BREAKING NEWS

০২ জ্যৈষ্ঠ  ১৪২৯  বুধবার ১৮ মে ২০২২ 

READ IN APP

Advertisement

Advertisement

আসছে ‘সেকেন্ড ওয়েভ’? চিনে ফের করোনা সংক্রমণে সিঁদুরে মেঘ দেখছেন বিশেষজ্ঞরা

Published by: Bishakha Pal |    Posted: April 6, 2020 12:07 pm|    Updated: April 6, 2020 12:34 pm

Experts fear for second corona wave as new cases found in China

ফাইল ফটো

সংবাদ প্রতিদিন ডিজিটাল ডেস্ক: ফের করোনা সংক্রমণ ছড়াচ্ছে চিনে। এবার শুধু ইউহান বা হুবেই নয়, বিচ্ছিন্নভাবে করোনা ছড়াচ্ছে পুরো চিনজুড়েই। চিনের বিভিন্ন প্রদেশের হাজারে হাজারে মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন। তাহলে কি করোনা এবার পৌঁছে যাবে সাংহাই ও বেজিংয়েও? এই প্রশ্নে চরম উদ্বেগ দেখা দিয়েছে কমিউনিস্ট পার্টি পরিচালিত চিন সরকারের মধ্যেই।

এবার হুবেই ছাড়িয়ে করোনার সংক্রমণ শুরু হয়েছে মূল চিনের ভূখণ্ডেই। চিনে সরকারি হিসাবে ৮১,৬৬৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। মৃত বেড়ে ৩,৩২৯ জন। দু’টি সংখ্যাই বেড়ে গিয়েছে কারণ করোনা অনুপ্রবেশ করেছে চিনের উত্তর ও উত্তর-পূর্বের জনবহুল প্রদেশগুলিতে। গুয়াংদং ও শেনঝেন শহরে দশ-বারো জন নয়া আক্রান্তের হদিশ মিলেছে। শনিবার পর্যন্ত গোটা চিন থেকে ৩০ জন নতুন করে করোনা আক্রান্তের খবর এসেছে। রবিবার এই সংখ্যাটা কিছুটা বেড়ে যায়। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, নিশ্চিতভাবেই একটা সেকেন্ড ওয়েভ বা দ্বিতীয় ঝড় আসছে। ফের লাফিয়ে বাড়বে করোনা আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এটা তারই নমুনা মাত্র। অর্থাৎ ফের বিপর্যয়ের ইঙ্গিত রয়েছে গবেষক এ বিশেষজ্ঞদের কথায়। তাঁদের ইঙ্গিত, এবার হুবেই নয়। করোনা এবার ছোবল মারবে চিনের বাকি অংশগুলিতে। কারণ চিনে এখনও বেশ শীত রয়েছে। গরমের আভাস নেই। বৃষ্টিও পড়ছে বেশ। ফলে করোনা ভাইরাসের বংশবৃদ্ধি করা বা সংক্রমণ ছড়ানোর সব মালমশলাই মজুত রয়েছে।

[ আরও পড়ুন: করোনায় ছেদ পড়ল ৫১ বছরের দাম্পত্যে, ছ’মিনিটের ব্যবধানে মৃত্যু স্বামী-স্ত্রীর ]

এই খবর ছড়িয়ে পড়তেই চিনজুড়ে শুরু হয়েছে তীব্র উৎকণ্ঠা, হাহাকার ও হতাশা। চিনা সংবাদসংস্থা জিনহুয়াকে উদ্ধৃত করে ভারতীয় একটি সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যম এই খবর প্রকাশ করে জানিয়েছে, শনিবার গুয়াংদং ও শেনঝেন শহরে যে নতুন ৩০ জনের সংক্রামিত হওয়ার খবর মিলেছে তা আসলে স্থানীয় সংক্রমণ। লকডাউনের সময় এঁদের কয়েকজন ঘরেই ছিলেন। তিনদিন বাইরে বেরোতেই তাঁরা সংক্রামিত হয়েছেন। তবে কি করোনা ভাইরাস বায়ুবাহিত? প্রাণঘাতী এই ভাইরাস বায়ুবাহিত বলে আমেরিকা বা জার্মানির চিকিৎসকরা যা দাবি করছেন তা কি সত্যি? যদিও এই দাবি খারিজ করে চিনের ন্যাশনাল হেলথ কমিশন সাফ জানিয়েছে, করোনা বায়ুবাহিত এরকম কোনও প্রমাণ পাওয়া যায়নি। তাছাড়া নতুন করে আক্রান্তদের মধ্যে ২৫ জনই বিদেশ থেকে সম্প্রতি চিনে ফিরেছিলেন। তবে রবিবার চিনের মূল ভূখণ্ডে আক্রান্তদের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৪৭। আক্রান্তদের সবার বয়স ষাটের নিচে।

[ আরও পড়ুন: মানুষের পর এবার করোনায় আক্রান্ত বাঘ! উপসর্গ অন্য পশুর শরীরেও ]

Sangbad Pratidin News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন সংবাদ প্রতিদিন অ্যাপ
নিয়মিত খবরে থাকতে লাইক করুন ফেসবুকে ও ফলো করুন টুইটারে