BREAKING NEWS

২০ শ্রাবণ  ১৪২৭  বুধবার ৫ আগস্ট ২০২০ 

Advertisement

অনুমতি দিল না আদালত, থমকে গেল মালিয়াকে ভারতে ফেরানোর প্রক্রিয়া

Published by: Bishakha Pal |    Posted: July 3, 2019 8:59 am|    Updated: July 3, 2019 4:28 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আপাতত স্বস্তি পেলেন বিজয় মালিয়া। লন্ডনের আদালতে জিতলেন তিনি। তাঁকে ভারতের হাতে তুলে দিতে পারবে না ব্রিটিশ সরকার। করা যাবে না মালিয়ার প্রত্যর্পণ। মঙ্গলবার এই সংক্রান্ত মামলার শুনানি ছিল। সেখানে জিতলেন বিজয় মালিয়া। ফলে আইনি জটিলতায় ফের থমকে গেল বিজয় মালিয়াকে ভারতের ফেরানোর প্রক্রিয়া। পলাতক এই শিল্পপতিকে ভারতের কাছে প্রত্যর্পণের নির্দেশে ইতিমধ্যে স্বাক্ষর করেছেন ব্রিটিশ স্বরাষ্ট্রসচিব সাজিদ জাভিদ। এই সিদ্ধান্তে বিরুদ্ধে আবেদনের জন্য মঙ্গলবার মালিয়াকে অনুমতি দিল লন্ডন হাইকোর্ট।

[ আরও পড়ুন: তিন দশকের সর্ববৃহৎ তিমি জালে, আনন্দে মাতোয়ারা জাপানের কুশিরো ]

এর অর্থ এবার লন্ডন হাইকোর্টে বিজয় মালিয়া মামলাটি ফের পূর্ণ শুনানির জন্য উঠবে। প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে মালিয়ার করা আবেদন মৌখিক ভাবে শুনতে রাজি হয়েছিল লন্ডন হাইকোর্ট। সেই অনুসারে ২ জুলাই মঙ্গলবার হাইকোর্টের দুই বিচারপতির এজলাসে বিষয়টি ওঠে। শুনানি চলে চার ঘণ্টা। প্রত্যর্পণের বিরুদ্ধে মালিয়ার পাঁচটি বক্তব্যের মধ্যে অন্তত একটি যুক্তিযুক্ত বলে মনে করেছে ব্রিটিশ আদালত। যে কারণে মামলাটি সাধারণভাবে শুনানির জন্য গ্রহণ করা হয়। ছেলে সিদ্ধার্থ মালিয়াকে নিয়ে এদিন আদালতে হাজির হয়েছিলেন ৬২ বছর বয়সী ভারতীয় শিল্পপতি। ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস হাই কোর্টে এই আপিল মামলার শুনানি হয়েছে। এ নিয়ে নিম্ন আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে হাই কোর্টের দ্বারস্থ হন বহু কোটি টাকার ব্যাংক দুর্নীতিতে অভিযুক্ত ফেরার এই শিল্পপতি।

[ আরও পড়ুন: সিআইএ এজেন্ট ছিলেন স্বৈরাচারী কিমের ভাই নাম, ফাঁস বিস্ফোরক তথ্য ]

সম্প্রতি তাঁর বেশ কিছু দাবি খারিজ করে দেয় ইংল্যান্ডের আদালত। এমনকী একে একে তাঁর সম্পত্তির বেশ কিছু অংশও বাজেয়াপ্ত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরপর ব্যাংক থেকে নেওয়া ঋণের ১০০ শতাংশ টাকাই ফেরত দিতে চান মালিয়া। উল্লেখ্য, কিংফিশার এয়ারলাইন্সের মালিকের বিরুদ্ধে প্রায় ৯ হাজার কোটি টাকার ঋণখেলাপির অভিযোগ রয়েছে। ২০১৬ সালে ভারত ছেড়ে পালিয়ে যান মালিয়া। তখন থেকে তিনি ব্রিটেনেই রয়েছেন। মালিয়ার বিরুদ্ধে একাধিক ঋণখেলাপি এবং প্রতারণা মামলা চলছে ভারতের আদালতগুলিতে। ইংল্যান্ডের আদালতে তাঁর বিরুদ্ধে চলছে প্রত্যার্পণ মামলা। মঙ্গলবার সেই মামলাই নয়া মোড় নিল।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement