১৭ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শনিবার ৪ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

ফিলিপিন্সে নারকেলের তৈরি মদ খেয়ে মৃত কমপক্ষে ১১

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: December 23, 2019 6:03 pm|    Updated: December 23, 2019 6:03 pm

11 Dead After Drinking Coconut Wine At Christmas Party In Philippines

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফিলিপিন্সে নারকেলের তৈরি মদ খেয়ে মৃত্যু হল কমপক্ষে ১১ জনের। অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন ৩০০ জনের বেশি মানুষ। ঘটনাটি ঘটেছে ফিলিপিন্সের রাজধানী ম্যানিলার দক্ষিণ দিকে অবস্থিত লাগুনা প্রদেশের রিজাল শহরে।

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, নারকেল দিয়ে তৈরি লামবানোগ (lambanog) নামে একটি মদ ফিলিপিন্সের লাগুনা ও কুইজেন প্রদেশে বহুল প্রচলিত। ছুটির দিন ও বিভিন্ন অনুষ্ঠানে স্থানীয় এই মদটি খেয়ে থাকেন প্রচুর মানুষ। কিন্তু, গত বৃহস্পতিবার থেকে রবিবার পর্যন্ত এই মদ খেয়ে লাগুনা প্রদেশের রিজাল শহরে কমপক্ষে ১১ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন ৩০০ জনের বেশি মানুষ। এদের মধ্যে একটি ক্রিসমাস পার্টিতে মদ্যপান করে অসুস্থ হওয়ার সংখ্যাই বেশি।

[আরও পড়ুন: দুই শতাব্দীতে প্রথম, আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত নোতর দামে এবছর বন্ধ বড়দিনের প্রার্থনা]

 

লাগুলা প্রদেশের স্বাস্থ্য দপ্তর সূত্রে খবর, এখনও পর্যন্ত ১১ জনের মৃত্যু হয়েছে। অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভরতি রয়েছেন আরও অনেকে। তাঁদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাই মৃত্যুর সংখ্যা আরও বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ইতিমধ্যে অসুস্থ মানুষদের রক্ত পরীক্ষার জন্য গবেষণাগারে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে, মদে বিষক্রিয়া হওয়ার কারণেই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে। এবিষয়ে তদন্ত করার পর দোষীদের কড়া শাস্তি দেওয়া হবে।

[আরও পড়ুন: সাংবাদিক জামাল খাশোগ্গি হত্যামামলায় ৫ জনকে ফাঁসির নির্দেশ সৌদি আদালতের]

 

ফিলিপিন্সের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনগুলির অভিযোগ, দেশের বিভিন্ন জায়গাতেই ঘরোয়া পদ্ধতিতে এই মদ তৈরি হয়। বারবার সবাইকে এই বিষয়ে সতর্কতা অবলম্বন করার কথা বলা হলেও কেউ গুরুত্ব দেয় না। এর জেরে গত বছরও একসঙ্গে ২১ জনের মৃত্যু হয়েছিল। সম্প্রতি স্থানীয় প্রশাসনের তরফে ক্রিসমাস উপলক্ষে এই মদ উপহারস্বরূপ দেওয়া হয়েছিল। অনেকে আবার জন্মদিনের পার্টির জন্যও এই মদ কিনে রেখেছিল। আশঙ্কা করা হচ্ছে যে কোনওভাবে ওই মদগুলির মধ্যে বিষক্রিয়া হয়েছিল। তাই এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে