

১৪ আশ্বিন  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ১ অক্টোবর ২০২০ 

Advertisement

ত্রিপুরায় ৬০ আসনেই লড়বে তৃণমূল: মুকুল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 1, 2016 9:59 am|    Updated: July 1, 2016 9:59 am

An Images

প্রণব সরকার: ত্রিপুরার সবক’টি অর্থাত্‍ ৬০টি বিধানসভা আসনেই লড়াই করবে তৃণমূল কংগ্রেস৷ বৃহস্পতিবার আগরতলায় এক জনসভায় এই কথা বলেছেন তৃণমূল কংগ্রেসের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায়৷
পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচনের পর তৃণমূল কংগ্রেস ত্রিপুরাতেও পরিবর্তন ঘটানোর লক্ষ্যে নেমেছে৷ সম্প্রতি কংগ্রেসের ছয় বিধায়ক দল ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন৷ দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে ৯ আগস্ট ত্রিপুরায় আসছেন৷ তার আগে এদিন রাজধানী আগরতলায় এক জনসভায় মুকুল রায় বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বেই এ রাজ্যে বিধানসভা ভোটে লড়বে তৃণমূল কংগ্রেস৷ রাজ্যের সবক’টি আসনেই প্রার্থী দেবে দল৷ ধরে নিন, রাজ্যের ৬০ আসনে মমতাই প্রার্থী৷ ত্রিপুরা থেকে সিপিএমকে উৎখাত করতে সর্বশক্তি নিয়োগ করা হবে৷”
মুকুল দিন মমতাকে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর সঙ্গে তুলনা করে তাঁকে ‘আপসহীন নেত্রী’ বলে উল্লেখ করেন৷ ৯ আগস্ট দলনেত্রী প্রথমে আগরতলায়, তার পর উদয়পুর ও ধর্মনগরে সভা করবেন বলে মুকুল জানান৷ ত্রিপুরা তৃণমূল কংগ্রেসের চেয়ারম্যান রতন চক্রবর্তী, প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা সুদীপ রায়বর্মন প্রমুখ এদিনের জনসভায় ভাষণ দেন৷ মুকুল বলেন, জাতীয় দলের মর্যাদা হারিয়েছে সিপিএম৷ দ্বিচারিতার কারণে ত্রিপুরা থেকেও মুছে যাবে সিপিএম৷ ত্রিপুরাতেও উন্নয়ন করে দেখাবেন মমতা৷ রাজ্যের বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী তথা সিপিএম নেতা মানিক সরকারকে কৌশলী নেতা বলে উল্লেখ করে বলেন, “উনি কলকাতায় গিয়ে এক কথা বলেন, আর আগরতলায় এসে বলেন সিপিএম ছাগলের তৃতীয় সন্তান৷ ত্রিপুরায় সর্বত্র নৈরাজ্য চলছে৷ দুর্নীতিতে ছেয়ে গিয়েছে রাজ্য৷ উন্নয়নের কোনও চিহ্ন নেই৷” মানিকের কথার জবাব কৌশলেই দেওয়ার কথা বলেন তিনি৷ দলের ছয় বিধায়ককে পাশে বসিয়ে দলনেত্রীর জনসভাকে ‘ঐতিহাসিক’ সভায় পরিণত করার আহ্বানও জানান৷ তৃণমূলের সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি এদিন আগরতলায় দলের প্রধান কার্যালয়ের উদ্বোধন করেন৷ দলকে চাঙ্গা করতে স্টিয়ারিং কমিটি গঠনের কথা বলেন৷ দলীয় নেতাদের সঙ্গে এক বৈঠকের পর ইফতার পার্টিতেও যোগ দেন তিনি৷ মুকুলের সঙ্গে এদিন ছিলেন সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়, শাকিল আহমেদ প্রমুখ৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement