BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

কুখ্যাত মাসুদ আজহারকে ‘জঙ্গি’ ঘোষণার প্রস্তাব বাতিল করবে চিন

Published by: Sangbad Pratidin Digital |    Posted: October 30, 2017 3:54 am|    Updated: October 30, 2017 3:54 am

China set to block Masood Azhar ban at UN

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের ভারতের সামনে ‘চিনের প্রাচীর’। এবারও জঙ্গি মাসুদ আজহারের পক্ষেই সওয়াল বেজিংয়ের। পাক জঙ্গি সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদ প্রধান ও পাঠানকোট হামলার মূলচক্রী মাসুদ আজহারকে ‘আন্তর্জাতিক জঙ্গি’ ঘোষণার প্রশ্নে নিজেদের অবস্থানে অনড় চিন। রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে মাসুদকে জঙ্গি ঘোষণার মার্কিন প্রস্তাবে এবার চিরতরে ইতি টানতে চলেছে বেজিং।

[ভারতকে ড্রোন দিচ্ছে আমেরিকা, প্রবল ক্ষুব্ধ পাকিস্তান]

চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে মাসুদ আজহারকে ‘আন্তর্জাতিক জঙ্গি’ ঘোষণার করার জন্য রাষ্ট্রসংঘে প্রস্তাব পেশ করে আমেরিকা। ওই প্রস্তাবকে সমর্থন করে ফ্রান্স ও ব্রিটেন-সহ একাধিক দেশ। এরপরই নিরাপত্তা পরিষদে ওই প্রস্তাব ‘টেকনিক্যাল হোল্ডের’ মাধ্যমে আটকে দেয় লালচিন। আগস্ট মাসে সেই মেয়াদ ফুরোলে ফের একইভাবে তিন মাসের জন্য প্রস্তাবটি হিমঘরে পাঠিয়ে দেয় বেজিং। সূত্রের খবর, এবার নিরাপত্তা পরিষদে ‘ভেটো’ ব্যবহার করে পাকাপাকিভাবে ওই প্রস্তাব বাতিল করে দিতে চলেছে চিন।

রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য হিসেবে যে কোনও প্রস্তাবে ‘ভেটো’ জারি করার ক্ষমতা রয়েছে চিনের। আর নিরাপত্তা পরিষদে পেশ  হওয়া কোনও প্রস্তাবে যদি কোনও স্থায়ী সদস্য রাষ্ট্র ‘ভেটো’ জারি করে, তাহলে সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্য দেশের সমর্থন থাকলেও, সংশ্লিষ্ট প্রস্তাবটি কার্যকর করা যায় না। আর এই ‘অ্যাডভান্টেজ’কে কাজে লাগিয়েই বারবার কুখ্যাত জঙ্গি মাসুদ আজহারকে আড়াল করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে চিন। বস্তুত, গত বছর মাসুদ আজহারকে ‘আন্তর্জাতিক জঙ্গি’র ঘোষণার প্রস্তাবে সহমত হযেছিল নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য ১৪টি দেশ। কিন্তু একমাত্র চিনের আপত্তিতে সেবার মাসুদকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি বলে ঘোষণা করতে পারেনি নিরাপত্তা পরিষদ।

ভারতের বিরুদ্ধে ছায়াযুদ্ধ চালাতে বরাবরই মাসুদ আজহারকে ব্যবহার করে এসেছে পাকিস্তান। পাঠানকোট হামলার মতো একাধিক সন্ত্রাসবাদী হানার নেপথ্যে রয়েছে ওই জঙ্গি। আর তাই ভারতকে চাপে ফেলতে মাসুদকে প্রত্যক্ষভাবে সমর্থন জানাচ্ছে চিন। বিশেষজ্ঞদের অনুমান, ডোকলামে মুখ পুড়িয়ে এভাবেই ‘গায়ের জ্বালা’ মেটাচ্ছে বেজিং। তবে সন্ত্রাস নিয়ে চিনের দ্বিচারিতা ভারতীয় কূটনীতির পক্ষে বড়সড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্রকাশ্যে বারবার দিল্লির সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করার পক্ষে সওয়াল করলে বাস্তবে সন্ত্রাসবাদ নিয়ে ভারতের বিপক্ষেই যেন অবস্থান করছে ড্রাগন।

[যুদ্ধের জন্য তৈরি থাকুন, জিনপিংয়ের নির্দেশ লালফৌজকে]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে