BREAKING NEWS

২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

পুলওয়ামা ইস্যুতে প্রবল চাপে পাকিস্তান, এবার মুখ ফেরাল ‘বন্ধু’ চিন

Published by: Tanujit Das |    Posted: February 22, 2019 10:58 am|    Updated: February 22, 2019 12:34 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: তবে কি বন্ধু পাকিস্তানের প্রতি মোহভঙ্গ হচ্ছে চিনের? তবে কি পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চাইছে বেজিং? পুলওয়ামা হামলার সমালোচনা করে গতকালই নিন্দা প্রস্তাব পাশ করেছে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ৷ যাতে জঙ্গি মাসুদ আজহারের সংগঠন জইশ-ই-মহম্মদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও বলা হয়েছে৷ নিরাপত্তা পরিষদের সমস্ত সদস্য দেশ স্বাক্ষর করেছে সেই প্রস্তাবে৷ এবং আশ্চর্যজনক ভাবে উক্ত প্রস্তাবে স্বাক্ষর করেছে চিনও৷ যারা এতদিন জঙ্গি মাসুদকে কালো তালিকাভুক্ত করার দাবি বারবার খারিজ করে দিয়েছে৷ বৃহস্পতিবার তাঁরাই নিন্দা প্রস্তাবে স্বাক্ষর করায়, নয়া গুঞ্জন শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে৷

[চাপের মুখে নতিস্বীকার, হাফিজের সংগঠনকে নিষিদ্ধ করল পাকিস্তান  ]

জানা গিয়েছে, রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ পুলওয়ামায় জঙ্গি হানাকে ‘ঘৃণ্য ও কাপুরুষোচিত’ বলে অভিহিত করেছে৷ শহিদ জওয়ান ও তাঁদের পরিবারের প্রতি শোকজ্ঞাপন  করেছে প্রত্যেকটি সদস্য দেশ৷ নিন্দা প্রস্তাবে বলা হয়েছে, ‘সন্ত্রাসবাদ আন্তর্জাতিক শান্তি ও সম্প্রীতির সবচেয়ে বড় অন্তরায় হয়ে উঠেছে৷ একে এখনই দমন করা প্রয়োজন৷ যেখানে, যখন, যেভাবে সন্ত্রাসবাদী কার্যকলাপ মাথা চাড়া দেবে, সঙ্গে সঙ্গে তাকে দমন করতে হবে৷’ পাশাপাশি, যে বা যারা বিভিন্ন ভাবে সন্ত্রাসবাদকে মদত দিচ্ছে তাঁদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি উঠেছে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে৷ যা সরাসরি পাকিস্তানের দিকেই ইঙ্গিত করে বলে ওয়াকিবহাল মহলের মত৷ কারণ দিনের পর দিন ইসলামাবাদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসবাদে মদত দেওয়ার অভিযোগে সরব হতে দেখা গিয়েছে ভারত, আমেরিকার মতো দেশগুলিকে৷ সূত্রের খবর, এই নিন্দা প্রস্তাবে স্বাক্ষর করেছে পরিষদের সমস্ত দেশ৷ এমনকী পাকিস্তানের সমস্ত ঋতুর বন্ধু চিনও৷ আর এরপর থেকেই নয়া গুঞ্জন শুরু হয়েছে আন্তর্জাতিক মহলে৷ কারণ, পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার পরেও জঙ্গি মাসুদ আজহারকে কালো তালিকাভুক্ত করার প্রস্তাব দিয়েছিল নয়াদিল্লি৷ কিন্তু পাকিস্তানের পাশে দাঁড়িয়ে সেই প্রস্তাব খারিজ করে দিয়েছিল বেজিং৷ কিন্তু এবার তাঁদের ভোলবদলে স্বভাবতই অবাক আন্তর্জাতিক মহল৷ প্রশ্ন উঠছে, তবে কি আর ইসলামাবাদের পাশে নেই বেজিং?

[এবার নিজের ঘরেই বেআব্রু ইমরান, পুলওয়ামা নিয়ে তোপ জারদারির  ]

প্রসঙ্গত, ২০১৬-র পাঠানকোট হামলার পর থেকেই মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণা করার চেষ্টা চালাচ্ছে ভারত৷ নয়াদিল্লির পাশে দাঁড়িয়ে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদে এই বিষয়ক প্রস্তাব পেশ করে আমেরিকা৷ এই প্রস্তাবে ব্রিটেন, ফ্রান্স ও রাশিয়া সহমত পোষণ করলেও, তা মেনে নেয়নি চিন৷ রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য হিসেবে যেকোনও প্রস্তাবে ভেটো জারি করার ক্ষমতা রয়েছে চিনের। সেই বিশেষ ক্ষমতা প্রয়োগ করেই বারবার প্রস্তাব খারিজ করে দেয় পাকিস্তানের সব ঋতুর বন্ধু চিন৷ এবং মাসুদ ইস্যুকে পুরোপুরি হিমঘরে পাঠিয়ে দেয় বেজিং৷ নিজেদের ক্ষমতাকে কাজে লাগিয়েই বারবারই কুখ্যাত জঙ্গি মাসুদ আজহারকে এখনও আড়াল করার চেষ্টা করে শি জিনপিং প্রশাসন। ফলে নিরাপত্তা পরিষদের ১৪টি সদস্য রাষ্ট্র মাসুদ আজহারকে আন্তর্জাতিক জঙ্গি ঘোষণার প্রস্তাবে একমত হলেও, তা কার্যকর করা যায়নি৷

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement