BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

অস্ট্রেলিয়ার স্মৃতি উসকে দিল ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানল, ভিনদেশের সাহায্য চাইলেন গভর্নর

Published by: Sucheta Sengupta |    Posted: August 22, 2020 1:48 pm|    Updated: August 22, 2020 1:58 pm

California Wildfire: Governor asks help from Australia

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অস্ট্রেলিয়ার দাবানলের স্মৃতি উসকে দিচ্ছে ক্যালিফোর্নিয়ার (California) বনাঞ্চলের দাউদাউ আগুন। মার্কিন মুলুকের অন্যতম উষ্ণ এলাকা হওয়ায় আগুনের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ছে দ্রুত। আশেপাশের প্রায় ২ লক্ষ মানুষকে নিরাপদে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার পরও স্বস্তি নেই। দাবানল নিয়ন্ত্রণে কাজ করছেন ১২ হাজার দমকল কর্মী। কিন্তু পরিস্থিতি মোকাবিলা এতটাই কঠিন হচ্ছে যে এবার অস্ট্রেলিয়ার সাহায্য চাইলেন ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর। পাশাপাশি ট্রাম্প প্রশাসনের কাছে তাঁর আরজি, এই দুর্যোগকে জাতীয় বিপর্যয় ঘোষণা করা হোক।

California-wildfire1

গত বছরের মাঝামাঝি সময়ে অস্ট্রেলিয়ার (Australia) ভিক্টোরিয়া, নিউ সাউথ ওয়েলসের বনাঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছিল ভয়াবহ দাবানল। কত প্রাণী যে তাতে ঝলসে গিয়েছে, তার হিসেব বোধহয় এখনও ঠিকঠাক করে ওঠা সম্ভব হয়নি। অগ্নিতাপ অগ্রাহ্য করেই জঙ্গল থেকে কোয়ালা, ক্যাঙ্গারু-সহ অনেক প্রাণীকে উদ্ধার করে আনার সাহস দেখিয়েছিলেন বন্যপ্রাণপ্রেমীরা। মাসের পর মাস কাজ করেও, তা নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি। শেষে প্রবল বৃষ্টিই নিভিয়ে দিয়েছিল দাবানল। সেই কঠিন পরিস্থিতিতে দমকল কর্মীদের অভিজ্ঞতা এবার কাজে লাগাতে চাইছেন ক্যালিফোর্নিয়া প্রশাসন। কারণ, এখানকার পরিস্থিতিও ক্রমশ নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যাচ্ছে। তার ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর গ্যাভিন নিউসম অস্ট্রেলিয়ার কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন। সাহায্য চাওয়া হয়েছে কানাডার কাছেও।

[আরও পড়ুন: দক্ষিণ-চিন সাগরে মোতায়েন চিনা বোমারু বিমান, ভারতকে সতর্ক করল ভিয়েতনাম]

খুব কম সময়ের মধ্যে ক্যালিফোর্নিয়ার দাবানল ভয়াবহ আকার নিয়েছে। দমকল কর্মীরা জানাচ্ছেন, শুধুমাত্র শুক্রবারই জঙ্গলের এতগুলো জায়গায় নতুন করে আগুন লেগেছে যে আরও বহু মানুষকে সরিয়ে দিতে হয়েছে জঙ্গল লাগোয়া এলাকা থেকে। ইতিমধ্যে ৬ জনের প্রাণহানিও ঘটেছে। শুকনো পাতাঘেরা জঙ্গল আগুন ছড়িয়ে পড়ার পক্ষে একেবারে আদর্শ পরিবেশ। তাতেই বিপদ দ্বিগুণ হয়েছে। টেক্সাস, নিউ মেক্সিকো, সান ফ্রান্সিসকো-সহ একাধিক জায়গা থেকে দমকল কর্মী এবং ইঞ্জিন এনেও তা নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। পাশাপাশি এই দাবানলের কারণে ক্যালিফোর্নিয়ার তাপমাত্রার পারদ চড়েছে অনেকটাই। গত সপ্তাহেই তা ৫৪ ডিগ্রি ছাড়িয়ে রেকর্ড তৈরি করেছিল। তার নেপথ্যে যে এই দাবানল, তা বোঝা গিয়েছে পরে।

[আরও পড়ুন: অক্টোবরের মধ্যেই বাজারে আসবে করোনার ভ্যাকসিন, এবার দাবি মার্কিন সংস্থার]

একে করোনার মারে বিধ্বস্ত মার্কিন মুলুক। এই মুহূর্তে সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি ক্যালিফোর্নিয়াতেই। তারউপর এই দাবানল। জোড়া বিপদের মুখে কার্যত দিশেহারা ক্যালিফোর্নিয়া। সামনে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন। তার আগে এমন বিপর্যয় এবং সাধারণ মানুষের সমস্যা ভোটে প্রভাব ফেলবে বলেই মনে করছে সংশ্লিষ্ট মহলের একাংশ। এখন ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নরের আবেদনে সাড়া দিয়ে অস্ট্রেলিয়া, কানাডা কতটা এগিয়ে আসে, সেটাই দেখার।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে