১ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  সোমবার ১৮ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভয়াবহ জঙ্গি হানায় রক্তাক্ত থাইল্যান্ড। হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ১৫ জন। মঙ্গলবার গভীর রাতে সন্ত্রাস জর্জরিত দেশটির দক্ষিণ অংশে দু’টি পুলিশ চেকপোস্টে হামলা চালায় জেহাদিরা। এমনটাই জানিয়েছেন সেনার মুখপাত্র প্রামোট প্রোম-ইন। এই হামলাকে বিগত ১৫ বছরের মধ্যে অন্যতম রক্তক্ষয়ী বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

থাই সেনা সূত্রে খবর, মঙ্গলবার গভীর রাতে ইয়ালা প্রদেশের দু’টি চেকপোস্টে হামলা চালায় সন্ত্রাসবাদীরা। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় ১২ জনের। পরে হাসপাতালে মৃত্যু হয় আরও তিনজনের। আহতের সংখ্যা পাঁচ। পাশাপাশি, জঙ্গিরা এম-১৬ রাইফেল ও শটগান দিয়ে হামলা চালিয়েছিল বলে সেনার তরফে পৃথক এক বিবৃতি জারি করে জানানো হয়েছে। বিগত ১৫ বছরের মধ্যে অন্যতম রক্তক্ষয়ী এই হামলা। থাইল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী প্রয়োট চান-ও-চা এক বিবৃতি দিয়ে বলেছেন যে, হামলার নেপথ্যে যারা রয়েছে তাদের খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়া হবে। এদিকে, এই হামলার পর থেকেই দেশের দক্ষিণ অংশে বিশেষ করে ইয়ালা প্রদেশে জঙ্গিদমন অভিযান আরও তীব্র করে তুলেছে থাই সেনা। এখনও পর্যন্ত বেশ কয়েকজনকে হামলায় জড়িত থাকার সন্দেহে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে, এখনও পর্যন্ত এই হামলার দায় স্বীকার করেনি কোনও জঙ্গি সংগঠন। তবে তদন্তকারীরা মনে করছেন এই হামলার নেপথ্যে রয়েছে ‘বারিসান রেভলুসি নাজিয়নল’ বা ‘BRN’ নামের জঙ্গিগোষ্ঠীর। তাৎপর্যপূর্ণভাবে, গত আগস্ট মাসেই ‘BRN’ দাবি করেছিল যে সরকারের সরকারের সঙ্গে তাদের আলোচনা হয়েছে। বন্দি জঙ্গিদের মুক্তির দাবি জানিয়েছিল সংগঠনটি। স্বাভাবিকভাবেই সেই দবে মানতে অস্বীকার করে সরকার। প্রসঙ্গত, বিগত কয়েকবছর ধরে থাইল্যান্ডের দক্ষিণভাগের ইয়ালা, পাটানি ও নারাথিওয়াট প্রদেশে একাধিকবার সংঘর্ষের ঘটনা ঘটছে। পৃথক দেশ গঠনের দাবিতে মালয় মুসলিম জঙ্গিরা প্রশাসনের সঙ্গে বারবার সংঘাতে জড়িয়েছে। দু’পক্ষের সংঘর্ষে ইতিমধ্যেই প্রাণ গিয়েছে ৭ হাজারেরও বেশি মানুষের।

[আরও পড়ুন: তাড়া করত মৃত্যুভয়, প্রাণ বাঁচাতে মেষপালক বেশে ঘুরত বাগদাদি]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং