BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

চিন থেকেই শুরু ফিরে আসার লড়াই, করোনাকে হারিয়ে জীবনযুদ্ধে জয়ী শতায়ু বৃদ্ধ

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: March 9, 2020 9:14 am|    Updated: March 12, 2020 1:04 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা ভাইরাসের আতঙ্কে জবুথবু গোটা বিশ্ব। চিনের পাশাপাশি ভয়াবহ পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে ইটালিতেও। এখনও পর্যন্ত বিশ্বের প্রায় ১০০টি দেশে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার খবর পাওয়া গিয়েছে। এখনও পর্যন্ত করোনায় যত মানুষের মৃত্যু হয়েছে তার সংখ্যা দেখে একেই বর্তমান বিশ্বের সবথেকে বড় মহামারি (Pestilence) বলে উল্লেখ করছেন বিশেষজ্ঞরা। মৃত্যুর এই মিছিলেরই মধ্যে শোনা গেল এবার জীবনের জয়গান। করোনার করাল গ্রাসের নাগাল থেকে ফিরে এলেন ১০০ বছরের এক বৃদ্ধ। অভূতপূর্ব এই ঘটনাটি ঘটেছে আবার করোনা ভাইরাসের আঁতুড়ঘর চিনের হুবেই প্রদেশের ইউহান শহরেই।

চিনের সংবাদমাধ্যম সূত্রে জানা গিয়েছে, গত মাসেই পরিবারের লোকদের নিয়ে নিজের ১০০ বছরের জন্মদিন পালন করেছিলেন ইউহানের ওই বাসিন্দা। তারই আচমকা অসুস্থ হয়ে পড়েন। শারীরিক পরিস্থিতির ক্রমশ অবনতি হওয়ায় গত ২৪ ফেব্রুয়ারি পরিবারের লোকেরা তাঁকে হুবেই মেটারনিটি অ্যান্ড চাইল্ড হেলথ কেয়ার হাসপাতালে ভরতি করেন। পরীক্ষা করার পর তাঁর শরীরে করোনা ভাইরাসের হদিশ মেলে। পাশাপাশি তাঁর আলজাইমার্স, হাইপার টেনশন ও হৃদযন্ত্রের সমস্যা আছে বলে জানা যায়। রোগ নির্ণয় হতেই সঙ্গে সঙ্গে চিকিৎসা শুরু করেন কর্তব্যরত ডাক্তাররা। সংক্রমণরোধী ওষুধ, কনভ্লাসেন্টস প্লাজমা থেরাপি ও প্রাচীন চিনা ওষুধ ব্যবহার করতে করতে অবশেষে সুস্থ হয়ে ওঠেন ওই বৃদ্ধ। গত শনিবার আরও ৮০ জন মানুষের সঙ্গে তাঁকে হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

[আরও পড়ুন: করোনার থাবায় মৃত্যু মিছিল অব্যাহত, ইটালিতে গৃহবন্দি দেশের জনসংখ্যার এক চতুর্থাংশ ]

 

পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে যখন করোনা আক্রান্তের সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে। চলছে মৃত্যু মিছিল। তখন ১০০ বছরের একজন মানুষের সেই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পরেও সুস্থ হয়ে ফিরে আসার কাহিনী সবাইকে অবাক করে দিয়েছে। বিষয়টির কথা শুনে বিস্মিত হয়ে পড়েছেন চিকিৎসকরাও। এর আগে এত বয়স্ক কোনও মানুষ করোন আক্রান্ত হওয়া সত্ত্বেও ফের সুস্থ হয়েছেন এমন নজির নেই বলেই জানিয়েছেন। তাই ওই ব্যক্তির জীবনে ফিরে আসার লড়াই ভয়াবহ এই সময়ে অন্যদের আশার আলো দেখাবে বলেই মনে করছেন তাঁরা।

[আরও পড়ুন: ‘জাহাজ থেকে নামতে দিন’, কাতর আরজি করোনা কবলিত গ্র্যান্ড প্রিন্সেসের যাত্রীদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement