BREAKING NEWS

১০ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

মূল্যবৃদ্ধিতে নাভিশ্বাস সাধারণ পাকিস্তানিরা, ঘরে বাইরে চাপে ইমরান সরকার

Published by: Biswadip Dey |    Posted: November 15, 2020 4:22 pm|    Updated: November 15, 2020 4:22 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মূল্যবৃদ্ধির সমস্যা ক্রমশ বাড়ছে পাকিস্তানে (Pakistan)। সমাজের সব শ্রেণির মানুষকেই এর মুখোমুখি হতে হয়েছে। তবে আর্থ-সামাজিক শ্রেণির একদম নিচে যাঁদের অবস্থান, তাঁদের পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। দেশের এই চরম দুর্দশার জন্য কে দায়ী? সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা অনুযায়ী, ৪৯ শতাংশ পাকিস্তানি নাগরিক মনে করছেন, এর জন্য দায়ী ইমরান খানের (Imran Khan) সরকার।

ওই সমীক্ষায় গত ২৮ অক্টোবর থেকে ৪ অক্টোবর পর্যন্ত এক হাজারেরও বেশি পাক নাগরিককে প্রশ্ন করা হয় দেশের এই মূল্যবৃদ্ধির বিষয়ে। ‘জিও নিউজ’ জানাচ্ছে, মাত্র ১৫ শতাংশ মানুষ এর জন্য আগের সরকারকে দায়ী করেছেন। প্রসঙ্গত, ক্ষমতায় আসার পর থেকেই ইমরানের দল পাকিস্তান তেহেরিক-ই-ইনসাফ দাবি করে আসছে, আগের সরকারগুলির ব্যর্থতার জন্য মুল্যবৃদ্ধির এই হাল। এর পাশাপাশি ১৭ শতাংশ পাকিস্তানির মতে, এর জন্য দায়ী প্রাদেশির সরকারগুলি। যে প্রদেশগুলির বিরুদ্ধে অভিযোগ আঙুল বেশি উঠেছে তারা হল বালুচিস্তান (৫৯ শতাংশ), খাইবার পাখতুনখাওয়া (৫৮ শতাংশ), পাঞ্জাব (৪৬ শতাংশ) এবং সিন্ধ (৪৪ শতাংশ)।

[আরও পড়ুন : আস্থা নেই নির্বাচন প্রক্রিয়ায়! ট্রাম্পকে জয়ী ঘোষণার দাবিতে পথে হাজার হাজার সমর্থক]

কিন্তু সবথেকে বেশি মানুষের রায় ইমরান সরকারের বিরুদ্ধেই। সমীক্ষায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে প্রায় অর্ধেক মানুষেরই মত সেদিকে। গত কয়েক মাস ধরেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ও সেনাবাহিনীর বিরুদ্ধে ক্রমশই ক্ষোভ বাড়ছে সেদেশে জনগণের মনে। আর এই বিষয়টি অনুভব করেই একজোট হয়েছে বিরোধীরা। তৈরি হয়েছে পাকিস্তান ডেমোক্র্যাটিক মুভমেন্ট। এই পরিস্থিতিতে মূল্যবৃদ্ধিও নতুন কাঁটা হয়ে দাঁড়াচ্ছে ইমরানের সামনে।

করোনা আবহে গোটা বিশ্বেরই অর্থনীতি প্রভাবিত হয়েছে। পাকিস্তানে ছবিটা বেশ করুণ। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে প্রতি ৫ জনের মধ্যে ৪ জন পাকিস্তানি অর্থাৎ ৮৩ শতাংশ মানুষের রোজগার কমে গিয়েছে অতিমারীর ছোবলে। এই অবস্থায় মূল্যবৃদ্ধিতে তাঁরা উদ্বিগ্ন কিনা সেকথা জিজ্ঞাসা করা হলে ৯৭ শতাংশই জানান, তাঁরা আশঙ্কায় ভুগছেন।

[আরও পড়ুন : উইঘুর মুসলিমদের উপর নির্যাতনের জের, চিনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভে উত্তাল বিভিন্ন দেশ]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement