BREAKING NEWS

২৭ আষাঢ়  ১৪২৭  রবিবার ১২ জুলাই ২০২০ 

Advertisement

হীরাবেনের টিপসেই মেনু, হিউস্টনে মায়ের রান্নার স্বাদ পেলেন প্রধানমন্ত্রী

Published by: Tiyasha Sarkar |    Posted: September 23, 2019 8:52 am|    Updated: September 23, 2019 8:52 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: হিউস্টনে বসেও যাতে মায়ের হাতের রান্নার কথা মনে পড়ে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির। প্রবাসী ভারতীয়দের সঙ্গে আলাপচারিতার ফাঁকে যখন তাঁর জন‌্য বানানো বিশেষ ‘মোদি থালি’ চেখে দেখবেন প্রধানমন্ত্রী, তখন মা হীরাবেনের যত্ন আত্তি আর ‘ঘর কা খানা’র কথা মনে করতে যেন বাধ‌্য হন তিনি। এই কথা ভেবেই হিউস্টনে প্রধানমন্ত্রীর জন‌্য মেনু প্ল‌্যান করতে বসে স্বয়ং হীরাবেন মোদির থেকেই গোপন টিপস নিয়েছেন শেফ কিরণ ভার্মা। ফলে বিদেশে বসেও মায়ের সাজানো পঞ্চব‌্যঞ্জনের আস্বাদই পেয়েছেন মোদি। 

[আরও পড়ুন:ভারতে আক্রমণ চালাতে মরিয়া জইশ, ফের বালাকোটে শুরু জঙ্গি প্রশিক্ষণ]

দেশের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সম্মানে কিরণ তৈরি করেছেন ‘মোদি থালি’। যাতে সাজানো খাবার বেশ কয়েকটি ভাগে খেতে হবে প্রধানমন্ত্রীকে। দেশি ঘিয়ে তৈরি গাজরের হালুয়া, বাদাম হালুয়া থেকে শুরু করে খিচুড়ি, কচুরি, মেথি থেপলা, ছাস-কি নেই এই মোাদি থালিতে। আর সবই দেশি ঘিয়ে তৈরি। আর এই মেনু বানাতে হিউস্টন নিবাসী ভারতীয় শেফ কিরণ ভার্মা সবচেয়ে বেশি সাহায‌্য পেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর মা হীরাবেন মোদির কাছে। আসলে জন্মদিনে মায়ের সঙ্গে বসে মোদির খাওয়ার ছবি ভাইরাল হয়েছিল সোশ‌্যাল দুনিয়ায়। কিরণ জানিয়েছেন, ওই ছবি দেখেই তিনি মোদির জন‌্য কী খাবার বানাবেন সেই ব‌্যাপারে সিদ্ধান্ত নেন। তাঁর মনে হয়েছিল, জন্মদিনে মায়ের সঙ্গে বসে ছেলে তাঁর মায়ের সাজানো মেনু অনুযায়ীই খাবার খাবেন। সেটাই স্বাভাবিক। আর মা-ও ছেলের জন‌্য সেই সব খাবারই বানাবেন যা ছেলে খেতে সবচেয়ে ভালবাসে। তাই ওই ছবি দেখেই মোদির মেনু চূড়ান্ত করেন ভার্মা। বিদেশের মাটিতে মোদিকে ‘ঘর কা খানা’-র স্বাদ দিতেই এত প্রয়াস।

কিরণ জানিয়েছেন, গুজরাতি খাবারের পাশাপাশি ভারতের বিভিন্ন রাজ্যের বিশেষ পদও থাকছে মেনুতে। মিষ্টি আর নোনতা ছাড়াও আরও অনেক পদ ছিল। যা প্রধানমন্ত্রী মুখে না দেওয়া অবধি জানাতে নারাজ এই প্রবাসী ভারতীয় রাঁধুনী। ওড়িশার মেয়ে কিরণ ভার্মা গত ২১ বছর ধরে হিউস্টন নিবাসী। প্রথাগত শিক্ষা না পেলেও তাঁর রেস্তরাঁর খাবার রীতিমতো চর্চিত হিউস্টনে। তাই সুযোগ পেয়েই দিন রাত পরিশ্রম করে গিয়েছেন তিনি।

[আরও পড়ুন: ‘কাশ্মীরি পণ্ডিতদের রক্ষা করেছেন’, মোদিকে চুমু খেয়ে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ প্রবাসী ভারতীয়র]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement