২১ শ্রাবণ  ১৪২৭  বৃহস্পতিবার ৬ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

‘আজীবন সুরক্ষা নাও মিলতে পারে’, করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে সতর্ক করলেন ফাউচি

Published by: Sucheta Chakrabarty |    Posted: July 7, 2020 2:01 pm|    Updated: July 7, 2020 2:01 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: বিশ্বজুড়ে চলছে করোনা টিকা আবিষ্কারের প্রতিযোগিতা। কে কার আগে আবিষ্কার করবে অব্যর্থ দাওয়াই? কার মাথায় উঠবে সেরার শিরোপা? এই নিয়ে চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ। তবে ভ্যাকসিনেই পুরোপুরি নির্মূল হবে না করোনা। এই টিকা কেবলমাত্র সাময়িকের স্বস্তি বলেই জানালেন হোয়াইট হাউসের মুখ্যস্বাস্থ্য উপদেষ্ট অ্যান্টনি ফাউচি (Anthony Faucy)।

করোনার টিকা এলেও সংক্রমণ কতটা রোখা যাবে সেই নিয়ে চিন্তিত বিজ্ঞানীমহল। ইম্পিরিয়াল কলেজ অব লন্ডনের বিজ্ঞানীরা এর মধ্যেই বলেছেন, প্রথম ভ্যাকসিনেই পুরোপুরি নির্মূল হবে না করোনা। শুধুমাত্র সংক্রমণের কারণে জটিল রোগের প্রকোপ কমবে। অনেকটা সেই দিকেই ইঙ্গিত করেছেন মার্কিন ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশিয়াস ডিজিজের ডিরেক্টর এবং হোয়াইট হাউসের স্বাস্থ্য উপদেষ্টা অ্যান্টনি ফাউচি। তাঁর কথায়, “সংক্রমণের এই পর্যায়ে সাময়িক সুরক্ষা দিতে পারবে ভ্যাকসিন। কিন্তু অনন্তকাল ধরে এর প্রভাব টিকবে না। একটা মানুষকে সারাজীবন করোনার সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে পারবে না ভ্যাকসিন। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, ভ্যাকসিনের প্রথম কয়েকটি ডোজে প্রাথমিক রোগ প্রতিরোধ গড়ে উঠবে। কিন্তু করোনার মতো সংক্রামক ভাইরাস জিনের গঠন বদলেই চলেছে। তার বিরুদ্ধে শক্তপোক্ত বর্ম গড়ে তোলার জন্য যে ধরনের রোগ প্রতিরোধ শক্তির দরকার, সেটা এখনই আসবে না মানুষের শরীরে। তাই এখনই বলা যাচ্ছে না যে, ভ্যাকসিন সারা জীবন ধরেই COVID সংক্রমণ থেকে বাঁচাতে পারবে কিনা।”

[আরও পড়ুন:গোষ্ঠী সংক্রমণের আশঙ্কা! করোনা রুখতে এবার বাড়ি বাড়ি গিয়ে পরীক্ষা শুরু গুয়াহাটিতে]

উদাহরণ হিসেবে ফাউচি বলেছেন যে, মিসলস বা হামের টিকা যেমন মানুষকে সারাজীবন সুরক্ষা দেয়, করোনার ভ্যাকসিনে তেমনটা হওয়ার সম্ভাবনা কম। কারণ, সার্স-কভ-২ আরএনএ ভাইরাস বারে বারেই জিনের গঠন বদলাচ্ছে। ফলে ধন্দে পড়তে হচ্ছে বিজ্ঞানীদের। এই ভাইরাসের প্রতিটি স্ট্রেন একে অপরের থেকে আলাদা। যেসব স্ট্রেন থেকে ভ্যাকসিন বানানো হচ্ছে তার বাইরেও করোনার একাধিক সংক্রামক স্ট্রেন রয়েছে। তাই যেকোনও একটি স্ট্রেন থেকে বানানো ভ্যাকসিন সাময়িকের স্বস্তি দেবে, চিরতরের নয়। তবে বিশ্বে করোনার প্রথম ঢেউতেই ত্রাহি ত্রাহি রব উঠেছে। তার উপরে চিন দ্বিতীয় ধাক্কার আশঙ্কা করছে। ইতিমধ্যেই চিনে দ্বিতীয়বার করোনার কবলে পড়েছেন বহু মানুষ। আর আমেরিকায় সংক্রমণের মাত্রা হয়েছে লাগামছাড়া।

[আরও পড়ুন:H-1B`র পর এবার বহু বিদেশি পড়ুয়ার ভিসা বাতিল করল আমেরিকা, ট্রাম্পের সিদ্ধান্তে বিতর্ক]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement