২৬ আষাঢ়  ১৪২৭  শনিবার ১১ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

গরিব দেশগুলির করোনা মুক্তিই লক্ষ্য, ভ্যাকসিনের ডোজ পাঠাতে চান বিল গেটস

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: June 5, 2020 10:19 pm|    Updated: June 5, 2020 10:19 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: প্রতিষেধকের অভাবে দরিদ্র দেশের মানুষদের করোনায় আক্রান্ত হয়ে মরতে দিতে চান না মাইক্রোসফট কর্তা (Microsoft) বিল গেটস (Bill Gates)। করোনার ভ্যাকসিন প্রস্তুতির পর তা বিশ্বের দরিদ্র দেশগুলির কাছে পৌঁছে দিতে চান তিনি। এই মর্মে বিশ্বের সবকটি দেশের গবেষণা সংস্থাগুলিকে কোটি কোটি প্রতিষেধকের ডোজ তৈরি করার জন্যও খরচ দিতে চায় তাঁর ফাউন্ডেশন।

সর্বদাই অসহায়ের সহায় হয়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন মাইক্রোসফট কর্তা। তাই করোনা আবহেও তার অন্যথা হল না। ইতিমধ্যেই করোনার প্রতিষেধক নির্মাণে গবেষণায় বিপুল পরিমাণে অর্থ দিয়ে সাহায্য করছেন তিনি। তবে এখানেই নিজেকে সীমাবদ্ধ করে রাখতে চান না। প্রতিষেধক নির্মিত হলে তা ছড়িয়ে দিতে চান বিশ্বের দরিদ্র দেশবাসীর মধ্যে। সেক্ষেত্রে প্রয়োজনে অর্থ বিনিয়োগ করতেও পিছপা হবে না তাঁর সংস্থা মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন (Melinda Gates Foundation)। কোভিড ভ্যাকসিন তৈরি করতে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন সংস্থাকে আর্থিক সাহায্য করছে বিল ও তাঁর সংস্থা। পেনসালিভানিয়ার বায়োটেক ফার্ম ইনোভিও ফার্মাসিউটিক্যালসের ভ্যাকসিন গবেষণাতেও সামিল তিনি।

[আরও পড়ুন:করোনা আক্রান্ত অন্তঃসত্ত্বা স্বাস্থ্যকর্মী, পাশে দাঁড়াল না কেউ, বাড়ির বাইরে বিক্ষোভ প্রতিবেশীদের]

জানা গিয়েছে, এই ফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানির করোনা ভ্যাকসিন গবেষণার কাছে যাবতীয় আর্থিক অনুদান দিয়েছেন বিল গেটস ও তার সংস্থা মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। এই কর্মযজ্ঞে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে কোয়ালিশন ফর এপিডেমিক প্রিপেয়ার্ডনেস ইনোভেশনসও। গ্লোবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (Gavi)-র সঙ্গে যৌথ উদ্যোগে বিশ্বের নানা দেশে ভ্যাকসিনের ডোজ পৌঁছে দেওয়ার জন্য আগাম পরিকল্পনাও করে রেখেছেন বিল গেটস। কোন দেশ ভ্যাকসিনের গবেষণায় কতদূর এগোল তা জানতে প্রতিনিয়ত রাষ্ট্রপ্রধান বা সেই সব দেশের চিফ মেডিক্যাল অফিসারদের সঙ্গে আলোচনা করছেন মাইক্রোসফট কর্তা। সম্প্রতি ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন ও জার্মান চান্সেলর অ্যাঞ্জেলা মার্কেলের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে কোভিড ভ্যাকসিনের গবেষণা নিয়ে আলোচনা করেন তিনি।

[আরও পড়ুন:২১ দিন পর কেটেছে বন্দিদশা, আবাসিকদের করোনা মুক্তির সেলিব্রেশনে স্বাস্থ্যবিধির দফারফা]

বিল গেটস জানান, “এশিয়া, ইউরোপ, আমেরিকার বিভিন্ন কোম্পানির সঙ্গে যোগাযোগ করবে আমাদের ফাউন্ডেশন। বছরে ১০০ কোটি বা ২০০ কোটি ভ্যাকসিনের ডোজ যদি তৈরি করা যায়, তাহলে কোভিড আক্রান্ত দেশগুলিতে দ্রুত সেই ডোজ পৌঁছে দেওয়া হবে। আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া দেশগুলির জন্য ভ্যাকসিন কিনবে মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন। Gavi-র ইমিউনাইজেশন প্রোগ্রামের মাধ্যমে ভ্যাকসিনের ডোজ পৌঁছে বিশ্বের দেশে অর্থনৈতিকভাবে দুর্বল দেশগুলিতে।” বিশ্বের এই ধনী ব্যক্তির কথায়, শুধুমাত্র একটি দেশকে রোগমুক্ত করে নয়, সবকটি দেশকেই এই মহামারীর বিরুদ্ধে একত্রে লড়াই করার আহ্বান জানিয়েছেন তিনি।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement