BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

জাকির বিতর্কে জড়ানোয় ইদ্রিশকে সতর্ক করল তৃণমূল

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: July 11, 2016 7:58 pm|    Updated: July 11, 2016 7:58 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিতর্কিত ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েককে নিয়ে মুখ খুলে বিপাকে তৃণমূল সাংসদ ইদ্রিশ আলি৷ দলকে না জানিয়ে বিবৃতি দেওয়ার জন্য ইদ্রিশ আলিকে সতর্ক করা হয়েছে বলে খবর দলীয় সূত্রে। তৃণমূলের মুখ্য জাতীয় মুখপাত্র ডেরেক ও’ব্রায়েন সোমবার বিবৃতি দিয়ে জানিয়েছেন, “যে বিষয়ে উনি (ইদ্রিশ) বিবৃতি দিয়েছেন সেটি খুবই স্পর্শকাতর। এই বিষয়ে দলে কোনও আলোচনা হয়নি। বিস্তারিত আলোচনার পরই দল এই বিষয়ে অবস্থান নেবে। জাকির নায়েককে নিয়ে সাংসদ ইদ্রিশ আলি মন্তব্য করেছিলেন, “জাকির নায়েক এমন কিছু বলেননি যে তাঁকে নিষিদ্ধ করা হবে!” তাঁর এই মন্তব্যের পর দল ইদ্রিশকে সতর্ক করল৷

বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমের দাবি, জাকির নায়েকের বক্তব্য শুনেই অনুপ্রাণিত হয়েছিল ঢাকার গুলশানে হামলাকারী পাঁচ সন্ত্রাসবাদীর মধ্যে অন্যতম রোহন ইমতিয়াজ৷ অভিযোগ, পিস টিভির অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করার সময় জাকির বলছেন, “সব মুসলিমেরই উচিত সন্ত্রাসবাদী হয়ে ওঠা৷” ঢাকা পুলিশ দাবি করে, দীর্ঘদিন ধরেই ইসলাম ধর্মকথা প্রচারকারী পিস টিভি-র অনুষ্ঠানে প্ররোচনামূলক বক্তব্য পেশ করেছেন জাকির৷

বিদ্বেষ ছড়ানো ও জঙ্গিদের অনুপ্রাণিত করার অভিযোগের পাশাপাশি সরাসরি সন্ত্রাসবাদীদের সঙ্গে প্রত্যক্ষ যোগাযোগের অভিযোগও ওঠে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে৷ মুম্বই হামলার মূল ষড়যন্ত্রী জামাত-উদ-দাওয়ার প্রধান হাফিজ সঈদের ঘনিষ্ঠ জাকিরকে চাপে ফেলতে পিস টিভি-র সম্প্রচার বন্ধ করে দিচ্ছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ ওই চ্যানেলেই জাকির ধর্মপ্রচার করেন, নানা বক্তৃতা দেন৷ চ্যানেলটি ভারতে নিষিদ্ধ হলেও কয়েকটি কেবল নেটওয়ার্কে সেটি দেখা যেত৷ লাইসেন্সহীন ওই সমস্ত চ্যানেল সম্প্রচার বন্ধ করতে কেবল অপারেটরদের জন্য নির্দেশিকা জারি করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক৷ অনুমোদনহীন টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে নির্দেশিকাও পাঠিয়েছে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রক৷ সব রাজ্যের মুখ্যসচিবের কাছে সরাসরি চিঠি পাঠিয়ে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক সাফ জানিয়ে দিয়েছে, যে সব চ্যানেলের ভারতে ডাউনলিঙ্কের অনুমোদন নেই কেবল অপারেটররা যাতে সেইসব চ্যানেল সম্প্রচার না করে তা নিশ্চিত করতে হবে রাজ্য সরকারকে৷ স্থানীয় স্তরে অনুমোদনহীন চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করতে রাজ্য সরকারেরই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে৷

ঢাকায় জঙ্গি হামলার পরই ভারতীয় ইসলাম প্রচারক জাকির নায়েকের ভূমিকা নিয়ে সরকারিভাবে অভিযোগ জানায় বাংলাদেশ৷ রবিবার জাকির নায়েক ও পিস টিভির সম্প্রচার নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ৷ নতুন নির্দেশিকা সম্পর্কে বেঙ্কাইয়া এক প্রশ্নের উত্তরে জানিয়েছেন, একটি টেলিভিশন চ্যানেলের লাইসেন্সের জন্য আবেদন করেছিলেন জাকির নায়েক৷ সেই সময় তাঁর আবেদন খারিজ করে দেওয়া হয়৷ এখন জানা যাচ্ছে, কোনও নিয়মের তোয়াক্কা না করেই ঘুরপথে তাঁর বক্তৃতার ভিডিও ডাউনলিঙ্ক করে সম্প্রচার করা হচ্ছে৷ ভারতে পিস টিভির সম্প্রচারের কোনও সরকারি অনুমোদন ছিল না৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও দিনের পর দিন একাধিক কেবল অপারেটর পিস টিভি দেখিয়ে গিয়েছে৷ এবার রাজ্যের মুখ্যসচিবদের কাছে পাঠানো নির্দেশিকায় কেবল অপারেটরদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement