২ কার্তিক  ১৪২৬  রবিবার ২০ অক্টোবর ২০১৯ 

Menu Logo পুজো ২০১৯ মহানগর রাজ্য দেশ ওপার বাংলা বিদেশ খেলা বিনোদন লাইফস্টাইল এছাড়াও বাঁকা কথা ফটো গ্যালারি ভিডিও গ্যালারি ই-পেপার

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মজার মজার কথা বলে মানুষকে হাসানোই তাঁর কাজ। আর জীবনের শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত সে কাজই করে গেলেন তিনি। মঞ্চে পারফর্ম করার সময় আচমকাই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে প্রয়াত হলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত জনপ্রিয় কমেডিয়ান।

[আরও পড়ুন: বৈদ্যুতিন চুল্লি নয়, অন্তিম ইচ্ছা অনুযায়ী CNG-তে শেষকৃত্য হবে শীলা দীক্ষিতের]

গত শুক্রবার এমন মর্মান্তিক ঘটনায় শোকস্তব্ধ দর্শকরা। দুবাইয়ে একটি লাইভ শোয়ে পারফর্ম করছিলেন কমেডিয়ান মঞ্জুনাথ নায়ডু। সেসময় অতিরিক্ত উত্তেজনা নিয়ে কথা বলছিলেন তিনি। আর তখনই কাকতালীয়ভাবে হাঁপাতে হাঁপাতে সামনের বেঞ্চে বসে পড়েন। তারপরই মাটিতে লুটিয়ে পড়েন তিনি। দর্শকদের অনেকেই ভাবেন, এটা হয়তো পারফরম্যান্সেরই একটা অংশ। কারণ উত্তেজনা নিয়েই জোকস বলছিলেন তিনি। মঞ্জুনাথ হয়তো অভিনয় করছেন মাত্র। কিন্তু তিনি না ওঠায় বিষয়টা পরিষ্কার হয়। তাঁর শুশ্রূষার জন্য সঙ্গে সঙ্গে চিকিতসকদের একটি দল মঞ্চে উপস্থিত হয়। ২০ মিনিট ধরে চেষ্টা করেও ৩৬ বছরের মঞ্জুনাথকে রক্ষা করতে পারেননি তাঁরা। পরে হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা জানান, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েই মৃত্যু হয়েছে তাঁর।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত হলেও কমেডিয়ানের জন্ম আবু ধাবিতে। তারপর পরিবারের সঙ্গে দুবাই চলে যান তিনি। বাবা-মা আগেই প্রয়াত হয়েছেন। নিজের বলতে ছিলেন তাঁর ভাই। তাছাড়া শিল্পী-কমেডিয়ানদেরই নিজের পরিবার বলে মনে করতেন মঞ্জুনাথ। তাঁর বন্ধু পেশায় কমেডিয়ান মিকদাদ দোহাদওয়ালা বলেন, “শোয়ে মঞ্জুনাথের পারফরম্যান্সই ছিল সকলের শেষে। মঞ্চে উঠেছিল দর্শকদের হাসাতে। জীবনের সমস্ত গ্লানি দূর করে তাঁদের মুখে হাসি ফোটাতে। বাবা ও পরিবারের কথা বলছিল ও। তারপর দর্শকদের সঙ্গে শেয়ার করছিল কীভাবে ও নিজে উত্তেজনায় ভুগেছে। আর ঠিক এক মিনিট পর সব শেষ।” দর্শকদের হাসির রোলের মধ্যেই বিদায় নিলেন কমেডিয়ান। তাঁর প্রয়াণে শোকাহত বন্ধুমহল।

[আরও পড়ুন:সারমেয়র কাছে হার মানবতার, পথকুকুরের তৎপরতায় নর্দমা থেকে উদ্ধার সদ্যোজাত]

আরও পড়ুন

আরও পড়ুন

ট্রেন্ডিং