১৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  রবিবার ৫ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

এয়ারস্ট্রাইকে রাতের ঘুম উড়েছে ইমরানের, ফের আলোচনার বার্তা পাক প্রধানমন্ত্রীর

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: February 27, 2019 4:45 pm|    Updated: February 27, 2019 4:45 pm

As PAF launches attack Imran harps peace

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: যুদ্ধ কাম্য নয়। যারা যারা যুদ্ধ শুরু করেছে তাদেরই ভুগতে হয়েছে। যুদ্ধের ভয়াবহতা সম্পর্কে অনেকেরই ভুল ধারণা থাকে। বায়ুসেনার প্রত্যাঘাতের পরে ফের শান্তির বার্তা পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের। জানালেন, ভারতের সঙ্গে আলোচনা চান তিনি। কারণ, যুদ্ধ শুরু হলে তাঁর বা নরেন্দ্র মোদির, কারওর পক্ষেই তা নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে না। যুদ্ধের উত্তেজনা কমাতে সুর নরম করলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। এদিন পাক প্রধানমন্ত্রী বলেন, “ইতিহাসে যত যুদ্ধ হয়েছে সব ভুল সিদ্ধান্তের ফলে। যারা যুদ্ধ শুরু করে তারা কেউ জানে না সেই যুদ্ধ কোথায় গিয়ে শেষ হবে। তাই, আমি ভারতকে প্রশ্ন করতে চাই, আপনাদের বা আমাদের কাছে যে অস্ত্র আছে, সেই অস্ত্র থাকা সত্ত্বেও আমরা এই ভুল সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কতটা প্রস্তুত?”

[আকাশপথে ভারত-পাক যুদ্ধবিমানের সংঘাত, নিখোঁজ বায়ুসেনার পাইলট]

এদিন সকালেই নিয়ন্ত্রণরেখা পেরিয়ে ভারতের বায়ুসীমায় প্রবেশ করে পাকিস্তানের F-16। বিদেশ মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, পাক বায়ুসেনা ভারতীয় সামরিক ঘাঁটি লক্ষ্য করে হামলা চালানোর পরিকল্পনা করেছিল। কিন্তু যথাসময়ে ভারত যোগ্য জবাব দিয়েছে। ব্যর্থ হয়েছে পাকিস্তানের কু-উদ্দেশ্য। এরপরই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী শান্তির বার্তা দিলেন। জানিয়ে দিলেন ভারত আলোচনা চাইলে, পাকিস্তান প্রস্তুত। তিনি বলেন, “যদি যুদ্ধ শুরু হয় তাহলে তা আমি বা নরেন্দ্র মোদি নিয়ন্ত্রণ করতে পারব না। আপনারা যদি সন্ত্রাস নিয়ে আলোচনা চান তাহলে আমরা প্রস্তুত। আমাদের বসে আলোচনা করা উচিত।”

[আবারও মুখ পুড়ল পাকিস্তানের, এফ-১৬ যুদ্ধবিমান গুঁড়িয়ে দিল ভারতীয় বায়ুসেনা]

কিন্তু এখানেও প্রশ্ন থেকে যাচ্ছে, ভারত যেখানে সন্ত্রাসবাদীদের গুড়িয়ে দেওয়ার উদ্দেশ্য পাক বায়ুসীমা অতিক্রম করেছিল সেখানে পাকিস্তান সরাসরি হামলা চালালো ভারতীয় সামরিক বাহিনীর উপর। যুদ্ধের অভিসন্ধি যদি নাই থাকবে, তাহলে কেন ভারতীয় সেনার উপর হামলা। কূটনৈতিক মহল বলছে, আসলে একদিকে কাপুরুষের মতো হামলা অন্যদিকে মুখে শান্তির বাণী দিয়ে নিজেদের দ্বিচারিতায় প্রকাশ করে দিচ্ছে পাকিস্তান। আসলে, আন্তর্জাতিক মহলে চাপের জন্যই মুখে শান্তির কথা শোনাচ্ছেন ইমরান। ভারতীয় বায়ুসেনার প্রত্যাঘাতের পর পাকিস্তানের পাশে দাঁড়ায়নি কোনও দেশই। এমনকী চিন, আমেরিকাও ভারতের পাশে। তাই, খানিকটা বাধ্য হয়েই শান্তির কথা শোনাচ্ছেন ইমরান। কিন্তু আসলে পাকিস্তান যে শান্তি চায় না তা আজ সকালে তাদের কার্যকলাপেই স্পষ্ট হয়ে গিয়েছে।

 

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে