BREAKING NEWS

০৯ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ২৫ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

দেউলিয়া পাকিস্তানের পাশে চিন, ইমরানকে আর্থিক সাহায্যের আশ্বাস জিনপিংয়ের

Published by: Tanujit Das |    Posted: November 3, 2018 12:15 pm|    Updated: November 3, 2018 12:15 pm

China stands by bankrupt Pakistan, offers aid

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: অর্থাভাবে দুর্দশাগ্রস্ত পাকিস্তানকে পর্যাপ্ত পরিমাণ আর্থিক সাহায্য করার প্রতিশ্রুতি দিল চিন। বেজিং সফরে গিয়েছেন পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সেখানে চিনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে একান্তে বৈঠক করেন তিনি৷ সেই বৈঠকেই বিষয়টি চূড়ান্ত হয়েছে বলে সূত্রের খবর৷

[নিজের বাড়িতেই খুন ‘ফাদার অফ তালিবান’, উত্তপ্ত ইসলামাবাদ]

শুক্রবার চিনের পার্লামেন্ট ভবন দ্য গ্রেট হল অফ পিপল-এ বক্তৃতা দেন পাক প্রধানমন্ত্রী। সেখানে ইমরান বলেন, মাত্র দুই মাস তিনি ক্ষমতায় এসেছেন। পাকিস্তানের ভাণ্ডারে বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয় এখন এক ধাক্কায় ৪২ শতাংশ কমে গিয়েছে। পাকিস্তানের ভাণ্ডারে বর্তমানে বিদেশি মুদ্রার সঞ্চয় ৭৮০ কোটি ডলারে গিয়ে দাঁড়িয়েছে। পাকিস্তানকে জরুরিভিত্তিতে ৬০০ কোটি ডলার আর্থিক সাহায্য তথা ‘উদ্ধার প্যাকেজ’ দেবে বলে কথা দিয়েছে সৌদি আরব। কিন্তু এই পরিমাণ অর্থ কিছুই নয়। পাকিস্তানের বেহাল এবং প্রায় দেউলিয়া দশা চলছে। এই অবস্থায় আন্তর্জাতিক অর্থ ভাণ্ডারের কাছে সাহায্য চাওয়া হয়েছে। একইসঙ্গে পাকিস্তান চিনের কাছেও আর্থিক সাহায্য চাইছে। জবাবে জিনপিং বলেন, পাকিস্তান চিনের অভিন্ন হৃদয় বন্ধু। তাই তাদের আর্থিক দুরাবস্থা দূর করতে চিন যথাসাধ্য সাহায্য করবে।

[নির্বাচনে চিন-রাশিয়া-ইরানের হস্তক্ষেপের আশঙ্কা, প্রত্যাঘাতের হুঁশিয়ারি ট্রাম্পের]

কিন্তু চিন কীভাবে কতটা পরিমাণ সাহায্য করবে তা এদিন ভেঙে বলেননি জিনপিং। চিনা বিদেশমন্ত্রী ওয়াং ই বলেছেন, চিন তার সাধ্যমতো সাহায্য করবে পাকিস্তানকে। চিন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডর নির্মাণে, পাকিস্তানে পরিকাঠামোগত ও নির্মাণ শিল্পে বিনিয়োগ বাড়িয়ে চিন সাহায্য করবে। তবে চিনা বিদেশমন্ত্রক ও পাকিস্তানি অর্থমন্ত্রকের বিশ্বস্ত সূত্রে খবর, তিনদফায় চিন পাকিস্তানকে ৬০০ কোটি ডলার আর্থিক সাহায্য দেবে। এর মধ্যে ১৫০ কোটি ডলার দেবে ঋণ হিসাবে। চড়া সুদে সেই ঋণ দেওয়া হবে। ৩০০ কোটি ডলার দেওয়া হবে পাক-চিন অর্থনৈতিক করিডর নির্মাণের জন্য। বাকি অর্থ দেওয়া হবে সাহায্য হিসাবে। আন্তর্জাতিক বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সৌদি আরব, চিন, আইএমএফের কাছে হাত পেতে আর্থিক দুর্দশা থেকে উদ্ধার পেতে চাইছেন ইমরান। কিন্তু পাকিস্তানের আর্থিক পরিস্থিতি এতটাই শোচনীয় যে পর্যাপ্ত আর্থিক সাহায্য পেলেও ইমরানের সরকারের পক্ষে ঘুরে দাঁড়ানো কঠিন।

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে