BREAKING NEWS

৭ আশ্বিন  ১৪২৭  বুধবার ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

আরও অন্তত ১ বছর! করোনার প্রতিষেধক নিয়ে আশা দেখাতে পারছে না WHO

Published by: Subhajit Mandal |    Posted: April 15, 2020 9:30 am|    Updated: April 15, 2020 9:30 am

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনার প্রতিষেধক নিয়ে এখনও আশার বাণী শোনাতে পারল না বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। এখনও মারক ভাইরাসের ওষুধ তৈরিতে আশানুরূপ অগ্রগতি হয়নি। তাই সুখবর শোনার জন্য আরও অন্তত ১২ মাস অপেক্ষা করতে হবে। এমনটাই আশঙ্কা WHO কর্তাদের।

Corona Virus

[আরও পড়ুন: চিনের প্রতি পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ, WHO’র অনুদান বন্ধ করল ট্রাম্প প্রশাসন]

মঙ্গলবার এক সংবাদ বিবৃতিতে WHO-এর মুখপাত্র মার্গারেট হ্যারিস বলেন, “আমাদের সতিই অন্তত ১২ মাস আগে কোনও কিছু প্রত্যাশা করা ঠিক হবে না।” উল্লেখ্য, দিন কয়েক আগেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা দাবি করে করোনার প্রতিষেধক হিসেবে অন্তত ৭০টি ওষুধ নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চলছে। এদের মধ্যে অন্তত ৩টি ওষুধের অনেকটা অগ্রগতি হয়েছে এবং এই তিনটি ওষুধ আশা জাগাচ্ছে। সবচেয়ে বেশি অগ্রগতি ঘটিয়েছে হংকংয়ের একটি ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থা। বেজিংয়ের একটি সংস্থাও ওষুধ তৈরির কাজে অনেকটা এগিয়ছে বলে জানিয়েছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। WHO-এর সেই বার্তা অনেকের মধ্যেই আশার সঞ্চার করেছিল। কিন্তু এবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা স্পষ্ট করে দিল আরও অন্তত ১ বছরের আগে প্রতিষেধক তৈরি হওয়ার কোনও সম্ভাবনা নেই।

[আরও পড়ুন:  করোনার ছোবলে দেশে মৃত্যুমিছিল, ভারতকে অস্ত্র বিক্রি করতে ব্যতিব্যস্ত আমেরিকা]

এত গেলও টিকার কথা, সংক্রমণ নিয়েও আশঙ্কার কথা শুনিয়েছে WHO। তাঁরা বলছে, ইউরোপের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এখন দুই ধরনেরই খবর আসছে। সার্বিকভাবে ইটালি এবং ফ্রান্সের পাশাপাশি বেশ কয়েকটি দেশের খবর আশাপ্রদ। কিন্তু ব্রিটেন এবং তুরস্কে এখনও প্রবল গতিতে ছড়াচ্ছে এই ভাইরাস। ইউরোপ থেকে আশার খবর শোনা গেলেও আমেরিকার ছবিটা কিন্তু এখনও ভয়াবহ। গোটা বিশ্বের মোট সংক্রমণর ৯০ শতাংশ ইউরোপ ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের। সুতরাং এটা বলে দেওয়া যায় যে করোনা সংক্রমণ এখনও চূড়ান্ত সীমায় পৌঁছায়নি। উল্লেখ্য, সম্প্রতি করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে জমি ফিরে পাচ্ছে ইউরোপের দুই দেশ। ইটালি এবং ফ্রান্সে (France) আগের তুলনায় অনেকটাই কমেছে মৃতের সংখ্যা।

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement