Advertisement
Advertisement

শিক্ষার সুযোগ দিতে হবে মহিলাদের, তালিবানকে কড়া বার্তা রাষ্ট্রপুঞ্জের

আফগান ছাত্রীদের ক্ষোভের মুখে তালিবান।

Everyone should be Allowed to go to School, UN Warns Taliban | Sangbad Pratidin
Published by: Tiyasha Sarkar
  • Posted:March 28, 2022 1:28 pm
  • Updated:March 28, 2022 1:31 pm

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: আফগানিস্তানে (Afghanistan) মেয়েদের জন্য স্কুল খোলার কয়েক ঘন্টার মধ্যেই বন্ধ করে দিয়েছিল তালিবান। সেই ঘটনার তীব্র নিন্দা করে পালটা বিবৃতি দিল রাষ্ট্রপুঞ্জ (United Nations)। এহেন ঘটনার প্রতিক্রিয়া দিতে গিয়ে রাষ্ট্রপুঞ্জ জানিয়েছে, দেশের প্রত্যেক শিশু এবং কিশোর-কিশোরীদের শিক্ষার অধিকার সুনিশ্চিত করতে হবে তালিবানকে। রাষ্ট্রপুঞ্জের তরফে একটি ভিডিও টুইট করে এই কথা জানানো হয়।   

রাষ্ট্রপুঞ্জের মানবাধিকার কমিশনের প্রধান মিশেল ব্যাচেলেট জানিয়েছেন, “তালিবানের এই সিদ্ধান্তের কারণে বহু আফগান কিশোরীর ভবিষ্যৎ নষ্ট হয়ে যাবে। দেশের উন্নতিতে নারীদের ভূমিকাও সমান গুরুত্বপূর্ণ।” আফগান মহিলাদের সম্মান করা উচিত বলেও জানিয়েছেন মিশেল। 

Advertisement

[আরও পড়ুন: বগটুই কাণ্ডের রেশ বিধানসভায়, তৃণমূল-বিজেপির হাতাহাতিতে নাক ফাটল বিধায়কের, ভাঙল চশমাও]

ECW (Education Cannot Wait) রাষ্ট্রপুঞ্জের শিক্ষাক্ষেত্রের এক বিশেষ তহবিল। যেসব স্থানে শিক্ষার প্রসারে ব্যাঘাত ঘটছে, সেই জায়গায় কাজ করে থাকে এই সংস্থা। ECW ডিরেক্টর ইয়াসমিন শরিফ বলেছেন, “আমরা চাই আফগানিস্তানের সব মানুষ যেন শান্তিপূর্ণ এবং সচ্ছল ভবিষ্যৎ পায়। সেই জন্যই তালিবানের উচিত পুরুষ ও মহিলা নির্বিশেষে সকল ছাত্রছাত্রীদের জন্য উপযুক্ত শিক্ষার ব্যবস্থা করা।” আফগানিস্তানে মাধ্যমিক স্কুলগুলি বন্ধ করে দেওয়ার তীব্র নিন্দা করেছেন ইয়াসমিন। এই প্রসঙ্গে তিনি বলেছেন, “ছেলে এবং মেয়ে উভয়েরই স্কুলে যোগদান করা দরকার। দেশের সার্বিক উন্নতির জন্য মেয়েদের শিক্ষা অপরিহার্য। তাই মেয়েদের স্কুল যাওয়া থেকে আটকে রাখা একেবারেই উচিত নয়।”

২০১৮ সাল থেকে আফগানিস্তানে শিক্ষা প্রসারে সক্রিয় ভূমিকা পালন করে আসছে ECW। বিশেষত ছাত্রীরা যাতে যথাযথ ভাবে শিক্ষা লাভ করতে পারে এবং শিক্ষিকারা নিজেদের কাজ করতে পারেন, সেদিকে নজর রাখে রাষ্ট্রপুঞ্জের এই সংস্থা। ২০২১ সালে আফগানিস্তানের মসনদে বসে তালিবান। যদিও ক্ষমতা দখলের পরে তালিবানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল, তারা প্রত্যেকের শিক্ষার অধিকার সুনিশ্চিত করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। কিন্তু বাস্তবে তার প্রতিফলন দেখা যায়নি। মাধ্যমিক স্কুল ফের বন্ধ করার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে ইতিমধ্যেই রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করছেন আফগানিস্তানের মেয়েরা। রাষ্ট্রপুঞ্জের এহেন প্রতিক্রিয়ার পরে তালিবান নিজেদের অবস্থান পালটায় কিনা, সেদিকেই তাকিয়ে আছে আফগানিস্তানের মেয়েরা। 

[আরও পড়ুন: হিজাব পরায় ঢুকতে বাধা! ভারতীয় রেস্তরাঁ ‘বন্ধ’ করল বাহরিন]

 

Sangbad Pratidin News App

খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ