১৬ অগ্রহায়ণ  ১৪২৮  শুক্রবার ৩ ডিসেম্বর ২০২১ 

READ IN APP

Advertisement

বালাকোট হামলায় খতম ৩০৫ জন জঙ্গি: জেনে নিন সত্যিটা

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: January 9, 2021 6:55 pm|    Updated: January 11, 2021 11:02 am

Did ex-Pak diplomat claim 300 casualties in Balakot airstrike? Here's the truth | Sangbad Pratidin

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: দুদিন আগে পাকিস্তানের এক কূটনৈতিকের মন্তব্যকে কেন্দ্র করে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল ভারতের সংবাদমাধ্যমগুলিতে। একটি টিভি চ্যানেলকে সাক্ষাৎকার দেওয়ার সময় আঘা হিলালি নামে ওই পাক কূটনৈতিক বালাকোটে ভারতীয় বায়ুসেনার হানায় ৩০৫ জন জঙ্গি মারা গিয়েছিল বলে নাকি মন্তব্যও করেছিলেন। কিন্তু, ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ওই ভিডিওটি ভুয়ো জানা গেল। জানা গিয়েছে, পাকিস্তানের একটি ইউটিউব চ্যনেলে আঘা হিলালি বালাকোটে হামলা নিয়ে একটি বক্তব্য রেখেছিলেন ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে। কিন্তু সেই কথাও বিকৃত করা হয়েছে। তিনি নাকি আসলে বলেছিলেন, “ভারতের ছোঁড়া বোমা একটি ফুটবল মাঠে পড়েছে। ভারত চেয়েছিল ৩০০ লোককে মারতে।” তাঁর এই মন্তব্যটিকেই বিকৃত করা হয়েছে।

[আরও পড়ুন: ওড়ার কিছুক্ষণ পরই ৫৯ জন যাত্রী নিয়ে নিঁখোজ ইন্দোনেশিয়ার বিমান, ছড়াল চাঞ্চল্য]

২০১৯ সালে জম্মু-কাশ্মীরের পুলওয়ামায় নিরাপত্তা বাহিনীর উপর হামলা চালায় পাক মদতপুষ্ট জঙ্গিরা। অভিশপ্ত ১৪ ফেব্রুয়ারির ওই হামলায় শহিদ হয়েছিলেন ৪০ জন ,সিআরপিএফ জওয়ান। তারপরই ২৬ ফেব্রুয়ারি কাশ্মীর উপত্যকায় নিয়ন্ত্রণরেখা সংলগ্ন পাকিস্তানের বালাকোটে জঙ্গিদের লঞ্চপ্যাডগুলিকে নিশানা করে ভারত। পাক নিরাপত্তা বলয় ভেদ করে জঙ্গিঘাঁটিগুলির উপর প্রচণ্ড বোমাবর্ষণ করে ভারতীয় বায়ুসেনার মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানগুলি। তারপর পাক হানার পালটা দিতে গিয়ে অভিনন্দন বর্তমানের সাহসিকতার কাহিনী আজ ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা। কিন্তু, ওই হামলায় কোনও ক্ষতি হয়নি বলেই দাবি করেছিল পাকিস্তান।

উল্লেখ্য, গত অক্টোবর মাসেই পাক সংসদে দাঁড়িয়ে পাকিস্তান মুসলিম লিগের (নওয়াজ) নেতা সর্দার আয়াজ সাদিক দাবি করেছিলেন যে ভারতের হামলার ভয়ে পা কাঁপছিল পাক সেনাপ্রধান জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার। প্রচণ্ড ঘামছিলেন তিনি। পাক বিদেশমন্ত্রীর অবস্থাও ছিল তথৈবচ। সেবার ভয়ে অভিনন্দন বর্তমানকে (Abhinandan Varthaman) মুক্তি দেয় পাকিস্তান। ইমরান খান প্রশাসন ও পাক সেনার ভারত ভীতি প্রকাশ্যে এনে সংসদে সাদিক জানিয়েছিলেন, ভারতীয় বায়ুসেনার উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমানকে আটক করে রীতিমতো বিপাকে পড়েছিল পাকিস্তান। বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করতে বৈঠকে বসেন পাক বিদেশমন্ত্রী শাহ মাহমুদ কুরেশি, পাক সেনাপ্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া। ওই বৈঠকে বিরোধীদের পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন সাদিক। তবে বৈঠক এড়িয়ে যান পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। সব মিলিয়ে ফের একবার মুখ পুড়ল ইসলামাবাদের।

[আরও পড়ুন: আমেরিকা ও ব্রিটেন থেকে করোনার ভ্যাকসিন আমদানিতে নিষেধাজ্ঞা ইরানের সর্বোচ্চ নেতার]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে