২ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

দিল্লির হুঁশিয়ারিতে চাপে ইসলামাবাদ, ভারতীয় দূতাবাসের দুই কর্মীকে ফেরাল পাকিস্তান

Published by: Soumya Mukherjee |    Posted: June 16, 2020 11:00 am|    Updated: June 16, 2020 11:31 am

An Images

ফাইল ফটো

নয়াদিল্লি ও ইসলামাবাদ: দিনভর বিস্তর টানাপোড়েন ও কূটনৈতিক তৎপরতার পর সোমবার রাতে দুই ভারতীয় দূতাবাস কর্মীকে মুক্তি দিল পাকিস্তানের পুলিশ। সূত্রের খবর, সকাল থেকে পুলিশ হেফাজতে থাকা দুই দূতাবাস কর্মীর মুখে ও হাতে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ফলে তাঁদের মারধর করা হয়েছে বলেই সন্দেহ। ভারতীয় হাইকমিশন অফিস থেকে দু কিলোমিটার দূরে ইসলামাবাদের সেক্রেটারিয়েট থানায় তাঁদের লক আপে বসিয়ে জেরা করেছে পাকিস্তানের পুলিশ। বর্তমানে তাঁরা সুস্থ থাকলেও তাঁদের উপর বেশ ধকল গিয়েছে বলেই জানা গিয়েছে।

সরকারি সূত্রে খবর, সোমবার সকালে ইসলামাবাদে ভারতীয় দূতাবাসে নিরাপত্তার কাজে নিযুক্ত সিআইএসএফ (CISF) -এর দুই অফিসার দূতাবাস থেকে একটি গাড়ি নিয়ে বের হন। কিন্তু, নির্ধারিত সময়ের কয়েক ঘণ্টা পরেও তাঁরা গন্তব্যে পৌঁছননি। সকাল ৮টার পর থেকে তাঁদের সঙ্গে আর যোগাযোগও করা যায়নি। বিষয়টি নিয়ে উদ্বেগ বাড়তেই খবর যায় দিল্লিতে। তৎপরতা শুরু হয় সরকারি পর্যায়ে। পাক বিদেশমন্ত্রকও বিকেল পর্যন্ত নিখোঁজ ভারতীয় দূতাবাস কর্মীদের হদিশ পায়নি। এরপরই ক্ষুব্ধ ভারতীয় বিদেশমন্ত্রক পাক ডেপুটি হাই কমিশনার সইদ হায়দার শাহকে সাউথ ব্লকে তলব করে। তাঁর কাছ থেকে কৈফিয়ত চাওয়া হয়, দূতাবাস কর্মীদের কে বা কারা কিসের ভিত্তিতে গ্রেপ্তার বা অপহরণ করেছে? কূটনৈতিক রক্ষাকবচ না মেনে জেনেভা চুক্তি লঙ্ঘন করছে পাকিস্তান।

[আরও পড়ুন: রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে কাশ্মীর নিয়ে অপপ্রচার পাকিস্তানের, যোগ্য জবাব দিল ভারত]

বিদেশমন্ত্রকের পক্ষ থেকে তাঁকে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়, অবিলম্বে নিঃশর্তে সুস্থ অবস্থায় ওই দুই দূতাবাস কর্মীকে ভারতীয় দূতাবাসে ফিরিয়ে দিতে হবে। দূতাবাস কর্মীদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হলে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে বাধ্য হবে ভারত। হুঁশিয়ারি পাওয়ার পরই ওই দুই দূতাবাস কর্মীকে রাতের দিকে নিরাপদে মুক্তি দেয় পাকিস্তানের পুলিশ। পাকিস্তানের জিও টিভি ও পিটিভি জানিয়েছে, দ্রুত বিএমডব্লু গাড়ি চালিয়ে যাওয়ার সময় এক পথচারীকে ধাক্কা মেরে গুরুতর জখম করেন ওই দুই দূতাবাস কর্মী। হিট অ্যান্ড রানের এই ঘটনার পর দুর্ঘটনাস্থলেই তাঁদের গ্রেপ্তার করে পুলিশ। আর দিনভর কূটনৈতিক তৎপরতার পর তাঁদের মুক্তি দেওয়া হয়। তবে দুর্ঘটনাটি সাজানো নাকি সত্যি তা নিয়ে এখনও ধন্দ কাটেনি।

সম্প্রতি গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে দিল্লিতে দুই পাক দূতাবাস কর্মীকে হাতেনাতে পাকড়াও করেছিলেন ভারতীয় গোয়েন্দারা। দিল্লি পুলিশের জালে ধরা পড়ার পর ওই দুই পাক দূতাবাস কর্মী এবং তাদের দুই গাড়ির চালককে দেশ থেকে বহিষ্কার করেছিল ভারত। সেই সঙ্গে আশঙ্কাও ছিল, মওকা বুঝে যে কোনওদিন এর বদলা নেবে পাকিস্তান। কারণ অতীতেও অনেকবার তাই হয়েছে। তাই সোমবার দুই ভারতীয় দূতাবাস কর্মী নিখোঁজ হতেই আশঙ্কা দেখা দেয় যে পাকিস্তান বদলা নিতেই হয়তো দুই ভারতীয় দূতাবাস কর্মীকে অপহরণ বা গ্রেপ্তার করেছে। বিদেশমন্ত্রক এমন আশঙ্কাও প্রকাশ করে, ভারতীয় দূতাবাস কর্মীদের অপহরণ করে লুকিয়ে রেখেছে পাক গুপ্তচর সংস্থা আইএসআই (ISI)।

[আরও পড়ুন: OMG! করোনাজয়ীকে ১১ লক্ষ মার্কিন ডলারের বিল ধরাল হাসপাতাল!]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement