BREAKING NEWS

৪ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এবার ড্রাগনের নজর ‘পৃথিবীর ছাদে’, পামির মালভূমিকেও নিজের বলে দাবি চিনের

Published by: Paramita Paul |    Posted: August 8, 2020 11:06 am|    Updated: August 8, 2020 12:13 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ভারত (India), ভূটানের (Bhutan) পর এবার ‘জমি হাঙর’ চিনের (China) নজর তাজিকিস্তানের পামির মালভূমির দিকে। সম্প্রতি এক চিনা ইতিহাসবিদ পামির (Pamir) চিনের এলাকা ছিল বলে দাবি করেন। ব্যস, তারপর থেকেই চিনের সংবাদমাধ্যমে পামিরকে নিজেদের অংশ বলে দাবি করে ছিনিয়ে নেওয়ার হুঙ্কার দেওয়া হচ্ছে। ড্রাগনের দেশের এই সাম্রাজ্যবাদী আস্ফালনে ভয়ে কাঁপছে তাজিকিস্তান (Tajikistan)।

সম্প্রতি চিনের জাতীয়তাবাদী ইতিহাসবিদ ইয়ো ইয়াও লু সম্প্রতি একটি প্রতিবেদনে লেখেন, একটা সময় পুরো পামির এলাকা চিনের ছিল। তাই এবার পামিরের পার্বত্য ভূমি চিনের ফেরত নেওয়া উচিত। তিনি প্রতিবেদনে আরও লিখেছেন, ১৯১১ সাল থেকে চিন যে নীতি নিয়েছে তাতে হারানো জমি পুনর্দখলের কথা রয়েছে। এরই মধ্যে চিন বেশ কিছু হারানো জমি ফেরত পেয়েছে। তবে আরও অনেক বাকি। পামিরের উপর সবার প্রথমে চিনের অধিকার ছিল। কিন্তু গত ১২৮ বছর ধরে তা আর চিনের দখলে নেই। তাই এবার সেই অঞ্চল ফিরে পেতে চায় চিন।

[আরও পড়ুন: ‘পা সোজা করার জায়গাও নেই’, চিনে অমানুষিক যাতনার কথা তুলে ধরলেন উইঘুর বন্দি]

মধ্য এশিয়ার ছোট ও গরিব দেশ তাজিকিস্তান। ১৯৯১ সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙে তৈরি হয় এই দেশ। তারপর টানা পাঁচ বছর গৃহযুদ্ধে বিধ্বস্ত হয় এই ছোট্ট পাহাড়ি দেশটি। তাজিকিস্তানের সঙ্গে সীমান্ত রয়েছে চিনের। ২০১০ সালে দুই দেশের মধ্যে মধ্যে সীমান্ত নিয়ে চুক্তি হয়েছিল। সেই চুক্তি অনুযায়ী, ১১৫৮ বর্গ কিলোমিটার এলাকা চিনকে সঁপে দিতে হয়েছিল তাজিকিস্তানকে। সেই চুক্তির পর তাজিকিস্তান ও আফগানিস্তান সীমান্তের কাছে তাশকুরগায় বিমানবন্দর নির্মাণের কাজও শুরু করে দিয়েছে। যা চিন্তায় রেখেছে তাজিকিস্তানকে। তবে মধ্যপ্রাচ্যে চিনের সাম্রাজ্য বিস্তারের দিকে নজর রেখেছে রাশিয়াও (Russia)। চিনের এই সাম্রাজ্যবাদী মনোভাবের বিরুদ্ধে শুরু থেকেই রুখে দাঁড়িয়েছে রাশিয়া ও আমেরিকা।

[আরও পড়ুন: চিনকে জোর ধাক্কা, মার্কিন সংস্থা থেকেই চিকিৎসা সামগ্রী কেনার নির্দেশ ট্রাম্পের]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement