BREAKING NEWS

৩ মাঘ  ১৪২৮  সোমবার ১৭ জানুয়ারি ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

‘বালোচদের মিসাইল দেওয়া হোক’, পাকিস্তানকে শায়েস্তা করতে নিদান দুবাইয়ের পুলিশকর্তার

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: February 2, 2021 10:47 am|    Updated: February 2, 2021 1:38 pm

Dubai ex-police chief advocates giving missile to Pakistan's Baloch rebels | Sangbad Pratidin

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: সন্ত্রাসবাদে মদত-সহ একাধিক ইস্যুতে ইসলামিক বিশ্বে ক্রমশ একঘরে হয়ে পড়ছে পাকিস্তান (pakistan)। ইরান, আফগানিস্তান ও সৌদি আরবের পর এবার ইসলমাবাদের বিরুদ্ধে সুর চড়িয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীও। কোনও রাখঢাক না করে দুবাইয়ের পুলিশ কর্তা লেফটেন্যান্ট জেনারেল দাহি খলফান সাফ জানিয়েছেন, পাকিস্তানকে শায়েস্তা করতে বালোচ বিদ্রোহীদের মিসাইল দেওয়া হোক।

[আরও পড়ুন: ‘ভ্যাকসিন নিন নিজেদের ঝুঁকিতে’, দেশবাসীকে আজব পরামর্শ পাকিস্তানের মন্ত্রীর]

জানুয়ারির ২৭ তারিখে নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে খলফান লেখেন, “আত্মরক্ষার জন্য পাকিস্তানের বালোচদের মিসাইল দেওয়া উচিত।” শুধু তাই নয়, তিনি আরও দাবি করেন যে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলির জন্য বড় বিপদ পাকিস্তান। এছাড়া, আমিরশাহীর নাগরিকদের কাছে তিনি আবেদন জানান, তাঁরা যেন কোনও পাকিস্তানিকে কাজে নিয়োগ না করেন। সব মিলিয়ে, ইসলামাবাদকে রীতিমতো তুলোধোনা করেছেন খলফান। বলে রাখা ভাল, গত ডিসেম্বর মাসে কানাডার টরন্টোয় হত্যা করা হয় পাক সমাজকর্মী করিমা বালোচকে (Karima Baloch)। বালোচিস্তানে পাক সেনা ও সরকারের অত্যাচারের বিরুদ্ধে মুখ খুলেছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে বিবিসি প্রকাশিত সারা বিশ্বের ১০০ জন সবচেয়ে প্রভাবশালী মহিলাদের তালিকায় নাম ছিল তাঁর। করিমার হত্যার পর থেকেই চাপ বেড়েছে ইমরান খানের সরকারের উপর। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ আরব দেশগুলিও।

এদিকে, দ্রুত বালোচ আন্দোলন দমন করতে চাইছে চিন বলে খবর। সেই উদ্দেশে ইতিমধ্যে পাক সেনাকর্তাকে সেই এলাকায় মোতায়েন করেছে বেজিং। যেনতেন প্রকারেণ আন্দোলন দমন করতে মরিয়া তারা। এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করেছেন পাক মেজর জেনারেল আয়মান বিলাল। বাংলাদেশের এক সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, বিলালকে মোটা টাকার বিনিময়ে বালুচিস্তান এলাকায় মোতায়েন করেছে বেজিং প্রশাসন। বালোচ আন্দোলন দমন করতে তাঁকে ছ’মাস সময় দেওয়া হয়েছে। বহুদিন ধরেই স্বাধীনতার দাবিতে উত্তাল পাকিস্তানের বালুচিস্তান প্রদেশ। বিভিন্ন সময় সেখান নাশকতামূলক ঘটনাও ঘটেছে। পাকিস্তানের অভিযোগ, দেশের সরকারের বিরুদ্ধে ক্রমাগত ষড়যন্ত্র করছে এই প্রদেশের নেতারা। এরই মাঝে পাকিস্তানে তৈরি হচ্ছে বেজিং-এর স্বপ্নের CPEC করিডর। যার একটা বড় অংশ রয়েছে বালুচিস্তান প্রদেশে। তাই বেজিং সর্বদা ভয়ে ভয়ে রয়েছে। বালোচ আন্দোলনকারীরা যদি নাশকতামূলক কার্যকলাপ ঘটায়। এমন আবহে এই আন্দোলনকেই উপড়ে ফেলতে চাইছে চিন সরকার। তাদের সেই ষড়যন্ত্র এবার প্রকাশ্যে এসে গেল।

[আরও পড়ুন: মায়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান নিয়ে জরুরি বৈঠকে রাষ্ট্রসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে