BREAKING NEWS

১২ আশ্বিন  ১৪২৭  মঙ্গলবার ২৯ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

এবার আমাজনের ইয়োনামামি উপজাতির একজনের শরীরে মিলল COVID-19 ভাইরাস

Published by: Sandipta Bhanja |    Posted: April 10, 2020 11:45 am|    Updated: April 10, 2020 2:31 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সোশ্যাল ডিসট্যান্সিংও ব্যর্থ! এবার COVID-19 ভাইরাস মিলল ব্রাজিলের আমাজন অরণ্যে বাস করা ইয়ানোমামি উপজাতির এক জনের শরীরে। যে ঘটনায় হতবাক ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রক।

ইয়োনামামি উপজাতির আক্রান্তের বয়স ১৫। আপাতত উত্তর ব্রাজিলের বোরাইমার রাজধানী বোয়া ভিস্তার এক হাসপাতালে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছে সে। প্রসঙ্গত, ব্রাজিলে প্রায় ৮ লক্ষ আদিবাসীদের বসবাস। যেখানে কমপক্ষে ৩০০টি ভিন্ন উপজাতির মানুষের বসবাস। ইয়ানোমামিরা সংখ্যায় প্রায় ২৭ হাজার। যারা মূলত ‘ফেস পেইন্টিং’ এবং ‘পিয়ারসিং’-এর জন্য বিখ্যাত। ইয়ানোমামিরা বহির্বিশ্ব থেকে সেভাবে বিচ্ছিন্ন থেকেও কীভাবে এই সংক্রমণ ঘটল, চিন্তায় ব্রাজিল স্বাস্থ্য মন্ত্রক। ইতিমধ্যেই তাদের সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে। এই মারণ ভাইরাসে যে ভয়ংকরভাবে প্রভাবিত হতে পারে এই উপজাতি, সেকথাও জানানো হয়েছে ব্রাজিলের স্বাস্থ্য মন্ত্রকের তরফে।

[আরও পড়ুন: করোনা যুদ্ধে জিততে সাহসই মূল চাবিকাঠি, মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে বললেন ১০৩ বছরের বৃদ্ধা]

ব্রাজিলের স্বাস্থ্যমন্ত্রী লুই হেনরিক ম্যানডেট্টা জানিয়েছেন, বুধবার ইয়ানোমামির একজনের করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার খবর প্রকাশ্যে এসেছে। যা ভীষণই উদ্বেগজনক। উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি এও বলেন যে, “বহির্বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন থাকা আদিবাসীদের নিয়ে আরও সতর্ক হতে হবে। কারণ, এতে আমাজন অরণ্যে বাস করা প্রায় বহু সংখ্যক আদিবাসীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়তে পারে সংক্রমণ।”  

উল্লেখ্য গত সপ্তাহেই কোকোমা উপজাতির এক তরুণীর শরীরে মিলেছিল COVID-19 ভাইরাস। আমাজনের গহীনে বাস করা উপজাতিদের মধ্যে বর্তমানে ৭ জন করোনা পজিটিভ। এদের মধ্যে প্রথমজন হলেন কোকোমা উপজাতির ২০ বছর বয়সি ওই তরুণী। ব্রাজিল-কলম্বিয়া সীমান্তের কাছাকাছি স্যান্টো আন্তোনিও দো ইকা জেলায় একটি আদিবাসী গ্রাম রয়েছে। ওই গ্রামেরই বাসিন্দা তরুণীটি। ওই গ্রামে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ বাস করে বলে জানা গিয়েছে। ব্রাজিলের বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে, ওই আদিবাসী তরুণী স্বাস্থ্যকর্মী হিসাবে কাজ করেন। সেখান থেকেই কোনওরকম সংক্রমণ ঘটেছে কিনা, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

[আরও পড়ুন: ‘যেন মৃত্যুর মুখ থেকে ফিরে এলাম’, করোনার দিনগুলির বর্ণনা দিলেন লন্ডনবাসী ভারতীয়]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement