২২ চৈত্র  ১৪২৬  রবিবার ৫ এপ্রিল ২০২০ 

Advertisement

ঘোলা জলে মাছ ধরার চেষ্টা, দিল্লি হিংসায় উসকানিমূলক মন্তব্য ইমরানের

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: February 27, 2020 11:00 am|    Updated: February 27, 2020 11:00 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দিল্লিতে চলতে থাকা লাগাতার হিংসার ঘটনায় নাক গলালেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। এর আগে গত কয়েক মাস ধরে বহুবার সিএএ ও এনআরসি নিয়ে আলটপকা মন্তব্য করেছেন তিনি। এবার তাঁর দাবি ভারতে মুসলমানরা সুরক্ষিত নন।

রাষ্ট্রসংঘের সাধারণ সভার অধিবেশন থেকে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক মঞ্চে এবং পাকিস্তানের পার্লামেন্টেও দীর্ঘ ভাষণ দিয়েছেন এনআরসি ও সিএএ-র বিরুদ্ধে। বার বার বলেছেন, ‘ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র করার চক্রান্ত করছে ফ্যাসিবাদী বিজেপি। নাৎসিরা যেমন ইহুদি নিধন করেছিল, আরএসএস তেমনি মুসলিমদের মুছে দিয়ে, তাঁদের ভারত থেকে তাড়িয়ে দিয়ে ভারতকে হিন্দু রাষ্ট্র বানাতে চায়।’ যদিও তুরস্ক এবং মালয়েশিয়া ছাড়া বিশ্বের আর একটি দেশকেও এই ইস্যুতে পাশে পাননি ইমরান তবুও সেই পুরনো ভঙ্গিতেই দিল্লির হাঙ্গামা নিয়ে ফের মন্তব‌্য করেছেন তিনি।

বুধবার ইমরানের টুইট, “ভারত অধিকৃত কাশ্মীরে ৩৭০ ধারা বিলোপ এবং শাটডাউনের ঘটনার পরেই আমি গত বছর রাষ্ট্রপুঞ্জের সাধারণ পরিষদের অধিবেশনে বলেছিলাম, বোতল থেকে দৈত্যটা বেরিয়ে পড়ল। এ বার রক্তপাত আরও বাড়বে বলে পূর্বাভাস দিয়েছিলাম। যার সূত্রপাত হয়েছিল কাশ্মীরে। ভারতে থাকা ২০ কোটি মুসলিম এখন লক্ষ‌্যবস্তুতে পরিণত হয়েছেন। এটা রুখতে গোটা বিশ্বকে এ বার এগিয়ে আসতে হবে। নাগরিক বিল নিয়ে ভারতে যা চলছে তাতে হস্তক্ষেপ করুক প্রভাবশালী দেশগুলি।”

দিল্লিতে হিংসার ঘটনার জন্য এবং মুসলিম নাগরিকদের উপর অত্যাচারের জন্য ভারত সরকারকেই দায়ী করেছেন ইমরান। পাকিস্তানে সংখ্যালঘুদের নিরাপত্তা নিয়েও নিজের ঢাক নিজে পেটানোর ভঙ্গিতে ইমরান টুইট করেছেন, ‘‘আমি সকলকে সতর্ক করে দিতে চাই, পাকিস্তানে যাঁরা অ-মুসলিম রয়েছেন, তাঁদের জীবন, সম্পত্তি ও ধর্মস্থানের উপর যাঁরা হামলা করতে উদ্যত হবেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে। মনে রাখতে হবে, আমাদের দেশে সংখ্যালঘুরা নাগরিকত্বের সমানাধিকারই পান।’’

ভারত-পাক সম্পর্ক বিশেষজ্ঞদের মতে, ভারতকে হেয় বা কোণঠাসা করার সামান্য সুযোগ পেলে তা ছাড়তে নারাজ পাকিস্তানের নেতা ও মন্ত্রীরা। তাই দিল্লিতে চলতে থাকা হিংসায় উসকানিমূলক মন্তব্য করে ভারতে বসবাসকারী মুসলমানদের ভারত সরকারের বিরুদ্ধে খেপিয়ে তুলতে চেয়েছেন ইমরান। এজন্যই তাঁর এই কৌশলগত মন্তব্য।

অন‌্যদিকে, দিল্লির হিংসার খবর গুরুত্ব দিয়ে ছেপেছে পাকিস্তানের খবরের কাগজগুলি। সেখানে ব্যাখ্যা করা হয়েছে, সংখ্যালঘু মুসলিম মহল্লায় দিল্লির পুলিশ নির্মম অত্যাচার চালাচ্ছে। দিল্লির হিংসার জন্য হিন্দুত্ববাদী সংগঠনগুলিকেই দায়ী করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: রাষ্ট্রসংঘে রোহিঙ্গাদের হয়ে এবার সওয়াল করবেন জর্জ ক্লুনির স্ত্রী আমাল]

Advertisement

Advertisement

Advertisement