৪ অগ্রহায়ণ  ১৪২৬  বৃহস্পতিবার ২১ নভেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: গায়ে চামড়ার জ্যাকেট। মাথায় উইগ। বিদায়বেলায় গিটার হাতে চিনা পপ সং গেয়ে মঞ্চ মাতালেন জ্যাক মা। তুখোড় ‘বিজনেস টাইকুন’ মা-কে সম্পূর্ণ অন্য রূপে দেখল বিশ্ব। মঙ্গলবার একটি বর্ণাঢ্য অনুষ্ঠানের শেষে আলিবাবা গ্রুপের শীর্ষপদ ছেড়ে দিলেন সংস্থার প্রতিষ্ঠাতা জ্যাক মা। তবে তিনি ৩৬ জনের আলিবাবা পার্টনারশিপের সদস্য থেকে যাবেন।   

[আর পড়ুন: এক লিটার দুধের দাম ১৪০ টাকা! বেজায় বিপাকে পাকিস্তানের জনতা]

জ্যাকের জায়গায় আলিবাবার নতুন একজিকিউটিভ চেয়ারম্যান হয়েছেন ড্যানিয়েল ঝাং। উল্লেখ্য, আমেরিকা ও চিনের মধ্যে ক্রমশ বাড়ছে বাণিজ্যিক লড়াই। স্বভাবিকভাবেই এর প্রভাব পড়েছে ই-কমার্স ব্যবসায়। এই অবস্থায় জ্যাক মার সরে যাওয়া অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ। তবে তিনি যে সংস্থার শীর্ষপদ ছাড়বেন, তা গত বছরই জানিয়েছিলেন মা। অত্যন্ত শক্ত ধাতুতে গড়া হলেও, নিজের হাতে তৈরি প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ পদ ছাড়ার সময় আবেগে ভেসে যান জ্যাক। অনুরাগীদের ভালবাসায় আপ্লুত হয়ে একসময় কেঁদে ফেলেন তিনি। আর তা দেখেই কার্যত চমকে উঠে নেটদুনিয়া। দিনভর চিনা সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেনডিং ছিল, ‘জ্যাক মা হ্যাজ ক্রাইড’ বাক্যটি। সব মিলিয়ে ই-কমার্সের দুনিয়ায় এক যুগের অবসান হল।       

১৯৯৯ সালে শিক্ষকতা করতে করতেই তিনি আলিবাবার প্রতিষ্ঠা করেন। এরপর আমেরিকার খুচরো ব্যবসায়ীদের সঙ্গে চিনা পণ্য রপ্তানীকারকদের মধ্যে সেতুর কাজ করে আলিবাবা। দ্রুত এগিয়ে যান জ্যাক মা। জুন মাসে শেষ হওয়া ত্রৈমাসিকে আলিবাবার আয় ছিল এক হাজার ৬৭০ কোটি ডলার। জ্যাক মার হাত ধরে বিশ্বের সবচেয়ে বড় ই-কমার্স সংস্থা হয়ে উঠে আলিবাবা। গত বছর আলিবাবার প্ল্যাটফর্ম থেকে বিক্রি ২৫ শতাংশ বেড়ে দাঁড়ায় আট হাজার ৫৩০ কোটি ডলার। সেখানে আমেরিকার সবচেয়ে বড় ই-কমার্স সংস্থা আমাজনের বিক্রি ছিল দু’হাজার ৭৭০ কোটি ডলার। এদিকে, আলিবাবার চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে দিলেও এখনও চিনের সবচেয়ে ধনী ব্যক্তি জ্যাক মা।

[আরও পড়ুন: মত মিলছে না, জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা বোল্টনকে বরখাস্ত করলেন ট্রাম্প]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং