BREAKING NEWS

৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৪ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

শুরু মালাবার নৌ মহড়ার দ্বিতীয় পর্যায়, নজরে ভারতীয় রণতরী ‘বিক্রমাদিত্য’

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: November 17, 2020 8:21 am|    Updated: November 17, 2020 8:21 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চিনের উদ্বেগ বাড়িয়ে বঙ্গোপসাগরে শুরু হল মালাবার মহড়ার ২৪তম সংস্করণ ‘মালাবার ২০২০’ (Malabar 2020)-এর দ্বিতীয় পর্যায়। আজ থেকে অর্থাৎ ১৭ নভেম্বর থেকে এই মহড়া চলবে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত।

[আরও পড়ুন: করোনা টিকা হাতাতে তৎপর হ্যাকাররা, নিশানায় ভারত!]

ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের চারটি দেশ ভারত, আমেরিকা, জাপান ও অস্ট্রেলিয়া এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে। লাদাখে ভারত-চিনের সংঘাতের আবহে এই মহড়াকে নতুন মাত্রা দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার যোগদান। দীর্ঘ ১৩ বছর পর মালাবার গোষ্ঠীতে ফিরে এল অস্ট্রেলিয়া। এর ফলে বড় ধাক্কা খেয়েছে চিন বলেই মনে করছেন প্রতিরক্ষা বিশ্লেষকদের একাংশ। নৌসেনা সূত্রে খবর, মহড়ার দ্বিতীয় পর্যায়ের মূল চমক হচ্ছে ভারত ও আমেরিকার যুদ্ধবিমানবাহী রণতরী আইএনএস বিক্রমাদিত্য ও ইউএসএস নিমিৎজের মধ্যে অত্যন্ত জটিল অভ্যাস। যেমন দুই এয়ারক্র্যাফট ক্যারিয়ার থেকে ডানা মেলবে MIG 29K (ভারত), F-18 (আমেরিকা) ও E2C Hawkeyes (আমেরিকা) বিমানগুলি। এই সামরিক মহড়ায় ভারতীয় নৌবাহিনীর নেতৃত্ব দিচ্ছেন ওয়েস্টার্ন ফ্লিটের কমান্ডিং ফ্ল্যাগ অফিসার রিয়ার অ্যাডমিরাল কৃষ্ণ স্বামীনাথন। শক্তিপ্রদর্শন করে এই মহড়ায় অংশ নিচ্ছে ভারতের ক্যারিয়ার ব্যাটল গ্রুপ বিক্রমাদিত্য, ডেস্ট্রয়ার আইএনএস কলকাতা, আইএনএস চেন্নাই, স্টেলথ ফ্রিগেট আইএনএস তলোয়ার। এছাড়া জেট ট্রেনার হক, উপকূলে নজরদারির চালানোর কাজে ব্যবহৃত পি-8 আই, ডর্নিয়ার এয়ারক্রাফট এবং একাধিক হেলিকপ্টার।

উল্লেখ্য, ১৯৯২ থেকে সমুদ্র সুরক্ষার লক্ষ্যে দ্বিপাক্ষিক চুক্তি অনুসারে আমেরিকার সঙ্গে যৌথ নৌ মহড়া শুরু করেছিল ভারত। ২০১৫ সালে মালাবার মহড়ায় যুক্ত হয়েছিল জাপানের নৌবাহিনীও। গোড়া থেকেই তা নিয়ে বেজিং সন্দিহান ছিল। তাদের ধারণা, ভারতীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নিজেদের ক্ষমতা জাহির করতেই এই মহড়া করা হয়। চলতি মাসের শুরুতে টোকিওতে চার দেশের বিদেশমন্ত্রী আলোচনা সভায় যোগ দেন। সেখানেই অস্ট্রেলিয়াকে মালাবার নৌ মহড়ায় অন্তর্ভুক্ত করার প্রসঙ্গ ওঠে।

[আরও পড়ুন: ইন্ডিয়া গেটের সামনে নেতাজির মূর্তি বসানোর আবেদন, অনলাইন পিটিশনে সাড়া নেটিজেনদের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement