৯ আশ্বিন  ১৪২৭  শনিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ 

Advertisement

নেওয়া হয়নি দ্রুত পদক্ষেপ, করোনা নিয়ে চিনা প্রশাসনকে দুষলেন বিশেষজ্ঞরা   

Published by: Monishankar Choudhury |    Posted: February 29, 2020 10:27 am|    Updated: March 12, 2020 1:14 pm

An Images

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: করোনা বিপর্যয়ে রীতিমতো ধাক্কা খেয়েছে প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের প্রশাসন। এবার বেজিংয়ের অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে করোনা মোকাবিলায় গাফিলতি করেছে সরকার বলে অভিযোগ করল সে দেশের সরকার নিযুক্ত বিশেষজ্ঞ কমিটিই। 

[আরও পড়ুন: প্রয়োজন নেই ডিজনিল্যান্ডে যাওয়ার, ভারাক্রান্ত মনেও দুঃস্থদের পাশে অজি খুদে]

শুক্রবার পর্যন্ত চিনে করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন আরও ৪৪ জন। সব মিলিয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৩ হাজার। একইভাবে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা। এই পরিস্থিতিতে বিশেষজ্ঞ কমিটির সদস্য ও দেশের নামজাদা চিকিৎসক ঝং নানশানের আক্ষেপ, “গত ডিসেম্বরে প্রথম করোনা সংক্রমণের ঘটনা সামনে আসার পর থেকেই যদি আমরা আরও তৎপর হতাম, তাহলে এই রোগ এভাবে বিস্তার ঘটাত না।” স্বভাবতই ঝংয়ের মন্তব্যে দেশের কমিউনিস্ট সরকার আরও একবার চরম অস্বস্তিতে পড়ল।

চিনের সরকারের বিরুদ্ধে আগেই করোনা সংক্রান্ত তথ্য গোপন করার অভিযোগ তুলেছে বিশ্বের একাধিক দেশ। নিয়মিত মৃতের সংখ্যা জানানো ছাড়া চিনের স্বাস্থ্য বিভাগও কোনও কাজ করছে না। রোগ প্রতিরোধে যে উদ্যোগ তাদের অনেক আগেই নেওয়া উচিত ছিল, তা হয়নি। আর তারই ফলস্বরূপ দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান, নিউজিল্যান্ড, লিথুয়ানিয়া, বেলারুস-সহ এশিয়া, পশ্চিম এশিয়া এবং ইউরোপের নানা দেশে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে।

উল্লেখ্য, বিশ্বের প্রায় ৫০টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে করোনা ভাইরাস। শুধুমাত্র চিনেই মৃত্যু হয়েছে আড়াই হাজারেরও বেশি মানুষের। আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৭ হাজার ৬৫৮ জন। অন‌্যদিকে দক্ষিণ কোরিয়ায় এই মারণ ভাইরাসের বলি হয়েছেন ১১ জন। নোভেল করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে দুই ইটালীয় নাগরিকের মৃত্যুর পর অন্তত ৫০ হাজার নাগরিককে গৃহবন্দি করে ফেলেছে সে দেশ। এদিকে, ভারতীয় উপমহাদেশে উদ্বেগ বাড়িয়ে গত বুধবার পাকিস্তানে দুই ব্যক্তির শরীরে করোনা ভাইরাস পাওয়া গিয়েছে বলে জানিয়েছে সে দেশ। সব মিলিয়ে চিনে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসলেও, বিশ্বে ক্রমেই ছড়িয়ে পড়ছে এই মারণ রোগ।  

[আরও পড়ুন: পঙ্গপালের হাত থেকে বাঁচতে চিনা ‘হংস বাহিনী’র দ্বারস্থ পাকিস্তান]

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement

Advertisement