BREAKING NEWS

৯ আশ্বিন  ১৪২৭  রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে কাশ্মীর নিয়ে অপপ্রচার পাকিস্তানের, যোগ্য জবাব দিল ভারত

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: June 16, 2020 8:48 am|    Updated: June 16, 2020 8:48 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কাশ্মীরে মানবাধিকার লঙ্ঘন করা হচ্ছে। কাশ্মীরবাসীর মৌলিক অধিকার ভঙ্গ করছে ভারত সরকার। কোনও প্রমাণ ছাড়াই রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনে (UNHR) ভারতের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালানোর চেষ্টা করছিল পাকিস্তান। কিন্তু পাক সরকার সেই অপচেষ্টার যোগ্য জবাব দিল ভারত। মানবাধিকার কমিশনের মঞ্চকে পাকিস্তান কীভাবে নিজেদের রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করতে ব্যবহার করতে চাইছে, তা বিশ্বের সামনে তুলে ধরলেন ভারতীয় প্রতিনিধি।

সুইজারল্যান্ডের জেনিভায় রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকার কমিশনের ৪৩তম সমাবেশে সোমবার পাকিস্তানের অপপ্রচার নিয়ে সরব হন ভারতের প্রতিনিধি সেন্থিল কুমার (Senthil Kumar)। তিনি বলেন, পাকিস্তানের (Pakistan) সরকার বালুচিস্তানে ইচ্ছেমতো সেনা মোতায়েন করছে। যখন তখন নাগরিকদের উপর অত্যাচার করা হচ্ছে, নাগরিকদের বাসস্থান নষ্ট করে দেওয়া হচ্ছে, আইন-বহির্ভূত হত্যা করা হচ্ছে, ডিটেনশন ক্যাম্প, টর্চার ক্যাম্প, মিলিটারি ক্যাম্পগুলিতে দুর্বিষহ জীবন কাটাচ্ছেন পাক অধিকৃত কাশ্মীরের বাসিন্দারা। সেন্থিল কুমার বলছেন, পাক সরকার লাগাতার ধর্মনিন্দা আইন কাজে লাগিয়ে সংখ্যালঘুদের আতঙ্কিত করছে। ওদের মধ্যে ভীতির সঞ্চার করছে।

[আরও পড়ুন: ISI-এর হেফাজতে পাকিস্তানে ভারতীয় দূতাবাসের ২ ‘নিখোঁজ’ আধিকারিক]

নিজের বক্তব্যের শুরুতেই ভারতের প্রতিনিধি স্পষ্ট করে দেয়, পাকিস্তান যেভাবে লাগাতার রাষ্ট্রসংঘের মানবাধিকারের মঞ্চের অপব্যবহার করে চলেছে, তা দুর্ভাগ্যজনক। পাকিস্তান দক্ষিণ এশিয়ার একমাত্র দেশ যেখানকার সরকার নাগরিকদের উপর গণহত্যা চালায়। এই দেশটা ধর্মীয় মৌলবাদের ভিত্তিতে তৈরি হয়েছে। এর রক্তাক্ত ইতিহাসে শুধুই গণহত্যা আর প্রতারণার কাহিনী লেখা আছে। এই দেশটা কীভাবে নাগরিক অধিকারের কথা বলে তা অবাক করার বিষয়। কুমার আবারও মনে করিয়ে দেন, পাক অধিকৃত কাশ্মীর থেকে ৪৭ হাজার বালোচ এবং ৩৫ হাজার পাস্তুন এখনও নিখোঁজ হয়ে আছে। গোটা পাকিস্তানে ধর্মীয় হিংসায় প্রাণ গিয়েছে ১ লক্ষ হাজারার।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement