১৪  আশ্বিন  ১৪২৯  বৃহস্পতিবার ৬ অক্টোবর ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কান্দাহার বিমান অপহরণ কাণ্ডের চক্রীর ‘ঢাল’ চিন! রাষ্ট্রসংঘে জইশ জঙ্গির পাশে বেজিং

Published by: Biswadip Dey |    Posted: August 11, 2022 3:24 pm|    Updated: August 11, 2022 3:24 pm

China blocks proposal by US and India to blacklist JeM chief Masood Azhar's brother by UN। Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: কান্দাহার বিমান অপহরণ কাণ্ডের মূল চক্রী আব্দুল রউফ আজহারকে রাষ্ট্রসংঘে নিষিদ্ধ করার প্রস্তাবের বিরোধিতা করল চিন। ভারত ও আমেরিকার যৌথ প্রস্তাব ছিল জইশ-ই-মহম্মদ জঙ্গিগোষ্ঠীর শীর্ষনেতা মাসুদ আজহারের (Masood Azhar) ভাইকে নিষিদ্ধ করা হোক রাষ্ট্রসংঘে (UN)। কিন্তু সেই প্রস্তাবে বাধ সেধে পাক জঙ্গিদের ‘ঢাল’ হয়ে ওঠার ধারা বজায় রাখল বেজিং। মঙ্গলবারই রাষ্ট্রসংঘে নয়াদিল্লির তরফে নাম না নিয়েও শি জিনপিংয়ের দেশকে কটাক্ষ করে বলা হয়, যেভাবে চিন ভয়ংকর জঙ্গি (Terrorist) নেতাদের নিষিদ্ধ করার বিষয়ে বারবার বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তা দুর্ভাগ্যজনক। এরপরই আব্দুল রউফ আজহারকে নিষিদ্ধ করার প্রস্তাবের বিরোধিতা করতে দেখা গেল শি জিনপিং প্রশাসনকে।

কে এই আবদুল রউফ আজহার? ১৯৯৯ সালে কন্দহর বিমান ছিনতাই কাণ্ডের ‘মাস্টারমাইন্ড’ ছিল সে। নিজের দাদা মাসুদ আজহারকে ভারতের কারাগার থেকে ছাড়াতেই এই অপহরণের পরিকল্পনা করেছিল রউফ। ২০০১-এর সংসদ হামলা এবং ২০১৬-য় পাকিস্তানের পাঠানকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলাতেও নাম জড়িয়েছে তার। বছর আটচল্লিশের রউফকে ২০১০ সালে নিষিদ্ধ ঘোষণা করে আমেরিকা।

[আরও পড়ুন: উদয়পুর হিংসায় খুন হওয়া দরজির দোকানের কাছে মহরমের তাজিয়ায় আগুন, নেভাল হিন্দু পরিবার]

বুধবার ভারত ও আমেরিকার তরফে প্রস্তাব দেওয়া হয়, মাসুদ আজহারের ভাইকে ‘আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদী’ হিসেবে ঘোষণা করা হোক। তার সমস্ত সম্পত্তি বাজেয়াপ্ত করে তার গতিবিধির উপরে চাপানো হোক নিষেধাজ্ঞা। সমস্ত সদস্য দেশই এই প্রস্তাবের পক্ষে সায় দিলেও ভেটো প্রদানের ক্ষমতাধারী চিন (China) বাধা দেয়। আর তাই আপাতত মুলতুবি রাখা হয়েছে প্রস্তাবটি।

প্রসঙ্গত, গত জুন মাসে লস্কর-ই-তইবার প্রধান হাফিজ সইদের শ্যালক মক্কিকে নিষিদ্ধ করতে পদক্ষেপ করেছিল ভারত। কিন্তু সেবারও বাধা দেয় চিন। মুম্বই হামলার অন্যতম ষড়যন্ত্রী হাফিজ সইদের সঙ্গে জেহাদি কাজে যুক্ত রয়েছে মক্কি। কাশ্মীর উপত্যকায় পাক জঙ্গিদের অনুপ্রবেশ ও অস্ত্র পাচারে জড়িত রয়েছে সে। তাকে ‘আন্তর্জাতিক জঙ্গি’ ঘোষণার দাবি জানিয়ে প্রস্তাব পেশ করেছিল নয়াদিল্লি ও ওয়াশিংটন। কিন্তু নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য চিনের ভেটোয় সেই প্রস্তাবও পাশ হয়নি।

[আরও পড়ুন: বিহারে মুখ থুবড়ে পড়ল ‘অপারেশন লোটাস’, গোষ্ঠী কোন্দলে জর্জরিত বিজেপির কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব]

মঙ্গলবার রাষ্ট্রসংঘে ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি রুচিরা কম্বোজ মঙ্গলবার এবিষয়ে মুখ খোলেন। নাম না নিয়েও শি জিনপিংয়ের দেশকে কটাক্ষ করে বলা হয়, যেভাবে চিন ভয়ংকর জঙ্গি নেতাদের নিষিদ্ধ করার বিষয়ে বারবার বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে তা দুর্ভাগ্যজনক। এবং এর থেকে চিনের দ্বিচারিতাই স্পষ্ট হয় বলে ইঙ্গিত দেন তিনি। কিন্তু এরপরও বুধবার ফের এক জঙ্গির ‘ঢাল’ হয়ে দাঁড়াল চিন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে