BREAKING NEWS

৮ অগ্রহায়ণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ২৬ নভেম্বর ২০২০ 

Advertisement

ইসলাম ধর্মের সমালোচনার জের, পাকিস্তানে খুন খ্রিস্টান মা-ছেলে

Published by: Paramita Paul |    Posted: November 11, 2020 3:52 pm|    Updated: November 11, 2020 3:52 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: পাকিস্তানে খুন হলেন খ্রিস্টান ধর্মালম্বী মা ও ছেলে। ইসলামবিরোধী কথা বলায় প্রতিবেশীরাই তাঁদের খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ। যদিও পুলিশ সে কথা মানতে চায়নি। পাকিস্তানে (Pakistan) কেমন আছেন হিন্দু ও খ্রিস্টানরা, এই ঘটনা তা আরও একবার স্পষ্ট করে দিল বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল।

সোমবার পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের হুসেন কঠোর গ্রামে ইয়াসমিন মসিহ ও তাঁর ছেলে উসমান মসিহকে আক্রমণ করে প্রতিবেশীরা। গুলি করে মা-ছেলেকে খুন করা হয়। অভিযোগ, তাঁরা ইসলাম (Islam) ধর্মের সমালোচনা করেছিলেন। তাই তাদের উপর হামলা চালায় প্রতিবেশীরা। ইয়াসমিনের স্বামী শাব্বির মসিহর অভিযোগ করেছেন, প্রতিবেশী হুসেন শকুরই খুন করেছে তাঁর স্ত্রী ও ছেলেকে।

[আরও পড়ুন : প্রশ্নের মুখে পাকিস্তানি পাইলটদের যোগ্যতা, ১৮৮ দেশে নিষিদ্ধ হতে পারে পাক বিমান]

পুলিশি অভিযোগ ইসলাম বিরোধী মন্তব্যের উল্লেখ নেই। সেখানে ব্যক্তিগত শত্রুতাকে খুনের কারণ হিসেবে দেখানো হয়েছে। পুলিশের দাবি, গুজরানওয়ালা জেলার আহমেদ নগর এলাকার বাসিন্দা ইয়াসমিনের সঙ্গে বিবাদ বাঁধে প্রতিবেশী হুসেন শকুরের মা ইতরাত বিবির। রাস্তা সাফাই নিয়ে অশান্তির জেরেই ব্যক্তিগত শত্রুতা তৈরি হয়েছিল।

মৃতার স্বামী শাব্বির মসিহর অভিযোগ, কয়েক মাস আগে রাস্তা সাফ করা নিয়ে ইয়াসমিন ও ইতরাত বিবির মধ্যে বচসা হয়েছিল। সেই অশান্তি জের টেনে সোমবার ফের বিবাদে জড়িয়ে পড়েন ইয়াসমিন ও ইতরাত। ঝগড়ার পারদ চড়লে ঘর থেকে আগ্নেয়াস্ত্র বের করে ইয়াসমিনের দিকে গুলি ছোঁড়ে হুসেন শকুর। মাকে বাঁচাতে এসে গুলিবিদ্ধ হয় উসমানও। যদিও পাক সংবাদমাধ্যমের দাবি, আততায়ী ও তার মা ভেবেছি্ল ইয়াসমিন ও তার ছেলে ইসলামের সমালোচনা করছিলেন। তাই তাদের গুলি করে।

[আরও পড়ুন : ভারতের দৃঢ়তায় চূর্ণ পাক সেনার মনোবল! চাঙ্গা করতে সীমান্ত পরিদর্শনে পাক সেনাপ্রধান]

উল্লেখ্য, পাকিস্তানে একাধিক খ্রিস্টান ধর্মালম্বীদের উপর সম্প্রতি হামলার ঘটনা সামনে এসেছে। কিছুদিন আগে এক খ্রিস্টান নাবালিকাকে জোর বিয়ে করার অভিযোগ ওঠে এক প্রৌঢ়ের বিরুদ্ধে। এই সমস্ত ঘটনার প্রেক্ষিতে ভারত-সহ একাধিক দেশের অভিযোগ, পাকিস্তানে বসবাসকারী সংখ্যালঘুদের উপর বিভিন্ন সময় অত্যাচার করা হচ্ছে। 

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement