BREAKING NEWS

৫ মাঘ  ১৪২৮  বুধবার ১৯ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

আমেরিকার কাছে জঙ্গি সংগঠনের অস্তিত্ব লুকিয়েছে পাকিস্তান! স্বীকারোক্তি ইমরানের 

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: July 24, 2019 12:29 pm|    Updated: July 25, 2019 3:02 pm

40 terror groups operating in Pakistan: Imran Khan

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানে সক্রিয় রয়েছে প্রায় ৪০টি জঙ্গি সংগঠন। গত ১৫ বছরে এই বিষয়ে আমেরিকার কাছে সত্য গোপন করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিশ্বমঞ্চে ফের মুখ পুড়িয়ে এই নিজের মুখে এই কথাগুলি বললেন সে দেশের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

[আরও পড়ুন: ইউএফও নয়, চন্দ্রযান২! কুইন্সল্যান্ডের আকাশে হঠাৎ দর্শনে ছড়াল উত্তেজনা]

ওই অনুষ্ঠানে ইমরান খান বলেন, “পাকিস্তানে প্রায় ৪০টি জঙ্গি সংগঠন সক্রিয় রয়েছে। গত ১৫ বছর আমরা আমেরিকার কাছে সত্য গোপন করেছি। ৯/১১ হামলার সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পর্ক ছিল না। তবুও আমরা আমেরিকার লড়াই লড়ছি। এর ফল ভুগতে হচ্ছে পাকিস্তানকে। আজ আমাদের নিজেদের অস্তিত্ব বিপন্ন। তবুও তালিবানর সঙ্গে শান্তি আলোচনা চালিয়ে যেতে যথাসাধ্য সাহায্য করছি আমরা।”

মার্কিন মসনদে ডোনাল্ড ট্রাম্প বসার পর থেকেই সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে বেশ কিছুটা ব্যাকফুটে পাকিস্তান। জেহাদিদের বিরুদ্ধে কড়া ও দৃশ্যমান পদক্ষেপ করার নির্দেশ দিয়ে সামরিক খাতে ইসলামাবাদের বরাদ্দ আটকে দিয়েছে ওয়াশিংটন। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে আমেরিকা পাড়ি দিয়েছেন ইমরান। তবে আশানুরূপ অভ্যর্থনা জোটেনি। যদিও পাকিস্তানের কাশ্মীর ক্ষতে কিছুটা মলম লাগিয়ে ভূস্বর্গ নিয়ে বহুদিনের বিবাদে ‘মধ্যস্থতা’ করার কথা বলে ফেলেন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। তবে ভারতের কড়া জবাবে ক্ষমাও চেয়ে নেয় মার্কিন প্রশাসন। সব মিলিয়ে ফের অথৈ জলে পাকিস্তান। মঙ্গলবার ক্যাপিটল হিলে ইমরান খানকে স্বাগত জনাতে একটি অনুষ্ঠান আয়োজিত করেন মার্কিন সেনেটে সদস্যা শেইলা জ্যাকসন লি। মার্কিন সেনেটে পাকিস্তান ও ভারত বিষয়ক একটি কমিটির সদস্যা লি। ওই অনুষ্ঠানে ইমরান খান বলেন, “পাকিস্তানে প্রায় ৪০টি জঙ্গি সংগঠন সক্রিয় রয়েছে। গত ১৫ বছর আমরা আমেরিকার কাছে সত্য গোপন করেছি। ৯/১১ হামলার সঙ্গে আমাদের কোনও সম্পর্ক ছিল না। তবুও আমরা আমেরিকার লড়াই লড়ছি। এর ফল ভুগতে হচ্ছে পাকিস্তানকে। আজ আমাদের নিজেদের অস্তিত্ব বিপন্ন। তবুও তালিবানর সঙ্গে শান্তি আলোচনা চালিয়ে যেতে যথাসাধ্য সাহায্য করছি আমরা।”

কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, সামরিক খাতে মার্কিন বরাদ্দ না মেলায় প্রবল আর্থিক সংকটে পড়েছে পাক সেনা। মিথ্যা প্রতিশ্রুতিতে আর চিড়ে ভিজবে না তা বুঝতে পারছে আইএসআইও। ফলে ইমরানকে দূত বানিয়ে ফের আমেরিকার নেক নজরে আসার চেষ্টা করছে রাওয়ালপিণ্ডি। যদিও সন্ত্রাসবাদী সংগঠনের উপস্থিতি নিয়ে ইমরানের মন্তব্য কতটা স্বতঃস্ফূর্ত তা সময়ই বলবে।     

[লাদেন বধে মার্কিন বাহিনীকে সাহায্য করেছিল আইএসআই, দাবি ইমরানের]                               

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে