BREAKING NEWS

১৭ ফাল্গুন  ১৪২৭  বুধবার ৩ মার্চ ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

অবশেষে দেশে ফিরছেন চিনে আটকে থাকা ১৮ ভারতীয় নাবিক, জানালেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী

Published by: Abhisek Rakshit |    Posted: February 10, 2021 4:52 pm|    Updated: February 10, 2021 5:07 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: এমভি জগ আনন্দের ২৩ জন ভারতীয় নাবিক আগেই ভারতে (India) ফিরেছেন। এবার দেশে ফিরছেন চিনে (China) আটকে থাকা আরেকটি পণ্যবাহী জাহাজ এমভি আনাস্তাশিয়ার (M V Anastasia) ১৮ জন নাবিক। ওই নাবিকরা ১৪ ফেব্রুয়ারি দেশে ফিরছেন। বুধবার এমনটাই জানালেন কেন্দ্রীয় জাহাজ প্রতিমন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডব্য (Mansukh Madaviya)। আপাতত ওই নাবিকরা জাপানে (Japan) পৌঁছেও গিয়েছেন। সেখান থেকেই তাঁরা ভারতের উদ্দেশে রওনা হবেন। আর ৪দিন পরই দেশে ফিরবেন।

এদিন মনসুখ মাণ্ডব্য টুইটে লেখেন, “দিনের শুরুটা ভালই হল। এমভি আনাস্তাশিয়ায় আটকে থাকা ১৮ জন ভারতীয় নাবিক অবশেষে দেশে ফিরছেন। জাপান থেকে আজ তাঁরা রওনা হবেন এবং ১৪ ফেব্রুয়ারি পৌঁছে যাবেন ভারতে। দ্রুতই তাঁরা নিজেদের পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে দেখাও করতে পারবেন। চিনে ভারতীয় দূতাবাসের আধিকারিকরা দুরন্ত কাজ করেছেন।” এর আগে গত মাসের ১৪ জানুয়ারি দেশে ফিরেছিলেন এমভি জগ আনন্দ নামে পণ্যবাহী জাহাজের ২৩ জন নাবিক।

 

[আরও পড়ুন: ‘সুশৃঙ্খল গণতন্ত্র’ ফেরাতেই মায়ানমারের সেনা অভ্যুত্থান, চাপের মুখে সাফাই জুন্টার]

জগ আনন্দ ১৩ জুন থেকে চিনের হুবেই প্রদেশের জিংট্যাং বন্দরে নোঙর করেছিল। তাতে ছিলেন ২৩ জন ভারতীয় নাবিক। অন্যদিকে, এমভি আনাস্তাশিয়া ২০ সেপ্টেম্বর থেকে কাওফেইডিয়ান বন্দরে নোঙর করেছিল। সেই থেকে দু’টি জাহাজই মাল খালাসের অপেক্ষায় বন্দরে ঠায় দাঁড়িয়ে ছিল। করোনা আবহে (Corona Pandemic) এই সময় চিনের তরফে পণ্য খালাসের অনুমতি যেমন দেওয়া হয়নি, তেমনি জাহাজের সদস্যদের পরিবর্তন করার অনুমতিও দেয়নি চিনা প্রশাসন। শেষপর্যন্ত আসরে নামে ভারতের বিদেশমন্ত্রক এবং বেজিংয়ে অবস্থিত ভারতীয় দূতাবাস। কূটনৈতিক স্তরে দীর্ঘ প্রচেষ্টার পর অবশেষে দেশে ফিরছেন চিনে আটকে থাকা ওই নাবিকরা।

[আরও পড়ুন: ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সরব পর্নস্টার স্টর্মি ড্যানিয়েলস, দিলেন ‘সবথেকে খারাপ’ নৈশ অভিসারের বর্ণনা]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement