Advertisement
Advertisement
মিঙ্ক

করোনা আশঙ্কার জের, ১০ হাজার মিঙ্ককে হত্যার সিদ্ধান্ত ডাচ সরকারের

পশমের জন্য নেদারল্যান্ডে মিঙ্কের চাষ করা হয়।

Dutch govt orders culling of 10,000 mink to prevent spread of coronavirus
Published by: Sucheta Chakrabarty
  • Posted:June 8, 2020 10:15 am
  • Updated:June 8, 2020 10:15 am

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: মিঙ্কের থেকে ছড়াতে পারে করোনা ভাইরাস? এমনই আশঙ্কা দেখা দিয়েছে নেদারল্যান্ডে (Netherlands)। তাই প্রায় ১০ হাজার মিঙ্ককে হত্যা করার নির্দেশ নেয় ডাচ সরকার।

mink-2

Advertisement

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাদ পড়েনি কেউই। মানুষকে আক্রমণ করে মৃত্যুর পথে ঠেলে দেওয়াই এই ভাইরাসের প্রধান লক্ষ্য। আপাতত পশু-পাখিদের মধ্যে এই মারণ ভাইরাসের সংক্রমণ খুব বিশেষ দেখা যায়নি। তবে নেদারল্যান্ডে নাকি মিঙ্কের থেকে ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ! ডাচ সরকারের ফুড অথরিটিও জানিয়েছে, দেশের ১২০টি বড় খামারের মধ্যে ১০টিতেই ইতিমধ্যে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ ঘটেছে। তাই সমস্ত সংক্রমিত খামারের মিঙ্কগুলিকে মেরে ফেলা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

Advertisement

[আরও পড়ুন:কঠোর লকডাউনেই মিলল সাফল্য, মাত্র ৩ মাসে পুরোপুরি করোনামুক্ত নিউজিল্যান্ড]

প্রশ্ন হল কী এই মিঙ্ক? মিঙ্ক আসলে এক ধরনের স্তন্যপায়ী প্রাণী। এদের দেখতে অনেকটা বেজির মতো হয়। উভচর এই প্রাণীটি স্থলের পাশাপাশি জলে থাকতেও সক্ষম। প্রাণীটির শরীরের মূল্যবান পশমের জন্য এটি চাষ হয় নেদারল্যান্ডসে। কিন্তু গত মাসের ২৭ তারিখে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা হু (WHO) আশঙ্কা প্রকাশ করে জানায়, ডাচ কৃষকেরা সম্ভবত মিঙ্ক থেকেই করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। চিনের বাইরে এটাই প্রাণীদেহ থেকে মানুষের দেহে করোনা সংক্রমণের প্রথম উদাহরণ বলেও ধরে নেওয়া হয়। অন্তত দুটো ক্ষেত্রে বেজি প্রজাতির এই প্রাণীটি থেকে মানব দেহে করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের ঘটনা নিশ্চিত করা গেছে। জানা গেছে, এইন্ডহোভেন এলাকার দু’টি খামারের মিঙ্কদের দেহে প্রথম করোনা সংক্রমণের খবর আসে। এপ্রিল মাসে আক্রান্ত হয়েছিল খামার দু’টি। এরপরেই খামারের কর্মীদের প্রাণের ঝুঁকি না নিয়ে সমূলে মিঙ্কগুলিকে মেরে ফেলার কথা ভাবতে শুরু করে সরকার। শেষে সিদ্ধান্ত হয় যে, ১০ হাজার মিঙ্ককে মেরে ফেলা হবে।

[আরও পড়ুন:সঞ্জয় রাউতের কটাক্ষের পরই উদ্ধবের সঙ্গে সাক্ষাৎ অভিনেতা সোনু সুদের]

নেদারল্যান্ড ছাড়াও চিন, ডেনমার্ক, পোল্যান্ডে পশমের চাহিদা মেটাতে মিঙ্কের চাষ করা হয়। বিশেষজ্ঞদের মতে মিঙ্ক থেকে শুধুমাত্র করোনা নয়, আরও বহু রোগ ছড়ানোর সম্ভাবনা রয়েছে। কয়েক বছর পূর্বেই ডাচ সরকার জানিয়েছিল যে, ২০২৪ সালের মধ্যেই দেশের সমস্ত মিঙ্ক খামার বন্ধ হবে। তবে করোনার কারণে সেই কাজ হয়তো দ্রুত শেষ করা হবে। তাই মেরে ফেলা হবে মিঙ্কগুলিকে।

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ