৫ আশ্বিন  ১৪২৬  সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: চলছিল বিয়েবাড়ির অনুষ্ঠান৷ হইচই, খাওয়া-দাওয়া ঠিক যেন উৎসবের মেজাজ৷ কিন্তু মুহূর্তের মধ্যে সব শেষ৷ উৎসবের আনন্দ বদলে গেল বিষাদে৷ আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে শনিবার রাতে এক বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৪০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত শতাধিক। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

[আরও পড়ুন: জেসিকা লাল কাণ্ডের ছায়া, স্যান্ডুইচ দিতে দেরি করায় গুলিবিদ্ধ ওয়েটার]

শনিবার রাতের কাবুলের ওই বিয়েবাড়িতে অন্তত ১০০০জন আমন্ত্রিত ছিলেন৷ বিয়েবাড়িতে সংখ্যালঘু শিয়া হাজারা সম্প্রদায়ের লোকজনই জড়ো হয়েছিলেন। আচমকাই সেখানে প্রচণ্ড শব্দে বিস্ফোরণ হয়৷ বেশিরভাগ আমন্ত্রিতই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন৷ আতঙ্কে দৌড়াদৌড়িও শুরু করেন অনেকেই৷ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় উদ্ধায় উদ্ধারকারী দল৷ জখম আমন্ত্রিতদের উদ্ধার করে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷ চিকিৎসকরা প্রথমেই জানিয়ে দেন কুড়িজন মারা গিয়েছেন৷ এরপর একে একে মৃত্যুর খবর আসতে থাকে৷ শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী মোট ৪০জনের মৃত্যু হয়েছে৷ আহতও হয়েছেন অন্তত শতাধিক৷ তাঁদের প্রত্যেকের অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক৷ মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলেই আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

[আরও পড়ুন: ‘Neighbour First’ নীতিতে জোর, দু’দিনের ভুটান সফরে প্রধানমন্ত্রী মোদি] 

বিয়েবাড়ির ভিতর ভিতর কীভাবে এমন বিস্ফোরণ ঘটল, তা নিয়ে ধন্দে পুলিশ। আফগানিস্তানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের মুখপাত্র নুসরত রহিমি বলেন, ‘‘বিস্ফোরণের কারণ নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। তালিবান ও ইসলামিক স্টেট জড়িত কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে৷’’ তাঁর ধারণা, কাবুলে সক্রিয় এই দুই জঙ্গি সংগঠনের সদস্যরাই হয়তো বিস্ফোরণের ঘটনায় জড়িয়ে থাকতে পারে। এর আগে গত ৭ আগস্ট কাবুলে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে৷ আফগানের নিরাপত্তারক্ষীদের লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়া হয়৷ ওই নাশকতায় প্রাণ গিয়েছিল কমপক্ষে ১৪ জনের। সেই ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও বিয়েবাড়িতে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনায় আতঙ্কিত প্রায় সকলেই৷

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং