BREAKING NEWS

৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বুধবার ২৫ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

পাকিস্তানকে তুলোধোনা কাবুলের, সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে ভারতের পাশে আফগানিস্তান

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 17, 2020 9:04 am|    Updated: November 17, 2020 9:04 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে ভারতের সঙ্গে গলা মিলিয়ে পাকিস্তানকে চরম অস্বস্তিতে ফেলল আফগানিস্তান (Afghanistan)। ইসলামাবাদের সমস্ত অভিযোগ উড়িয়ে নয়াদিল্লির সমর্থনে সওয়াল করেছে কাবুল। 

[আরও পড়ুন: শুরু মালাবার নৌ মহড়ার দ্বিতীয় পর্যায়, নজরে ভারতীয় রণতরী ‘বিক্রমাদিত্য’]

সোমবার আফগান বিদেশমন্ত্রক বলেছে, আফগানিস্তানের মাটিকে ব্যবহার করে ভারত পাকিস্তানে সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে বলে পাকিস্তান যে অভিযোগ করেছে তা ভিত্তিহীন। ভারত আফগানিস্তানের মাটিকে ব্যবহার করে এরকম কোনও কাজ করছে না। তা ছাড়া নানগারহর প্রদেশের উপজাতি নেতা মালিক মহম্মদ ও তাঁর গোষ্ঠী যে পাকিস্তানের পেশোয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলায় জড়িত, এরকম কোনও প্রমাণ পাকিস্তান আফগানিস্তানের হাতে তুলে দিতে পারেনি। তাই কোনও আফগান নাগরিকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ারও প্রশ্ন উঠছে না।

পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান (Imran Khan) চলতি সপ্তাহের শেষে আফগানিস্তান সফরে যাচ্ছেন। তার আগে এই বিবৃতিতে চরম অস্বস্তিতে ইসলামাবাদ। দু’দিন আগেই পাক বিদেশমন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন, ভারতের গুপ্তচর সংস্থা ‘RAW’ আফগানিস্তানের মাটিকে ব্যবহার করে পাকিস্তানে ব্যাপক সন্ত্রাস ছড়াচ্ছে। পাকিস্তানের এই অভিযোগকে কল্পনা বলে কটাক্ষ করে তা খারিজ করেছে ভারত। আফগানিস্তানও একইভাবে পাক দাবিকে খারিজ করল। আফগান বিদেশমন্ত্রক পালটা জানিয়েছে, পাকিস্তান নিজের দেশে সন্ত্রাসের পরিকাঠামোগুলি বন্ধ ও ধ্বংস করা আগে নিশ্চিত করুক। রাষ্ট্রসংঘের নিরপেক্ষ তদন্তকারী দলকে নিজের দেশে ঢুকতে অনুমতি দিক। একইসঙ্গে পাক-আফগান বোঝাপড়া বাড়াতে যৌথ মেকানিজমকে শক্তিশালী করুক।

পাকিস্তানের বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি ও সেনা মুখপাত্র মেজর বাবর ইফতিকার শনিবার একটি ‘প্রমাণপত্র’ পেশ করেন যেখানে দাবি করা হয়েছে পাকিস্তানে সন্ত্রাসে ভারতের মদত দেওয়ার সম্পর্কে তথ্য আছে। এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে ভারতীয় বিদেশমন্ত্রকের মুখপাত্র অনুরাগ শ্রীবাস্তব জানান, এটা আরেকটা ভারত-বিরোধী জিগির তৈরির ব্যর্থ প্রচেষ্টা চালাচ্ছে পাকিস্তান। গোটা দুনিয়া জানে সন্ত্রাসবাদ পাকিস্তানের সরকারি নীতি ও জাতীয় শিল্প।

[আরও পড়ুন: শুরু মালাবার নৌ মহড়ার দ্বিতীয় পর্যায়, নজরে ভারতীয় রণতরী ‘বিক্রমাদিত্য’]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement